নিউজ

চলতি সপ্তাহেই বিজেপিতে যোগ দিচ্ছেন শুভেন্দু, বৃহস্পতিবার Delhi যাচ্ছেন তিনি

নিউজ ডেস্কঃ ১৯ ডিসেম্বর, শনিবার পশ্চিমবঙ্গে আসছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। সূত্রের খবর, সেদিনই নাকি অমিত শার হাত ধরে বিজেপি-তে যেতে চলেছেন নন্দীগ্রামের বিধায়ক শুভেন্দু অধিকারী। এতদিনের জল্পনার অবসান সেদিনই হবে কিনা তা এখনও ঠিক নেই। কিন্তু তার আগেই দলের ‘বেসুরোে দের প্রতি কড়া বার্তা দিলেন তৃণমূল সুপ্রিমাে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মুখ্যমন্ত্রী মঙ্গলবার জলপাইগুড়ির সভামঞ্চ থেকে পরিষ্কার জানান যে তিনি এই বেসুরােদের সহ্য করবেন না।

Shuvendu is joining the BJP this week

কোনও রাখঢাক না রেখেই এদিন মমতা বলেন, আমি বড় বা ও বড় দলে এর কোনও প্রয়ােজন। নেই। ১০ বছর পার্টির হয়ে খেয়ে, ১০ বছর সরকারে থেকে সরকারের সবটা খেয়ে, ভােটের সময় এর সঙ্গে ওর সঙ্গে বােঝাপড়া? আমি এদের সহ্য করব না।’ উল্লেখ্য, দল থেকে বহিষ্কৃত হওয়ার পর শুভেন্দু অধিকারীর ঘনিষ্ঠ কনিষ্ক পণ্ডা বলেছিলেন, ‘মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় চিন্তা করুক যে পিকে বড় নেতা নাকি শুভেন্দু অধিকারী বড় নেতা। মমতা এদিন কথারই জবাব দিলেন বলে অনুমান রাজনৈতিক ওয়াকিবহল মহলের।

আরও পড়ুন :  নেপালের মাঝ আকাশে নিখোঁজ বিমান, ৪ ভারতীয় সহ ২২ জন যাত্রী ছিলেন বিমানে

দলের কর্মীরাই তৃণমুলের আসল সম্পদ বলে জানিয়ে দলের প্রতি এদিন মমতার বার্তা, যারা এই ১০ বছর ৩৬৫ দিন মানুষের জন্য কাজ করে এসেছেন তাঁরাই এই ভােটে আসল পরীক্ষা দেবেন। আর ২০২১-এ এমন পরীক্ষা দেবেন যাতে বিজেপি আর পরীক্ষায় বসতেই না পারে। ভােটের সময় বিজেপি বিপুল টাকা ওড়াবে বলে দাবি করে এদিন সাধারণ মানুষকে মমতা সাফ বলেন, “বিজেপি টাকার প্যাকেট দিলে নিয়ে নেবেন। ওটা আপনাদের টাকা। সেই টাকা খেয়ে নেবেন। কিন্তু ভােটের বাক্সে বিজেপি-কে উল্টে দেবেন। এটা মাথায় রাখতে হবে।
আমফান থেকে শুরু করে রেশন-কাণ্ডে তৃণমুলের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযােগ তুলেছে গেরুয়া শিবির।

সেই অভিযােগের পাল্টা দিতে গিয়ে এদিন মমতা বলেন, “শুধু কানে কানে বলে, এ খেয়েছে, ও খেয়েছে। বিজেপি-র মতাে বড় চোর কোথায় আছে? এত বড় ডাকাত সর্দার সব। চম্বলের বড় বড় ডাকাত।’ নিজের দলের পাশে দাঁড়িয়ে মমতার সাফ কথা, আমাদের কাজকর্মে ভুলভ্রান্তি থাকলে আমরা সংশোধন করে নেব। যে কাজ করে, সেই ভুল করে। এটা আমার কথা নয়। নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসু যুব সম্প্রদায়ের প্রতি বলে গিয়েছেন, ‘রাইট টু মেক ব্লান্ডার্স’। কিন্তু আমরা কাজ করেছি।

বিজেপি-র সর্বভারতীয় সভাপতি জে পি নড়ার কনভয়ে হামলার পর বিভিন্ন জনসভায় বঙ্গ বিজেপি নেতা দিলীপ ঘােষ, রাজু বন্দ্যোপাধ্যায়রা তৃণমূলকে দেখে নেওয়ার হুমকি দিয়ে চলেছেন। সেই হুমকিকে তিনি ভয় পান না বলে জানিয়ে তৃণমূল সুপ্রিমাে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এদিন বলেন, ওরা বলে বেরাচ্ছে, ডিসেম্বর থেকে মারব। মেরে দেখুক না!’ মমতার হুঙ্কার, ‘আমি ভাল তাে খুব ভাল। ১০০ শতাংশ শান্তির লােক। কিন্তু আমার গায়ে যদি আঘাত কর, আমি যা প্রত্যাঘাত করব না, তােমার কোটি কোটি গুন্ডা এনেও সেই প্রত্যাঘাত তুমি রুখতে পারবে না।’

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button