সস্তায় স্পোর্টস বাইক! মাত্র 11,000 টাকায় Bajaj Pulsar NS 125 বাড়ি নিয়ে আসুন

সস্তায় স্পোর্টস বাইক Bajaj Pulsar NS 125.

বাইক নিয়ে সকলের মধ্যেই একটা আলাদা উত্তেজনা থাকে। কিন্তু স্পোর্টস বাইক (Bajaj Pulsar NS 125) কিনতে গিয়েও অনেককে আবার পিছিয়ে আসতে হয়। নিজের পছন্দের একটি বাইক কেনার স্বপ্ন প্রায় সকলেরই থাকে। নিজের বাইক নিয়ে চারিদিকে ঘুরে বেড়ানো মজাই আলাদা। বর্তমান তরুন প্রজন্মের কাছে স্পোর্টস বাইক মানেই একটা আলাদা উন্মাদনা থাকে।

লাগামছাড়া দামের কারনে স্বপ্নের বাইক কেনার স্বপ্ন অপূর্ণই থেকে যায়। কারন অর্থের অভাব সেই স্বপ্ন পূরণ করার পথে বাধা হয়ে দাঁড়ায়। এই অর্থের অভাবের কারনে অনেকেই নিজের পছন্দের গাড়ি কেনার স্বপ্ন পূরণ করতে পারেন না।

Advertisement

এই ছোট ব্যবসা শুরু করে, প্রতি মাসে ২ লক্ষ টাকা উপার্জন করতে পারেন।

হ্যা এবার আপনার পছন্দের গাড়ি কম দামে কিনতে পারবেন। যে বাইকটি খুব কম দামে কিনতে পারবেন সেই বাইকটি হল Bajaj Pulsar NS 125। এই Bajaj Auto-র বাইকটির মধ্যে স্পোর্টস বাইকের সমস্ত বৈশিষ্ট্য রয়েছে। অন্যান্য স্পোটস বাইকের তুলনায় এর দাম অনেকটাই কম।

সাথে মাইলেজ, স্পিড এবং স্টাইলের দিক থেকেও Bajaj Pulsar NS 125-এর জুড়ি মেলা ভার। বাজাজ ভারতে যখন এই বাইকটি লঞ্চ করেছিল, তখন তার একটিই মাত্র ভ্যারিয়েন্ট ছিল। দিল্লির এক্স-শোরুম থেকে এই বাইকটির দাম শুরু হচ্ছে মাত্র 1,04,371 টাকা থেকে এবং এর অনরোড প্রাইস 1,22,308 টাকা।

ভারতে এই মুহূর্তে কাটিং এজ 125 cc-র মোটরসাইকেল হল এই Pulsar NS125. এতে লেটেস্ট বাইক পার্টস দেওয়া হয়েছে, যার বেশির ভাগই বিখ্যাত Pulsar NS200 থেকে নেওয়া হয়েছে।
Bajaj Pulsar NS 125 এর বিশেষত্ব:-

১)ইঞ্জিন ক্যাপাসিটি – 124.45 cc
২)মাইলেজ – 49 km/l
৩)ট্রান্সমিশন- 5 স্পিড ম্যানুয়াল
৪)কার্ব ওয়েট -144 kg

৫)ফুয়েল ট্যাঙ্ক ক্যাপাসিটি – 12 লিটার
৬)সিট হাইট -805mm
৭)ম্যাক্স পাওয়ার – 11.8bhp @ 8500 rpm
৮)ম্যাক্স টর্ক – 11 Nm @ 7,000 rpm
৯)রাইডিং রেঞ্জ – 588Km

এই Bajaj Pulsar NS 125 বাইকটি আপনি খুব কম দামে পেয়ে যেতে পারেন। তবে হ্যাঁ সেক্ষেত্রে কিছু শর্তাবলীও প্রযোজ্য রয়েছে। কীরকম শর্ত রয়েছে? আপনি কীভাবে কম দামে এই Bajaj Pulsar NS 125 স্পোর্টস বাইকটি ক্রয় করতে পারবেন তা জেনে নেওয়া যাক তাহলে-

Bajaj Pulsar NS 125 বাইকটি ফাইন্যান্স প্ল্যান করে কিনে নিতে পারেন। মাত্র 11,000 টাকায় এই বাইকটি আপনি পেয়ে যেতে পারেন। এই মূল্য আপনি ডাউন পেমেন্ট হিসেবে দেবেন। বাকি টাকা আপনাকে প্রতি মাসে EMI হিসেবে দিতে হবে।

অনলাইনের ডাউন পেমেন্ট এবং EMI ক্যালকুলেটার বিচার করে ব্যাঙ্ক আপনাকে 1,11,308 টাকা ঋণ দেবে। যার ইন্টারেস্ট রেট 9.7% হবে। আপনি লোন নিতে চাইলে এই সুবিধা পেয়ে যাবেন এবং এই হারেই আপনাকে প্রতিমাসে সুদ দিতে হবে।

তবে লোনের জন্য এই 1,11,308 টাকা পেতে আপনাকে অতি অবশ্যই 11,000 টাকার ডাউন পেমেন্ট করতে হবে। এরপর আপনি যখন একবার এই লোনের অ্যামাউন্ট পেয়ে যাবেন, তখন আপনাকে EMI-এর জন্য প্রতি মাসে 3,576 টাকা ব্যয় করতে হবে তিন বছরের জন্য।
এই সম্পর্কিত অন্যান্য খবরের আপডেট সবার আগে পেতে হলে এই ওয়েবপোর্টালটি ফলো করতে ভুলবেন না।
Written by Sunita Mallick.

মাত্র ১.৫ লক্ষ টাকায় স্বপ্ন পূরণ, Maruti Brezza ZXI Plus বাড়ি নিয়ে আসতে পারবেন

Advertisement

Probir Biswas

Hi. আমি প্রবীর বিশ্বাস, আমি সকাল বার্তা নিউজ পোর্টালে মোবাইল গেজেট ও টেকনিক্যাল নিউজ সম্পর্কে লেখালেখি করি। যদি আপনার আমার লেখাগুলো ভালো লেগে থাকে অবশ্যই শেয়ার করবেন। ধন্যবাদ

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *