Advertisement
নিউজ

Bank Vs Post Office: পোস্ট অফিস নাকি ব্যাঙ্ক কোথায় টাকা রাখলে বেশি লাভ পাবেন,জেনে নিন

ঝুঁকিহীন মাসিক রিটার্নসহ নিশ্চিত আয়ের বিনিয়োগের ক্ষেত্রে বিনিয়োগকারীদের প্রথম পছন্দ হলো ব্যাংক কিংবা পোস্ট অফিস।

Bank Vs Post Office: বর্তমানে ভারতের অর্থনৈতিক অবস্থা মোটেই ভাল নয়। তার ওপরে দিনের পর দিন ক্রমাগত মূল্যবৃদ্ধি বেড়েই চলেছে। আর এই পরিস্থিতিতে সাধারণ মানুষ বিভিন্ন ক্ষেত্রে বিনিয়োগের মাধ্যমে মূল্যবৃদ্ধি কাটিয়ে ওঠার চেষ্টা করছেন।মাথার ঘাম পায়ে ফেলে যে টাকা রোজগার করছেন, তা ভবিষ্যতের জন্য সঞ্চয় করে রাখাটাও খুব জরুরি। কিন্তু কোথায় কত জমালে কত ফেরত পাবেন, সেই নিয়ে কোন খবর রাখেন না অনেকেই।

Advertisement

ঝুঁকিহীন মাসিক রিটার্নসহ নিশ্চিত আয়ের বিনিয়োগের ক্ষেত্রে বিনিয়োগকারীদের প্রথম পছন্দ হলো ব্যাংক কিংবা পোস্ট অফিস। ব্যাঙ্কের নানা স্কিমে জমানো টাকার ওপর সুদের পরিমাণ নিয়ে অনেক তথ্যই আমরা চট করে পেয়ে যাই। তবে পোস্ট অফিসের খবরা খবর অনেকেই রাখি না। (Bank Vs Post Office) পোস্ট অফিসেও কিন্তু নানা স্কিমে টাকা রাখতে পারেন। বিশেষত বয়সপ্রাপ্ত সাধারণ নাগরিকদের মধ্যে এই মাসিক পেনশনের প্ল্যানগুলি যথেষ্ট জনপ্রিয়।

Advertisement

তবে বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই বিনিয়োগকারীরা দ্বন্দ্বে থাকেন ব্যাংকে বিনিয়োগ করবেন নাকি পোস্ট অফিসে। কোন ক্ষেত্রে বিনিয়োগ লাভ জনক হবে এই সকল বিষয়গুলো নিয়ে অনেকেই চিন্তিত থাকেন। আর তাই আপনাদের এই দ্বন্দ্ব মেটাতে আজ আমরা স্টেট ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া (SBI) এবং পোস্ট অফিসের দুটি জনপ্রিয় স্কিম নিয়ে হাজির হয়েছি। কোন ক্ষেত্রে কাদের বিনিয়োগে লাভ বেশি, নূন্যতম কত টাকা বিনিয়োগ করতে হয়, কত টাকা রিটার্ন পাওয়া যায় এই সমস্ত বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলি আলোচনা করতে চলেছি।

আরও পড়ুন :  ১০ দিনের মধ্যেই ভ‍্যাকসিনের ড্রাই রান, গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত কেন্দ্রের
Advertisement

কোন ক্ষেত্রে বিনিয়োগ (Bank Vs Post Office) লাভজনক হবে সে সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য জেনে নিন-

১)SBI এর অ্যানুইটি ডিপোজিট স্কিম : –

Advertisement

স্টেট ব্যাংক অফ ইন্ডিয়ার এই অ্যানুইটি ডিপোজিট স্কিমে এককালীন টাকা জমা করলেই আপনারা মাসে মাসে আয় করতে পারবেন। এটি SBI এর একটি মাসিক আয় স্কিম। এই স্কিমে স্টেট ব্যাংক অফ ইন্ডিয়ার গ্রাহকরা ৩৬ মাস, ৬০ মাস, ৮৪ মাস কিংবা ১২০ মাসের জন্য তাদের আমানত জমা রাখতে পারবেন। অপ্রাপ্তবয়স্করা যদি SBI বার্ষিক আমানত স্কিমের অধীনে অ্যাকাউন্ট খুলতে চান তবে তারা যৌথভাবে তা করতে পারেন।

SBI অ্যানুইটি ডিপোজিট স্কিমে সুদের হার:-

SBI অ্যানুইটি ডিপোজিট স্কিমে সুদের হার কত মাসের মেয়াদের স্কিমে টাকা বিনিয়োগ করা হচ্ছে তার ওপর নির্ভর করে। এই স্কিমে জন সাধারণের জন্য সুদের হার রয়েছে ৫.৪৫ – ৫.৫০ শতাংশ এবং প্রবীণ নাগরিকদের ক্ষেত্রে এই স্কিমে সুদের হার রয়েছে ৫.৯৫ – ৬.৩০ শতাংশ।

অ্যানুইটি ডিপোজিট স্কিমের সুবিধা:-

এই স্কিমের সবথেকে আকর্ষণীয় সুবিধাটি হল এই স্কিমে ঋণ কিংবা ওভারড্রাফেটর সুবিধা রয়েছে। সেক্ষেত্রে অ্যাকাউন্ট ব্যালেন্সের ৭৫ শতাংশ পর্যন্ত ঋণ পাওয়ার সুবিধা রয়েছে। এর পাশাপাশি ১৫ লক্ষ টাকা বিনিয়োগের ক্ষেত্রে মেয়াদ পূরণের পূর্বে আমানত তোলা যাবে না। আর যদি তোলা হয় তবে গ্রাহকদের জরিমানা দিতে হবে।

২) পোস্ট অফিস মান্থলি ইনকাম স্কিম(MIS):-

পোস্ট অফিসের এই মান্থলি স্কিম ১৮ বছর বয়স হলেই যে কোন ব্যক্তি এই স্কিমে বিনিয়োগ করতে পারবেন। মাত্র হাজার ১০০০ টাকাতেই পোস্ট অফিসে এই মান্থলি ইনকাম স্কিমে অ্যাকাউন্ট খোলা যাবে। পোস্ট অফিস MIS-এ বিনিয়োগকারীরা একক এবং যৌথ উভয় ধরনের অ্যাকাউন্টই খুলতে পারবেন। একজন বিনিয়োগকারী সর্বোচ্চ ৩ টি অ্যাকাউন্টের অধিকারী হতে পারবেন।

এক্ষেত্রে ১০০০ এর গুণিতকে যে কোনো আমানত ডিপোজিট করা যায়। তবে একক অ্যাকাউন্টের ক্ষেত্রে বিনিয়োগের সর্বোচ্চ সীমা হল ৪.৫ লক্ষ টাকা। আর যৌথ অ্যাকাউন্টের ক্ষেত্রে বিনিয়োগের সর্বোচ্চ সীমা হল ৯ লক্ষ টাকা। এই স্কীমটির মেয়াদ মাত্র ৫ বছর, যদিও আরও ৫-৫ বছরের জন্য এই স্কিমের মেয়াদ বৃদ্ধি করা যেতে পারে।

পোস্ট অফিসের মান্থলি ইনকাম স্কিমে সুদের হার:-

পোস্ট অফিসের এই স্কিমে ৬.৬ শতাংশ হারে বার্ষিক সুদ প্রদান করা হয়। এই স্কিমের মেয়াদ ৫ বছর হওয়ায়, ৫ম বছরের পর থেকে প্রতি মাসে নিশ্চিত আয়ের সুযোগ রয়েছে। তবে এই স্কিমে করের ক্ষেত্রে কোনো ছাড় নেই। এর পাশাপাশি বয়স্ক নাগরিকদের জন্য কোনো অতিরিক্ত সুবিধাও নেই। তবে এই স্কিমেও সময়ের পূর্বে জমাকৃত রাশি তোলা হলে গ্রাহকদের জরিমানা গুনতে হবে।

আপনিও কি নিজের ভবিষ্যৎ সুরক্ষিত রাখতে বিনিয়োগ করার কথা ভাবছেন।তাহলে আর দেরি না করে নিজের ভবিষ্যৎ সুনিশ্চিত করতে এই স্কিমগুলিতে বিনিয়োগ করতে পারেন।

Related Articles

Back to top button