বিনোদনভাইরালভিডিও

কমেডি ক্যুইন ভারতী সিং শিখ ধর্মকে চরম অপমান করায় বিতর্কের মুখে ক্ষমা চাইতে বাধ্য হলেন

কমেডিয়ান ভারতী সিং প্রায়ই খবরের শিরোনামে থাকেন। মজার কথায় দর্শক শ্রোতাদের পেটে খিল ধরাতে ভারতীর জুড়িমেলা ভার।তবে এবার দাড়ি-গোঁফ নিয়ে রসিকতা করে বিতর্কে জড়ালেন টেলিভিশনের ‘কমেডি ক্যুইন ভারতী’।বিতর্কের সূত্রপাত পুরনো একটি ভিডিও থেকে। যেখানে ভারতীর কথা শুনে নেটিজেনদের একাংশের মনে হয়েছে, তিনি শিখ ধর্মাবলম্বীদের অপমান করেছেন।ভারতী কী এমন বলেছিলেন যা নিয়ে এমন বিতর্ক?

ভারতী কা শো’য়ে ওই ভিডিওতে কমেডিয়ানকে রসিকতা করতে দেখা যায় জাসমিন ভাসিনের সঙ্গে।তিনি বলেন তোমার দাড়ি গোঁফ চাই না কেন?দাড়ি-গোঁফের কত সুবিধা আছে জানো।দুধ খাওয়ার সময় মুখের দাড়ি ঢুকিয়ে দিলে কেমন সেমাইয়ের মতো স্বাদ লাগে দেখো।আমার অনেক বন্ধুর লম্বা লম্বা দাঁড়িওয়ালা লোকেদর সঙ্গে বিয়ে হয়েছে।দাঁড়ি থেকে উকুন বাছতেই সারাদিন কাটিয়ে দেয় তারা।

আরও পড়ুন :  Bold Monalisa: শর্ট ড্রেসে দুর্দান্ত লুকে মোনালিসা সোশ্যাল মিডিয়ায় ফের ঝড় তুললেন, চোখ ফেরানোই মুশকিল

ভারতীর শোয়ের সেই অংশের ভিডিও ভাইরাল হতেই নেটদুনিয়ায় শোরগোল পরে গিয়েছে।ভারতী সিং বিতর্কে জড়িয়ে পড়েন।এরপরেই কমেডি ক্যুইন তড়িঘড়ি ক্ষমা চেয়ে নেন।ইনস্টাগ্রামে একটি ভিডিও পোস্ট করে তিনি জানান ‘গত ২-৩ দিন ধরে একটা ভিডিও ভাইরাল হয়েছে।আর অনেকেই ব্যক্তিস্তরে আমাকে সেই ভিডিও পাঠিয়ে অভিযোগ করেছেন, যে আমি নাকি দাড়ি-গোঁফ নিয়ে রসিকতা করে ধর্মকে অবমাননা করেছি।

কিন্তু সেই ভিডিওটা ভাল করে দেখলেই বুঝতে পারবেন যে আমি কোনও ধর্মের নাম উল্লেখ করিনি।আর এটাও বলিনি যে শিখ ধর্মের মানুষেরা লম্বা দাড়ি-গোঁফ রাখেন।পাশাপাশি তিনি এও বলেন এটা সাধারণ একটা কথোপকথন মাত্র।আমি আমার বন্ধুর সঙ্গে রসিকতা করছিলাম।আজকাল তো অনেকেই দাড়ি-গোঁফ রাখেন।

সেই ভিডিও শেয়ার করে ভারতী সিং ক্যাপশনে লিখেছেন- ‘আমি কমেডি করি মানুষকে হাসানোর জন্য।কাউকে কষ্ট দেওয়ার জন্য নয়।তাই আমার কথায় কেউ যদি আঘাত পান, তাহলে ক্ষমাপ্রার্থী।নিজের বোন মনে করে ক্ষমা করে দেবেন আমাকে’।তিনি এও বলেন আমি নিজেও একজন পাঞ্জাবি।আমি অমৃতসরে জন্মেছি,তাই পাঞ্জাবকে সব সময় সম্মান করে এসেছি এবং করবও।আর পাঞ্জাবি হিসেবে আমি গর্বিত।

Related Articles

Back to top button