নিউজ

বড়সড় পরিবর্তন ! ব্যাঙ্কে নগদ টাকা জমা এবং তোলার ক্ষেত্রে,জেনে নিন

২৬ মে, ২০২২ থেকে ভারতে নগদ টাকা জমা এবং তোলার ক্ষেত্রে বড়সড় পরিবর্তন শুরু হয়েছে।কেন্দ্রের তরফে জানানো হয়েছে এখন থেকে নাগরিকদের নগদ তোলা বা জমা দেওয়ার জন্য তাদের প্যান নম্বর বা আধার নম্বর কোট করে দিতে হবে।সেন্ট্রাল বোর্ড অফ ডায়রেক্ট ট্যাক্সেসের ( Central Board of Direct Taxes) তরফে এই মাসের শুরুতে এই নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে।

প্রত্যেক ব্যক্তিকে ফর্মের নিচের দিকের নির্দিষ্ট টেবিলের কলামে ট্রানজাকশনের সময়ে নিজেদের প্যান নম্বর বা আধার নম্বর উদ্ধৃত করতে হবে। সরকারি তরফে জানানো হয়েছে এই ধরনের লেনদেন সংক্রান্ত নথিতে উল্লিখিত টেবিলের কলামে প্রত্যেক ব্যক্তিকে তাঁর উদ্ধৃত নম্বরটি নিশ্চিত করতে হবে।
চলতি আর্থিক বছরে পোস্ট অফিস সহ সমবায় ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট থেকে ২০ লক্ষ টাকার বেশি নগদ তুলতে হলে এই নিয়ম মেনে চলতে হবে। কারেন্ট অ্যাকাউন্ট খোলার সময়ও গ্রাহকদের একই নিয়ম অনুসরণ করতে হবে।

আরও পড়ুন :  মিনিকেট চাল বলে রেশনের পোকা চাল বিক্রি করছে কিছু অসাধু চাল ব্যবসায়ী,এদের থেকে বাঁচতে এক্ষুনি সচেতন হন

আগে ৫০,০০০ টাকার বেশি নগদ তোলার ক্ষেত্রে প্যান কার্ডের প্রয়োজন হত। কিন্তু সেই সময়ে ১১৪ বি ধারায় নগদ জমার কোনও বার্ষিক নির্দিষ্ট অঙ্ক ছিল না। এই নিয়মও শুধুমাত্র ব্যাঙ্কে নগদ জমা করার ক্ষেত্রে প্রযোজ্য ছিল, তোলার ক্ষেত্রে নয়।যাঁরা ২০ লক্ষ টাকার বেশি নগদ জমা করতে বা তুলতে চান বা অ্যাকাউন্ট খুলতে চান এবং যাদের প্যান কার্ড রয়েছে, তাঁদের ট্রানজেকশনের সময় বা অ্যাকাউন্ট খোলার সময় নিজেদের প্যান কার্ডের নম্বরটি কোট করতে হবে।

১৩৯ ধারা অনুযায়ী উচ্চমূল্যের লেনদেনের জন্য প্যানের মাধ্যমে আবেদন করতে হবে এবং যথাযথ নম্বর উদ্ধৃত করতে হবে।এক্ষেত্রে যেহেতু ব্যক্তির সমস্ত ধরনের ট্রানজাকশনকে কভার করা সম্ভব নয়, তাই এই ব্যবস্থা পুরোপুরি কেন্দ্রীয় সরকারের হাতে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। এই কারণে সিবিডিটি বেশি টাকা জমা এবং তোলার ক্ষেত্রে এই নিয়ম প্রযোজ্য করেছে।এ বিষয়ে Taxbuddy.com-এর প্রতিষ্ঠাতা সুজিত বাঙ্গার ( Sujit Bangar) জানিয়েছেন যাঁরা এই নিয়মের আওতায় লেনদেনে করবেন, তাঁদের যদি প্যান না থাকে, তাহলে ট্রানজাকশনের অন্তত ৭ দিন আগে প্যানের জন্য আবেদন করতে হবে।

বিশেষজ্ঞরা আশা করছে এই নতুন নিয়ম প্রবর্তনের কারণে আর্থিক জালিয়াতি অনেকটাই কমবে। সিএ রুচিকা ভগতের (Ruchika Bhagat) মতে এতে সরাসরি আয়কর বিভাগের হস্তক্ষেপ থাকার জন্য উচ্চমূল্যের আর্থিক কেলেঙ্কারি অনেকটাই কমবে।এছাড়াও যাঁদের প্যান কার্ড নেই তাঁদেরও একটি স্বচ্ছ তালিকা প্রকাশ করা সম্ভব হবে এই নিয়মের আওতার ফলে।

Related Articles

Back to top button