নিউজ

ফিরহাদ হাকিম ও মলয় ঘটকদের সামনেই বিক্ষোভ SLO শ্রমিকদের, ভাঙচুর,ধুন্ধুমার নেতাজি ইন্ডােরে

কলকাতা,নেতাজি ইন্ডােরঃ লকডাউন শুরুর পর থেকে কেটে গিয়েছে ৯ মাস এতদিন রােজগার বন্ধ এসএলও (সেলফ এমপ্লয়েড লেবার অর্গানাইজেশন) শ্রমিকদের। রাজ্যের বিভিন্ন অসংগঠিত ক্ষেত্রের শ্রমিক যাঁরা সামাজিক সুরক্ষার ফর্ম ফিল আপ করেন সেই শ্রমিকদের সঙ্গে এদিন বৈঠক ডাকে শ্রম দফতর। তাঁদের কোনও বাধাধরা বেতন নেই। প্রতিটি ফর্ম ফিল আপ করে ২ টাকা করে কমিশন পেতেন তাঁরা সেটাই রােজগার। কিন্তু লকডাউন চালুর পর এপ্রিল মাস থেকে সেটাও বন্ধ, এমনই অভিযােগ ওই শ্রমিকদের।

Demonstration in front of Firhad Hakim and Malay Ghatak SLO workers, vandalism, thunder in Netaji Inder

জানা গিয়েছে, এদিনের বৈঠক তাঁদের চাকরির ক্ষেত্রে বেতন কাঠামাে ও সামাজিক সুরক্ষার কথা ঘােষণা করার কথা ছিল।তাঁদের নিয়েই সােমবার নেতাজি ইন্ডাের স্টেডিয়ামে বৈঠক ডাকে রাজ্যের শ্রম দফতর। শ্রমিকরা ভেবেছিলেন, দীর্ঘ সমস্যার সুরাহা হবে। কিন্তু তা না হওয়ায় এদিন বিক্ষোভে ফেটে পড়লেন তাঁরা। পুরমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম ও শ্রম দফতরের মন্ত্রী মলয় ঘটকের সামনেই বিক্ষোভ দেখান তাঁরা, নেতাজি ইন্ডাের স্টেডিয়ামের সামনে ও ভেতরে চলে ভাঙচুর। এদিন বিকেলে স্টেডিয়ামের সামনের রাস্তায় শয়ে শয়ে শ্রমিক অবস্থান বিক্ষোভে সামিল হন। পুলিশের সঙ্গেও তাদের ধস্তাধস্তি হয় বলে অভিযােগ।

আরও পড়ুন :  Gas subsidy: রান্নার গ্যাসের ভর্তুকির নিয়মে বদল!সবার ক্ষেত্রে এই সুবিধা পাওয়া যাবে না,আপনি কতটা ভর্তুকি পাবেন জানেন কি?

বৈঠকে অংশ নিতে রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে শ্রমিকরা আসেন, কিন্তু বৈঠকে তাঁদের দাবিদাওয়া মানা হয়নি বলে অভিযােগ। তাঁদের যা সমস্যা তার কোনও সমাধানসুত্রও দেওয়া হয়নি। শ্রমিকদের কোনও দাবিদাওয়া না মানার প্রতিবাদে এদিন উত্তপ্ত হয়ে ওঠে নেতাজি ইন্ডাের চত্বর। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছবি দেওয়া তােরণ, হাের্ডিং, ফ্লেক্স ভেঙে ফেলেন বিক্ষোভকারীরা। নেতাজি ইন্ডােরের ভেতরেও চেয়ার ছোড়াছুড়ি হয় ভাঙচুর চলে, তাও মন্ত্রীদের সামনেই।

এক বিক্ষোভকারী অভিযােগ করে জানান, দীর্ঘ ৯ মাস আমাদের কোনও রােজগার নেই। আগে কমিশনের যা টাকা পেতাম তা দিয়ে সংসার চলত। কিন্তু লকডাউনের পর থেকে আমরা একটা টাকাও পাইনি। মলয় ঘটক আমাদের কথা দিয়েছিলেন যে SLO পরিবার ও অন্য শ্রমিকদের সঙ্গে আজকের বৈঠকে একটা সমাধানসূত্র বের হবে। কিন্তু তিনি এদিন দলের হয়ে, সরকারের হয়ে প্রচার করে গেলেন। আমাদের বেতন দেওয়ার কথাও বলা হয়েছিল, কিন্তু কিছুই হয়নি।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button