টেকনোলজি

WhatsApp এর মাধ্যমে বাড়িতে থেকেই অর্থ উপার্জন করতে চান, সেই সুযোগ দিচ্ছে WhatsApp ! কী ভাবে? জানুন

earn money from whatsapp

নিউজ ডেস্কঃ বর্তমান যুগে আমাদের সর্বক্ষণের সঙ্গী স্মার্টফোন।আর এই স্মার্টফোনের ভেতরের অ্যাপস গুলি আমাদের কাছে বিশেষ প্রয়োজনীয়।ফেসবুক, ইনস্টাগ্রাম টুইটার, হোয়াটসঅ্যাপ, সোশ্যাল মিডিয়ার যুগে এই অ্যাপগুলি সকলের কাছে খুব প্রয়োজনীয়। ঘুম থেকে উঠেই আট থেকে আশি এখন সকলের নজর সোশ্যাল মিডিয়াতে।আর সেই সোশ্যাল মিডিয়া থেকেই যে মোটা টাকা রোজগার করতে পারেন, তা তো নিশ্চয়ই জানেন। Facebook এবং YouTube থেকেও রোজগারের কথা অনেকেরই জানা। কিন্তু WhatsApp থেকেও যে রোজগার করা সম্ভব, তা কি জানতেন? সরাসরি উপায় না থাকলেও বিশ্বের অন্যতম জনপ্রিয় এই ইনস্ট্যান্ট মেসেজিং অ্যাপ থেকেও রোজগারের একাধিক পথ রয়েছে। কী
ভাবে জানুন-

হোয়াটসঅ্যাপ স্টেটাস শেয়ার করেও আপনি বিপুল অর্থ রোজগার করতে পারেন। এর জন্য প্রথমেই প্রয়োজন একটি হোয়াটসঅ্যাপ বিজনেস অ্যাকাউন্ট।এই হোয়াটসঅ্যাপ বিজনেস অ্যাকাউন্ট থেকে দিনে অন্তত 10টি স্টেটাস পোস্ট করতে হবে।এই স্টেটাসে আরও বেশি সাবক্রাইবার জোগাড় করতে হবে।আর এমন বিজ্ঞাপনদাতা জোগাড় করতে হবে যাঁরা টাকা খরচ করে আপনার স্টেটাসে বিজ্ঞাপন দেবেন।তবে নিজের ফোনে কখনই ব্যবহার করবেন না এই হোয়াটসঅ্যাপ বিজনেস অ্যাকাউন্ট।এর জন্য একটি কম দামের অ্যান্ড্রয়েড ফোন কিনে নেবেন।

আরও পড়ুন :  Link Pan Aadhar: হাতে মাত্র 10 দিন সময় আছে ,এটি না করলে গুনতে হবে দ্বিগুণ জরিমানা

হোয়াটসঅ্যাপ বিজনেস অ্যাকাউন্ট তৈরির জন্য নির্দিষ্ট কোনও একটি অপারেটরের সিম কার্ড কিনে হোয়াটসঅ্যাপ বিজনেস অ্যাকাউন্ট তৈরি করবেন।কারন ভার্চুয়াল নম্বর বদলে গেলে আপনার ব্যবসা হঠাৎ বন্ধ হয়ে যেতে পারে। এবার একটি নতুন জিমেইল অ্যাকাউন্ট তৈরি করে সেখানেই সব সাবস্ক্রাইবারদের নম্বর সেভ করে রাখুন।

তাহলে এবার দেখে নিন হোয়াটসঅ্যাপ স্টেটাস শেয়ার করবেন কী ভাবেঃ-

* প্রতিদিন ইনস্টাগ্রাম, ফেসবুক, ইউটিউব থেকে ভাইরাল কনটেন্ট জোগাড় করে সেই কনটেন্ট ফোনে সেভ করে রাখুন।পরে তা নিজের অ্যাকাউন্ট থেকে পোস্ট করবেন।যত বেশি মানুষ এই লিঙ্কে ক্লিক করবেন, আপনি তত বেশি রোজগার করবেন।

* আপনি কোনও প্রডাক্টকে প্রোমোট করতে পারেন।অর্থাৎ ফ্যাশনের পোস্ট ফিটনেসের সংক্রান্ত তথ্য এসব।

* এছাড়াও আপনার যদি কোনও ব্যবসা থাকে, সেই ব্যবসার সামগ্রী আপনি WhatsApp এর মাধ্যমে প্রোমোট অথবা বিক্রি করতে পারবেন। শেয়ার করতে পারেন আপনার সোশ্যাল মিডিয়া ও ওয়েবসাইটের লিঙ্ক।

তবে স্টেটাস পোস্ট করার আগে খেয়াল করবেন, তা যেন মূল্যবান, আকর্ষক উত্তেজনাপূর্ণ অথবা চমকপ্রদ হয়।এভাবে WhatsApp থেকে প্রতি মাসে বেশ ভালো টাকাই উপার্জন করতে পারবেন।

Related Articles

Back to top button