Advertisement
অটোকার

Evtric motors bike:মাত্র ৫০০০ টাকা দিয়ে নিয়ে আসুন নতুন ইলেকট্রিক বাইক!এক চার্জে চলবে ১১০ কিমি

সাধারণ মধ্যবিত্ত মানুষ বহু বছর ধরে সঞ্চয় করার পরে বাইক কিনলেও প্রতিনিয়ত পেট্রোল এবং ডিজেলের দাম বাড়ার কারনে সমস্যায় পরতে হয় তাদের।

Evtric motors Bike: বর্তমান সময়ে নিজের জন্য একটা বাইক কেনার স্বপ্ন দেখেন অনেকেই।সাধারণ মধ্যবিত্ত মানুষ বহু বছর ধরে সঞ্চয় করার পরে বাইক কিনলেও প্রতিনিয়ত পেট্রোল এবং ডিজেলের দাম বাড়ার কারনে সমস্যায় পরতে হয় তাদের।এমন অবস্থায় গাড়ির রক্ষণাবেক্ষণ করা এবং পেট্রোল ডিজেল কেনার খরচ এসব নিয়ে চিন্তার শেষ থাকে না।

Advertisement

দেশজুড়ে পেট্রোল ডিজেলের মূল্য ঊর্ধ্বমুখী হয়েই চলছে।তাই মানুষ আস্তে আস্তে পেট্রোল চালিত গাড়ি ছেড়ে ইলেকট্রিক গাড়ির দিকে ঝুঁকছে।ভারতে ইলেকট্রিক গাড়ির চাহিদা দিনে দিনে বাড়ছে। তাই বিভিন্ন কোম্পানি ভারতে তাদের নতুন নতুন ইলেকট্রিক গাড়ি পেশ করছে।যদিও ইলেকট্রিক গাড়ির ভবিষ্যত (Evtric motors Bike) কি সেই ব্যাপারে নিশ্চিৎ না হলেও অন্য কোনো উন্নততর প্রযুক্তি না আসা অবধি বৈদ্যুতিক গাড়ি গুলোই মানুষের প্রথম পছন্দ উঠেছে।

Advertisement

Evtric motors Bike

Advertisement

অবশ্য এই বৈদ্যুতিক গাড়িগুলোর তিনটি প্রধান সুবিধাও রয়েছে (Evtric motors Bike)-

Advertisement

১) পরিবেশ দূষণ প্রায় নেই বললেই চলে, তাই বর্তমানের প্রকৃতি প্রেমি জনতার প্রথম পছন্দ এই গাড়িগুলি।
২)অত্যন্ত কম খরচেই চালানো সম্ভব।
৩) এখানে উন্নততর প্রযুক্তির সুবিধা মেলে।

আর মোদী সরকারের বদান্যতায় এর সাথে আর একটি সুবিধা মেলে এবং তা হলো বৈদ্যুতিক গাড়ির ট্যাক্স অত্যন্ত কম। কিন্তু ভারতীয় বাজারে কোন গাড়িগুলো সবচেয়ে উপযুক্ত হবে তাই নিয়ে অনেকে ধন্ধে থাকেন। কারন ভারতীয় বাজারে ইলেকট্রিক গাড়ির অনেক অপশন থাকে।তবে আজ যে ব্র্যান্ডের ব্যাপারে বলবো সেখানে আপনি একেবারে ভ্যালু ফর মানি প্রোডাক্ট পেয়ে যাবেন (Evtric motors Bike) ।

এই ব্র্যান্ডের নাম EVTRIC Motors | সদ্যই তারা বাজারে তাদের নতুন ইলেকট্রিক বাইক EVTRIC Rise লঞ্চ করেছে।সংস্থার দাবি যে এই নতুন ই বাইকটি (Evtric motors Bike) একবার চার্জেই প্রায় ১১০ কিলোমিটার দূরত্ব অতিক্রম করতে পারে। এছাড়া এই বাইকটি পুরোপুরি মেড ইন ইন্ডিয়া প্রোডাক্ট, যা দেশীয় বাজারকে আরো সমৃদ্ধ করে তুলবে। গাড়িটি এখন সাদা এবং কালো এই দুই রঙেই উপলব্ধ।

এই বৈদ্যুতিক বাইকটির কি কি বৈশিষ্ট্য রয়েছে?

  • ১) এই বাইকে রানিং লাইট রয়েছে, যা চালানোর সময় আপনাকে সাহায্য করবে।
  • ২) সামনে বেশ শক্তিশালী LED হেডল্যাম্প আছে।
  • (৩) ২০০০ ওয়াট এর BLDC মোটর এর সাহায্যে এই গাড়ি খুব উচ্চগতিতে ছুটবে।
  • ৪) ইঞ্জিনের সাথে একটি 70V/40Ah এর ব্যাটারি সংযুক্ত রয়েছে।
  • ৫) একবার চার্জ দিলেই অনায়াসে ১১০ কিমি ছুটবে।
  • (৬) এই বাইকটি সর্বোচ্চ ৭০ কিমি প্রতি ঘন্টা স্পিডে ছুটতে পারে।

এছাড়াও কোম্পানির তরফে জানানো হয়েছে, এই বাইকটির ব্যাটারি (Evtric motors Bike) সম্পূর্ণ চার্জ হতে মাত্র 4 ঘণ্টা সময় লাগবে।এর ব্যাটারি চার্জ করার জন্য, বাইকটিতে 10amp মাইক্রো চার্জারের সুবিধা দেওয়া হয়েছে যা অটো কাট টেকনোলজির সাথে আসে।ব্যাটারিটি বাইক থেকে খুলে নেওয়া যাবে। ফলে বাড়ির যে কোনও জায়গায় চার্জ দেওয়া অত্যন্ত সুবিধাজনক।এই বাইকটি ইউজারদের জন্য বেশ সুবিধাজনক এবং নিরাপদ।

এই বাইকের দাম কত?

এই বাইকটির দাম রাখা হয়েছে ১,৫৯,৯৯০ টাকা।তবে আপনি ৫০০০ টাকা ডাউন পেমেন্ট করেই নিয়ে আসতে পারেন (Evtric motors Bike) । ইতিমধ্যে ভারতের ২২টি রাজ্যে এই বাইক উপলব্ধ।

Related Articles

Back to top button