টেকনোলজিনিউজ

জুতার রিয়্যাক্ট চালু করলো ফেসবুক, কিভাবে জুতার রিয়েক্ট চালু করবেন দেখেনিন

৭ টি রিয়্যাকশন বাটন এর পাশাপাশি এখন অতিরিক্ত একটি বাটন যোগ করেছে ফেসবুক।পরীক্ষামূলক ভাবে অনেক ফেসবুক গ্রুপে চালু হয়েছে এই ফিচার। গ্রুপ এডমিন এই অতিরিক্ত রিয়্যাকশনটি অন করে রাখতে পারবেন এবং এটি শুধুমাত্র সেই গ্রুপেই ব্যবহার করা যাবে। ধারণা করা হচ্ছে ধীরে ধীরে ফেসবুকের সবজায়গায়(পেজ এবং প্রোফাইলে) এটা পাওয়া যাবে।

বর্তমান বিশ্বের সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক।যার শুরুটা হয় ২০০৪ সালে।সূচনালগ্ন থেকে ব্যবহারকারীগন ফেসবুকে তাদের লিখা ও ছবিসহ বিভিন্ন কনটেন্ট আপলোড করার সুবিধা পায়। কিন্তু এসব কনটেন্ট এ অন্য ব্যবহারকারীরা তাদের পছন্দ অপছন্দের কথা জানানোর কোন অপশন ছিলো না।

পরবর্তীতে দীর্ঘ ৫ বছর পর ২০০৯ সালের ৯ই ফেব্রুয়ারী ফেসবুকে প্রথমবারের মতো ‘Like’ নামক একটি বাটন সংযুক্ত করা হয়। যার মাধ্যমে ব্যবহারকারীরা একে অন্যের পোস্ট করা কনটেন্ট এ নিজের পছন্দের কথা জানাতে পারতো।ফেসবুকে স্বয়ংক্রিয়ভাবে সেই সংখ্যাটাও গননা করা হতো। ২০১০ সালের জুন মাস থেকে ব্যবহারকারীরা কমেন্টে ‘Like’ সংযুক্ত করা সুবিধা পায়।

আরও পড়ুন :  মহিলাদের পিরিয়ডসের আগে ও পরে Vaccine নেওয়া নিরাপদ কী? জানাল কেন্দ্ৰ

কিন্তু ফেসবুক ব্যবহারকারীদের চাহিদা এখানেই থেমে থাকে নি। পছন্দের কনটেন্টগুলোকে ‘Like’ বাটনের দ্বারা স্বাগত জানাতে পারলেও, অপছন্দের কনটেন্টগুলোর জন্য ‘Dislike’ বাটনের দাবি উঠতে থাকে। এ নিয়ে ফেসবুকের সহ প্রতিষ্ঠাতা মার্ক জুকারবার্গকে বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন প্রশ্নেরও সম্মুখীন হতে হয়। তবে তিনি সাফ জানিয়ে দেন ফেসবুক আপাতত ‘Dislike’ বাটন রিলিজের ব্যাপারে কিছু ভাবছে না।

ফেসবুক চেয়েছিল ব্যবহারকারীদের জন্য ব্যতিক্রমধর্মী কিছু নিয়ে আসতে। অবশেষে তারই পরিপ্রেক্ষিতে ২০১৫ সালের অক্টোবরে ফেসবুক পরীক্ষামূলকভাবে স্পেন ও আয়ারল্যান্ডে চালু করে Love, Haha, Wow Sad Angry নামে পাঁচটি নতুন রিয়্যাক্ট বাটন।

২০১৬ সালের ২৪ শে জানুয়ারি ফেসবুক এই বাটনগুলোকে বিশ্বব্যাপী সকল ব্যবহারকারীদের জন্য উন্মুক্ত করে দেয়। যার ফলে ফেসবুকের মোট বাটন সংখ্যা দাঁড়ায় ৬ টি।নতুনভাবে নিয়ে আসা ৫ টি রিয়্যাক্ট বাটন কমেন্টেও সংযুক্ত করার সুবিধা চালু হয় ২০১৭ সালের জুন মাসে।

এরপর কোরোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে গোটা বিশ্ব যখন হিমশিম খাচ্ছে, তখন মানুষ মানুষের প্রতি সহমর্মিতা প্রকাশের লক্ষে বিভিন্ন সামাজিক কর্মকান্ড ও সহযোগিতা করে যাচ্ছে। এই সহমর্মিতা প্রকাশের অংশ হিসেবেই ফেসবুক তার ব্যবহারকারীদের জন্য কেয়ার রিঅ্যাকশন অপসনটি চালু করেছে ২০২০ সালে। এই ইমোজি দেখলে মনে হবে, যেন কেউ মনে মনে হাসছে এবং একটি হার্ট তথা হৃদয়কে ধারণ করে আছে।

ফেসবুক কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে সংকটের সময়ে পরিবার এবং বন্ধুদের সঙ্গে আরও ঘনিষ্ঠ হওয়ার অনুভূতি দেবে এই নতুন ফিচার।নতুন Care Reaction বাটনটি নিয়ে ফেসুবকের মোট reaction বাটনের সংখ্যা দাঁড়াল সাত। সোশ্যাল সাইটটিতে বর্তমানে like, love, sad angry haha wow reaction বাটন রয়েছে। এই ৭ টি রিয়্যাকশন বাটন এর পাশাপাশি এখন অতিরিক্ত একটি বাটন যোগ করেছে ফেসবুক।সেটা হল জুতার রিয়্যাক্ট।

Related Articles

Back to top button