ভাইরাল

Tiger Optical Illusion: এই ছবিতে দুটি বাঘ রয়েছে! দ্বিতীয়টিকে খুঁজে পেতে ৯৯% মানুষের কালঘাম ছুটেছে, আপনি খুঁজে পেয়েছেন কি?

Tiger Optical Illusion: সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় ‘অপটিক্যাল ইলিউশন’ The Hidden Tiger দারুণ জনপ্রিয়তা পেয়েছে।মাঝে মধ্যেই নিত্য নতুন অপটিক্যাল ইলিউশন নিয়ে আসে এগুলির সৃষ্টিকাররা।যা নিয়ে প্রবল উন্মাদনাও হয় নেটদুনিয়ায়।আসলে ছবির ধাঁধা নিয়ে সময় কাটাতে অনেকেই ভালোবাসেন। নতুন নতুন এমন ছবির ধাঁধা বা অপটিক্যাল ইলিউশনের খোঁজ চালাতেও দেখা যায় উৎসাহী ব্যক্তিদের। একটি ধাঁধা নিয়ে ঘণ্টার পর ঘণ্টা সময় যে কীভাবে বেরিয়ে যায় তা অনেকেই বুঝে উঠতে পারেন না।

মস্তিষ্ক ও দৃষ্টির সর্বোত্তম ব্যবহার করেও অনেক সময় সেই ধাঁধার উত্তর পাওয়া সম্ভব হয় না। আবার অনেকেই সহজেই খুঁজে নেন সেই উত্তর। অনেক ইলিউশান মজার, আবার অনেক ইলিউশান নিয়ে মাথা খারাপ হয়ে যায়।সুডোকু বা শব্দ ছক করার নেশার মতই এখন মানুষ এই অপটিক্যাল ইলিউশনের দিকে ঝুঁকছেন।

ইদানিং বাঘের ( “The Hidden Tiger” ) একটি অপটিক্যাল ইলিউশন সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে।এই বাঘের ছবি দেখে নেটপাড়ার লোকজন রীতিমতো ধন্দ্বে পড়ে গিয়েছেন। কেন ধন্দ্বে পড়ার মতো কী এমন রয়েছে সেই ছবিতে? আসলে ওই ছবিটিতে একটি বাঘকে দেখা যাচ্ছে। কিন্তু সেখানে লুকিয়ে রয়েছে আরও একটি বাঘ। সেই বাঘটিকেই কেউ খুঁজে বের করতে পারছেন না।আসলে যেমন তেমন ছবি তো নয়, এ হল এক অপটিক্যাল ইলিউশন।

আরও পড়ুন :  শারীরিক প্রতিবন্ধকতা অতিক্রম করে মাধ্যমিকে সফল মহঃ আলম রহমান*, তার প্রাপ্ত নম্বর 625

বেশিরভাগ মানুষই এক নজরে সামনে থাকা প্রথম বাঘটিকে সহজেই দেখছেন। তবে ছবিটিতে দ্বিতীয় বাঘকে খুঁজে বের করতে গিয়ে নাকানি চোবানি অবস্থা সকলের। এর মূল কারণ হল, নেটিজেনরা বাঘের পিছনের দৃশ্যের মধ্যে লুকিয়ে থাকা দ্বিতীয় বাঘ খোঁজার চেষ্টা করছে।বাঘটি কিন্তু চোখের সামনেই রয়েছে।কিন্ত দ্বিতীয় বাঘটিকে খুঁজে পেতে কালঘাম ছুটেছে ৯৯% মানুষের, আপনি খুঁজে পেয়েছেন কি?

এখন এই ছবিতে আপনি যদি সত্যিই অন্য আর একটা বাঘকে খুঁজতে যান, তাহলে বড্ড বোকামি করবেন।কারন প্রথম বাঘটির দিকে ভাল করে তাকান, তার মধ্যেই উত্তর লুকিয়ে রয়েছে।আপনি যদি বাঘের ধড়ের দিকে মনোযোগ সহকারে তাকান তবে আপনি তিনটি শব্দ দেখতে পাবেন।এই বাঘের গায়ের ডোরাকাটা দাগের মধ্যেই ‘দ্য হিডেন টাইগার'(The Hidden Tiger) লেখাটি রয়েছে। ছবিতে বাঘের সামনের পা, শরীর এবং পিছনের পা খুঁটিয়ে দেখলেই যে কেউ ‘দ্বিতীয় বাঘ’ খুঁজে পেয়ে যাবেন।

এই অপটিক্যাল ইলিউশন (Optical Illusion) ছবিটি ব্যাপক ভাইরালও (Viral) হয়েছে।যা নিয়ে দ্বিধাবিভক্ত নেটপাড়ার লোকজন।সত্যি কথা বলতে গেলে কী, এই ছবিটা আসলে একটা ধাঁধা। সচরাচর যে অপটিক্যাল ইলিউশনগুলো দেখতে পান, সেগুলির থেকে অনেকটাই আলাদা। কারণ বাঘ এমন একটা প্রাণী যার লুকিয়ে থাকা কার্যত অসম্ভব। আর যদি ধরেও নেওয়া যায়, সে লুকিয়ে রয়েছে তাহলে তা আপনার চোখকে ফাঁকি দেওয়াটাও খুবই দুষ্কর একটা কাজ। আর সেই কারণেই সঠিক উত্তরটা দিতে পারছেন না কেউ।

অপটিক্যাল ইলিউশন‘ আধুনিক ইন্টারনেট সংস্কৃতির অন্যতম প্রধান ভিত্তি। সোশ্যাল মিডিয়াতে নানান অপটিক্যাল ইলিউশনের ছবি শেয়ার করা হয় এবং তা নিয়ে মাথা খাটিয়ে নাজেহাল হয়ে পড়েন নেটিজেনরা। এই অপটিক্যাল ইলিউশনগুলির জন্য একটি ওয়েবসাইটও রয়েছে।ভিজ্যুয়াল সায়েন্টিস্ট, চক্ষুরোগ বিশেষজ্ঞ, নিউরোলজিস্ট এবং শিল্পীরা মিলেই ইলিউশন কমিউনিটি তৈরি করে।প্রতি বছর সেখানে একটি প্রতিযোগিতারও আয়োজন করা হয়। বছরের সেরা ইলিউশন প্রতিযোগিতা ওয়েবসাইট অনুযায়ী, বিভ্রম এবং উপলব্ধিকে উদযাপন করতেই এই প্রতিযোগিতার আয়োজন।

একটি অলাভ জনক সংস্থা নিউরাল কোরিলেট সোসাইটির উদ্যোগে প্রতিযোগিতাটি করা হয়।যার লক্ষ্য বৈজ্ঞানিক গবেষণাকে ‘উপলব্ধি এবং জ্ঞানের স্নায়ু সম্পর্কিত বিষয়কে’ প্রচার করা। তাদের ওয়েবসাইট অনুযায়ী সংস্থাটি ‘পারসেপশন সায়েন্টিস্ট, চক্ষু বিশেষজ্ঞ, নিউরোলজিস্ট এবং শিল্পীদের সম্প্রদায়কে নিয়ে গঠিত যারা অলীক উপলব্ধির ভিত্তি আবিষ্কার করতে সাহায্য করার জন্য ব্যবহার করেন বিভিন্ন পদ্ধতি’।

Related Articles

Back to top button