নিউজ

উত্তরাখণ্ডের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী তথা কংগ্রেসের মহাসচিব হরিশ রাওয়াত বহুজন সমাজ পার্টির নেত্রী মায়াবতী আর কংগ্রেসের সভাপতি সােনিয়া গান্ধীকে ভারতরত্ন দেওয়ার দাবি তুলেছেন

নিউজ ডেস্কঃ উত্তরাখণ্ডের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী তথা কংগ্রেসের মহাসচিব হরিশ রাওয়াত বহুজন সমাজ পার্টির নেত্রী মায়াবতী আর কংগ্রেসের সভাপতি সােনিয়া গান্ধীকে ভারতরত্ন দেওয়ার দাবি তুলেছেন। হরিশ রাওয়াত নিজের টুইটার অ্যাকাউন্টে এমনি দাবি করেছেন। ভারতীয় সমাজে নারীদের উন্নয়নের স্বার্থে এই দু’জনেরই উল্লেখযােগ্য ভূমিকা রয়েছে বলে দাবি রাওয়াতের।সেই কারণেই এবার তাঁদের অনন্য সেই কাজের স্বীকৃতি স্বরূপ ‘ভারতরত্ন সম্মান দেওয়া উচিত বলে মনে করেন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী হরিশ রাওয়াত।তিনি লিখেছেন আদরণীয় সােনিয়া গান্ধী জি এবং সন্মানিত বােন মায়াবতী জি দুজনেই প্রখর রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব।

Former Chief Minister of Uttarakhand and Congress Secretary General Harish Rawat has demanded that Bharat Ratna be given to Bahujan Samaj Party leader Mayawati and Congress President Sania Gandhi.

সমাজের পিছিয়ে পড়া মানুষের উন্নয়নের স্বার্থে বহুজন সমাজবাদী পার্টির প্রধান সারা জীবন ধরে কাজ করে চলেছেন বলে দাবি রাওয়াতের।একইভাবে দেশে নারীদের উন্নয়নে একাধিক কাজে নজির গড়েছেন সোনিয়া গান্ধী, এই মন্তব্য করে টুইটে এই দুই নেত্রীর প্রশংসা করেছেন রাওয়াত।ভারতীয় মহিলাদের উন্নয়নের দিশা দেখিয়েছেন সােনিয়া গান্ধী, ভারতীয় নারীরা তাঁকে নিয়ে গর্বিত।টানা দশ বছর ইউপির চেয়ারপার্সন ছিলেন সােনিয়া গান্ধী।বিভিন্ন স্তরের মহিলাদের হিতে দুজনে একের পর এক প্রকল্পের সূচনা করেছেন বলেও দাবি করেছেন তিনি।সমাজের প্রতি এই অবদানের কথা মাথায় রেখে তাঁদের দেশের সেরা সম্মানে ভূষিত করা উচিৎ বলে মত রাওয়াতের।

আরও পড়ুন :  মহিলার স্নানের নগ্ন দৃশ্য মোবাইল বন্দি করে ভয় দেখিয়ে চলছিল শারীরিক অত্যাচার, এমনই অভিযোগ প্রতিবেশীর বিরুদ্ধে

রাজনৈতিক মত ও আদর্শ ভিন্ন হতে পারে।কিন্তু বিজেপি এই দুই নেত্রীর অবদান অস্বীকার করতে পারে না, এমনি দাবি করেছেন রাওয়াত।তাই তাঁদের ভারতরত্ন দেওয়ার বিষয়টা কেন্দ্রীয় সরকার ভেবে দেখুক।সােশ্যাল মিডিয়ায় রাওয়াতের এই টুইট নিয়ে শােরগােল পড়ে গিয়েছে। নেটিজেনদের একাংশ রাওয়তের এই দাবির সঙ্গে একেবারেই একমত হতে পারছেন না।কারাের দাবি, অবশ্যই তাঁদের ভারতরত্ন পাওয়া উচিৎ। কেউ কেউ আবার এই প্রস্তাবে তীব্র বিরােধিতা করেছেন। তাঁদের কথায়, দুজনে কেবল নিজের স্বার্থপূরণ করতে কাজ করেছেন। তাঁদের বিরুদ্ধে একাধিক দুর্নীতির অভিযােগ রয়েছে। তাই কখনওই তাঁদের এই সম্মান দেওয়া উচিৎ নয়।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button