টেক গাইড

হ্যাকারের হাত থেকে স্মার্টফোনকে সুরক্ষিত রাখতে খেয়াল রাখুন এই বিষয়গুলি

নিউজ ডেস্কঃ আজকাল প্রায় সকলেই স্মার্টফোন ব্যবহার করেন।কারণ এই স্মার্টফোনে রয়েছে বিভিন্ন ধরনের অত্যাধুনিক সেন্সর।এই স্মার্টফোনআমাদের জীবন অনেক সহজ করে দিয়েছে। কিন্তু এই স্মার্টফোন ব্যবহারের কিছু সমস্যাও রয়েছে। আজকাল ল্যাপটপ ও স্মার্টফোন হ্যাকিংয়ের মাধ্যমে গ্রাহকের ব্যক্তিগত তথ্য হাতিয়ে নেয় হ্যাকাররা।ফলে স্মার্টফোন বা ইন্টারনেট ব্যবহার করার সময়ে যদি সচেতন না থাকা হয়, তবে আমাদের ব্যক্তিগত তথ্যাদির কুঠি সরাসরি হ্যাকারদের হাতে গিয়ে পড়বে। যার ফলাফল স্বরূপ বড়োসড়ো আর্থিক ক্ষতির সম্মুখীন হতে হবে।

তাই হ্যাকারের হাত থেকে নিজের স্মার্টফোনকে সুরক্ষিত রাখতে খেয়াল রাখুন এই বিষয়গুলিঃ-

১)সঠিক সময়ে স্মার্টফোন আপডেট করুনঃ-
প্রয়োজন মতো সময়ে সময়ে নিজের স্মার্টফোন আপডেট করুন। এতে আপনি বাড়তি সুরক্ষা পাবেন এবং আপনার তথ্যও সুরক্ষিত থাকবে। ফোনে পুরোনো ওএস ভার্সন ব্যবহার করার ক্ষেত্রে ব্যবহারকারীর ডেটা ফাঁসের ঝুঁকি অনেকাংশে থেকে যায়।এর ফলে হ্যাকাররা সহজে আপনার ব্যক্তিগত তথ্য চুরি করতে পারবে না।সাইবার আক্রমণ থেকে ফোনকে সুরক্ষিত রাখার জন্য এটিই প্রথম পদক্ষেপ।

আরও পড়ুন :  গাড়ি চালানোর সময় ড্রাইভিং লাইসেন্স রাখার আর কোনও প্রয়োজন নেই

২)সব সময় পাসওয়ার্ড প্রটেকশন অন রাখুনঃ-
স্মার্টফোনটি হ্যাকারদের থেকে বাঁচানোর সবথেকে ভাল উপায় হল ফোনে পাসওয়ার্ড বা পিন দিয়ে রাখা।সেক্ষেত্রে, স্ক্রিন-লক হিসাবে সোয়াইপের পরিবর্তে প্যাটার্ন লক, পাসওয়ার্ড পিন এবং অ্যাল্ফারেটিক্যাল নিউমেরিক পাসওয়ার্ড বেছে নিতে পারেন। তবে এই পাসওয়ার্ড বাছাই করার ক্ষেত্রে সহজ কিন্তু স্বতন্ত্র শব্দ বা নম্বর চয়ন করুন।

৩)APK ফাইল ডাউনলোড করার থেকে বিরত থাকুনঃ-
আপনার ফোনের ডিভাইস সুরক্ষিত রাখতে ভুলেও ডাউনলোড করবেন না APK ফাইল। কারণ, বেশিভাগ APK ফাইল সার্টিফাইড হয় না। ফলে এগুলির মাধ্যমে খুব সহজেই ডিভাইস হ্যাক করা সম্ভব।

৪)বিশ্বস্ত অনলাইন স্টোর গুগল প্লে থেকে অ্যাপ ইনস্টল করুনঃ-
অ্যান্ড্রয়েড ফোনে শুধুমাত্র গুগল প্লে স্টোর থেকেই অ্যাপ ইনস্টল করবেন। অন্য কোন থার্ড পার্টি স্টোর অথবা ওয়েবসাইট থেকে APK ফাইল ডাউনলোড করে অ্যাপ ইনস্টল করবেন না।

৫)যে কোনো অ্যাপ ডাউনলোড করার সময়ে শর্তাবলী পড়ুনঃ-
যেকোনো অ্যাপ বা সফটওয়্যার ডাউনলোডের ক্ষেত্রে শর্তাবলী দেওয়া থাকে। কিন্তু, শর্তাবলীর লম্বা তালিকা দেখে আমরা প্রায় প্রত্যেকেই সেটিকে না পরে Agree বাটনে ক্লিক করে দিই।কিন্তু এই এড়িয়ে যাওয়ার প্রবণতাই আপনার জন্য ক্ষতিকারক হতে পারে।তাই অ্যাপ ডাউনলোড করার সময় সর্বদা শর্তাবলী পড়ে নেওয়া উচিত।

৬)প্রয়োজন ছাড়া বুটুথ, জিপিএস, ওয়াই-ফাই বন্ধ রাখুনঃ-
ফোনের ওয়াই ফাই ও ব্লুটুথ প্রয়োজন না হলে বন্ধ করে রাখা উচিত।কারন প্রায় সময় শোনা যায় যে Android Phone ইউজারের তথ্য ওয়াই ফাই ও ব্লুটুথ এর মাধ্যমে চুরি করা হয়েছে।

৭)পাবলিক WI-FI এড়িয়ে চলুনঃ-
আমরা অনেকেই ক্যাফে বা শপিং মলে গিয়ে সেখানকার ফ্রি WI-FI ব্যবহার করে থাকি।কিন্তু অনেকেই হয়তো জানেন না যে, ফ্রি ইন্টারনেট ব্যবহার করার জন্য আপনার ফোনে থাকা তথ্যাদি হ্যাক হয়ে যেতে পারে।কারণ অনেকেই এই এক নেটওয়ার্ক একসাথে ব্যবহার করছে।তাই পাবলিক ওয়াই-ফাই এড়িয়ে চলা উচিত।

৮)ফোনে অপ্রয়োজনীয় অ্যাপ ডিলিট করুনঃ-
ফোনে এমন অনেক অ্যাপ ইনস্টল করা থাকে যা খুব কম বা কখনই ব্যবহার করা হয় না। ফোনে এমন অনেক অ্যাপ ইনস্টল করা থাকে যা খুব কম বা কখনই ব্যবহার করা হয় না। ফোন থেকে এই অ্যাপগুলি ডিলিট করে ফেলুন।এই অ্যাপ ফোনের অনেকটা জায়গা দখল করে রাখে এবং আপনার ব্যক্তিগত তথ্য পাচার করতেও পারে।তাই ফোন সুরক্ষিত রাখতে এই অ্যাপগুলি ডিলিট করে ফেলুন।

Related Articles

Back to top button