নিউজ

আবারও প্রাকৃতিক দুর্যোগের আশঙ্কা, ঘণ্টায় ৯০-১০০ কিমি বেগে ধেয়ে আসছে ঘূর্ণিঝড় “জাওয়াদ”

নিউজ ডেস্কঃ ফের প্রাকৃতিক দুর্যোগের আশঙ্কা তৈরি হয়েছে, যা নিয়ে আশঙ্কায় আবহাওয়া দপ্তর।ক্রমশই শক্তি বাড়াচ্ছে এই ঘূর্ণঝড়।এই সাইক্লোন জাওয়াদের নামকরণ করেছে সৌদি আরব, যার অর্থ মহান।এই ঘূর্নিঝড় জাওয়াদ নিয়ে দিল্লিতে গুরুত্বপূর্ণ বৈঠক করেছে কেন্দ্রীয় সংকট মোকাবিলা কমিটি। বিভিন্ন রাজ্য প্রশাসনের তরফে এই ঝড়ের ক্ষয়ক্ষতি এড়াতে কী কী ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে, তা নিয়ে ক্যাবিনেট সচিব রাজীব গউবার -নেতৃত্বে এই দিন বৈঠক হয়।

এই কমিটির আলোচনায় কেন্দ্রীয় মৌসম ভবনের ডিরেক্টর -জেনারেল জানান, একটি নিম্নচাপ তৈরি হয়েছে বঙ্গোপসাগরের উপরে।শুক্রবার এটি আরও শক্তিশালী সাইক্লোনের আকার নেবে।শনিবার ৪ ডিসেম্বর আছড়ে পড়বে ওডিশা ও অন্ধ্রপ্রদেশের উপকূলে। ঘণ্টায় ৯০ থেকে ১০০ কিলোমিটার বেগে আছড়ে পড়ার সম্ভাবনা রয়েছে জাওয়াদের।পাশাপাশি বিপুল বৃষ্টি ও সমুদ্রের প্রবল ঢেউয়ের সম্ভাবনা রয়েছে।ওড়িশা ও অন্ধ্র উপকূলে এই প্রাকৃতির দুর্যোগ দেখা দেবে। ঘূর্ণিঝড় মূলত প্রভাব ফেলবে শ্রীকাকুলাম, বিশাখাপত্তনম ও বিজয়নগরমে।পশ্চিমবঙ্গেও এর প্রভাব চোখে পড়বে। কলকাতা সহ গোটা দক্ষিণবঙ্গ জুড়েই প্রবল দুর্যোগের পূর্বাভাস দিয়েছে আবহাওয়া দফতর।

আরও পড়ুন :  ফের আকাশ ছোঁয়া আলুর দাম কমাতে উদ‍্যোগ নিলো কেন্দ্রীয় সরকার

অন্ধ্রপ্রদেশ, ওড়িশা, পশ্চিমবঙ্গ ও আন্দামান নিকোবর দ্বীপপুঞ্জের মুখ্যসচিব ও উচ্চপদস্থ আধিকারিকেরা এই কমিটির বৈঠকে হাজির হয়েছিলেন।যে রাজ্যগুলিতে ক্ষয় ক্ষতির সম্ভাবনা রয়েছে, সেখানে আপাতত ৩২টি দল পাঠিয়েছে জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনী। এমনকি প্রস্তুত রাখা হচ্ছে নৌবাহিনীকেও।পাশাপাশি মৎস্যজীবীরা যাতে এই সময়ে কোনও মতেই সমুদ্রে না যান, সে বিষয়েও সতর্ক করে দেওয়া হয়েছে কেন্দ্রের তরফে।কিছু কিছু জেলায় হলুদ ও কমলা সতর্কতাও জারি করা হয়েছে।

আরও পড়ুন :  ২০২৩ সাল থেকে মেয়েদের আইপিএল শুরু করতে চায় বিসিসিআই

Related Articles

Back to top button