নিউজ

নির্দিষ্ট সময়ে ভ্যাকসিন না নিলে বেতন হারানোর পাশাপাশি চাকরিও হারাতে পারে এই কর্মচারীরা

If the vaccine is not given at the specified time

নিউজ দেস্কঃ আবারও বিশ্বজুড়ে করোনা সংক্রমণের দাপট শুরু হয়েছে।এর পাশাপাশি করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রনের সংখ্যাও দ্রুত বৃদ্ধি পাচ্ছে।আর এই পরিস্থিতিতে করোনা টিকাকরণের নীতি নিয়ে আরও কঠোর হল গুগল সংস্থা (Google)।একটি মেমো জারি করে সংস্থাটি জানিয়ে দিয়েছে, কোভিড সংক্রমণ এড়াতে উপযুক্ত পদক্ষেপ অনুসরণ না করলে কর্মচারীদের ওপর কোনো ধরনের সহনশীলতা দেখাবে না কোম্পানি।গুগল কর্মচারীদের সতর্কবার্তা দিয়ে জানিয়েছে, যারা এখনো পর্যন্ত কোভিড ভ্যাকসিন নেয়নি এবং টিকাকরণের সঠিক নিয়ম মানছেন না, তাদের বেতন কেটে নেওয়া হবে, এমনকি আগামিদিনে তাদের চাকরিও হারাতে হতে পারে।

এই সংস্থাটি তাদের কর্মচারীদের ভ্যাকসিন নেওয়ার জন্য ৩ ডিসেম্বর পর্যন্ত সময় দিয়েছিল।এমনকি কর্মীদের ৩ ডিসেম্বরের মধ্যে তাদের টিকা গ্রহণ সংক্রান্ত তথ্য আপলোড করতে হবে। আর যদি কোনো কর্মী চিকিৎসা বা ধর্মীয় কারণে টিকা গ্রহণ করতে না চান, সেক্ষেত্রে তাকে আগে আবেদন করতে হবে।যদি নির্ধারিত সময়ের মধ্যে এর ব্যতিক্রম ঘটে, তখন ওই কর্মীদের সঙ্গে প্রাতিষ্ঠানিক যোগাযোগ শুরু করবে গুগল। পাশাপাশি যাদের টিকা গ্রহণ না করার অনুরোধ অনুমোদিত হবে না, তাদের সঙ্গেও যোগাযোগ করা হবে।

আরও পড়ুন :  প্রয়াত হলেন বর্ষীয়ান অভিনেতা মনু মুখোপাধ্যায়

সংস্থাটি তাদের মেমোতে আরো জানিয়েছে,আগামী ১৮ জানুয়ারির মধ্যে যারা সংস্থার টিকাকরণের নিয়ম অনুসরণ করবেন না,তাদেরকে ৩০ দিনের জন্য বেতনসহ ছুটিতে পাঠানো হবে। তারপর ছয় মাস পর্যন্ত বেতন ছাড়া ব্যক্তিগত ছুটিতে রাখা হবে এবং সবশেষে চাকরিচ্যুত করা হবে।করোনা সংক্রমণ এড়াতে গুগল তাদের এই পলিসি কখনো অস্বীকার করবে না বলে স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছে।

কোম্পানির স্পোক পার্সন, লোরালি এরিকসন সংবাদমাধ্যম ‘দ্য ভার্জ’ কে জানান,আমরা যদি আগেই এই ভ্যাকসিনেশন নিয়ম চালু করতাম, তাহলে খুব সহজে ও সুরক্ষিত ভাবে আমরা আমাদের সার্ভিস চালিয়ে যেতে পারতাম।তবে যারা ইতিমধ্যেই ভ্যাকসিন নিয়েছেন তাদের সব রকমভাবে সুরক্ষা প্রদান করতে এবং সাহায্য করতে আমরা বদ্ধপরিকর। তাই আমাদের এই ভ্যাকসিন পলিসি কড়াভাবে বলবৎ থাকবে, এর কোনো নড়চড় হবে না।নতুন বছরের জানুয়ারি মাস থেকেই গুগলের কর্মীদের কাজে ফেরার কথা থাকলেও, নতুন করে ওমিক্রন ভ্যারিয়েন্ট ছড়িয়ে পড়ায় এবং সংস্থার টিকাকরণ নীতি নিয়ে বহু কর্মীর দ্বিধা থাকায়, তারা কাজে ফিরতে অস্বীকার করেন। সেই কারণেই আপাতত কর্মীদের বাড়ি থেকেই কাজ করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

Related Articles

Back to top button