লাইফস্টাইল

গোলাপী রঙের ২ টাকার এই নোট থাকলে আপনিও হতে পারেন লাখপতি, কীভাবে জানুন

অনেকেরই শখ বা হবি থাকে পুরনো কয়েন বা নোট সংগ্রহ করে রাখা। এই পুরনো কয়েন বা নোট কিন্তু বদলে দিতে পারে আপনার জীবন জানেন কি?এই পুরনো নোটের জন্য আপনি রাতারাতি লাখপতি হয়ে যেতে পারেন। এমন কিছু বিশেষ বিশেষ নোট বা কয়েন রয়েছে যার বদলে আপনি আয় করতে পারবেন লক্ষ লক্ষ টাকা। কি অবাক হচ্ছেন তো! অবাক হওয়ার কিছু নেই এটি একদম সত্যি ঘটনা।

ব্রিটিশ আমল বা মুঘল আমল থেকেই যদি কারো কাছে বিশেষ ধরনের কোনো পয়সা থাকে তাহলে তার ভাগ্য একেবারে পাল্টে যেতে পারে। দুর্লভ পয়সা এবং পুরনো নোট সব সময়ই মানুষের কাছে অত্যন্ত আকর্ষণীয় বিষয় হয়ে থেকেছে। এই সমস্যার পুরনো নোট বিক্রি করা যায় প্রায় কোটি কোটি টাকায়। কিছু কিছু এমন নোট থাকে যেগুলির গুরুত্ব অনেক বেশি, তাই সেগুলো বিক্রি করলে আপনি হয়ে উঠতে পারেন কোটিপতি।

আরও পড়ুন :  দুর্গাপুজোর পাঁচদিনে ভুলেও করবেন না এই সমস্ত কাজ গুলি

pink Rs-2 Note

বর্তমানে পুরনো নোট এবং কয়েন বিশ্ব বাজারে চড়া দামে বিক্রি হয়। অনেকেই আছেন নেশার বশে পুরনো কয়েন বা নোট বছরের পর বছর ধরে সংগ্রহ করে রাখেন ( Old Note and Coin Sale )। ভবিষ্যতে এগুলি বিক্রিও করে থাকেন। আপনার কাছে যদি পুরনো কয়েন বা নোট থাকে তাহলে আপনি রাতারাতি পেয়ে যেতে পারেন লাখ টাকা। পুরনো কয়েন বা কিছু নির্দিষ্ট সালের ইউনিক কয়েন যদি আপনার কাছে থাকে তবে আপনি এই টাকা পেতে পারেন।

আপনার কাছে যদি পুরনো দুই টাকার গোলাপি নোট থাকে তবে আপনি তার বদলে পেয়ে যাবেন ভালো অঙ্কের টাকা। তার সাথে আপনার সেই নোটে যদি 786 সংখ্যাটি থাকে এবং প্রাক্তন রিজার্ভ ব্যাংক গভর্নর মনমোহন সিংয়ের স্বাক্ষর থাকে। তবে সেই নোটের বদলে আপনি প্রায় 5 লক্ষ টাকা পর্যন্ত পেতে পারেন। আর শুধুমাত্র যদি 786 নম্বরটি থাকে, তবে নোটটি বিক্রি করে আপনি প্রায় 15 হাজার টাকা আয় করতে পারবেন।কি ভাবছেন কীভাবে পাবেন এই টাকা।কিভাবে পুরোনো নোট বা কয়েন বিক্রি করবেন জানুন।

পুরনো নোট বা কয়েন কেনা বেচার জন্য কয়েকটি অনলাইন ওয়েবসাইট রয়েছে সেগুলি হল- ebay.com. quikr.com. coinbazzar.com প্রভৃতি। তবে আজ আপনাদের বলব কিভাবে এই ওয়েবসাইটগুলিতে আপনারা আপনাদের পুরনো নোট বা কয়েন বিক্রি করতে পারবেন।

বিক্রি করবেন কিভাবে?

১. যদি আপনার কাছে পুরনো নোট থাকে এবং আপনি সেটিকে বিক্রি করতে চান তাহলে প্রথমে ইবে অথবা ওয়েবসাইটে চলে যান।

২. তারপরে সেখানে হোমপেজে ক্লিক করে রেজিস্ট্রেশন করে ফেলুন।

৩. নিজেকে সেলার বা বিক্রেতা হিসেবে রেজিস্টার করবেন এবং তারপর শুরু করবেন নিজের প্রডাক্ট লিস্ট করা।

৪. এরপর সেই বিশেষ নোটের ছবি তুলে ওয়েবসাইটে আপলোড করতে হবে। সঠিকভাবে এই নোটের ছবি আপলোড করবেন।

৫. এরপর ইচ্ছুক ব্যক্তিরা আপনার বিজ্ঞাপন দেখে আপনার সঙ্গে যোগাযোগ করবেন এবং আপনার সঙ্গে ডিল ফাইনাল করবেন।

এই কয়েন বা নোট আন্তর্জাতিক বাজারে অনেক দামে বিক্রি হয়। আপনার কাছে যদি এমন কয়েন বা নোট থেকে থাকে, তবে আর দেরি না করে আজই এই ওয়েবসাইটগুলিতে গিয়ে রেজিস্টার করুন। এরপর আপনার পুরনো কয়েন বা নোট বদলে রাতারাতি লাখপতি হয়ে যান।

Related Articles

Back to top button