নিউজ

অবিশ্বাস্য ঘটনা, আইভিএফ পদ্ধতিতে ২৭ বছরের পুরনো ভ্রূণ থেকে জন্মাল ফুটফুটে সন্তান! কিন্তু কিভাবে সম্ভব?

অবিশ্বাস্য ঘটনা, আইভিএফ পদ্ধতিতে ২৭ বছরের পুরনো ভ্রূণ থেকে জন্মাল ফুটফুটে সন্তান! কিন্তু কিভাবে সম্ভব

টিনা গিবসন এবং তার স্বামীর দাম্পত্য জীবন বেশ সুখের। বিয়ে হয়েছে বেশ কয়েক বছর আগে,তবে সন্তান হচ্ছিল না।তাই সন্তানের বাবা-মা হওয়ার আশা ছেড়েই দিয়েছিলেন দম্পতি। কিন্তু আশাহত দম্পতির জীবনেই ঘটল অবিশ্বাস্য এক ঘটনা।সন্তান না হওয়ায় বাধ্য হয়ে তারা চিকিৎসকের কাছে যান। নানা ধরনের পরীক্ষা নিরীক্ষার পর চিকিৎসক তাদের আইভিএফ পদ্ধতিতে সন্তানের বাবা-মা হওয়ার পরামর্শ দেন।শুক্রাণু কিংবা ডিম্বানু দানের কথা শুনেছিলেন ওই দম্পতি।তবে ভ্রূণ যে সংরক্ষণ করা যায়, তা জানতেন না তারা।তাই তারা চিকিৎসকের ওপর ভরসা রাখেন।

আইভিএফ পদ্ধতি হল বহু বছর ধরে সংরক্ষিত ভ্রূণ গর্ভে প্রতিস্থাপন করা হয়।আইভিএফ পদ্ধতির মাধ্যমে ডিম্বাণু এবং শুক্রাণুর মিলন ঘটানো হয়,তারপর তা জরায়ুতে প্রতিস্থাপন করা হয়। সারা বিশ্বেই তা প্রতিস্থাপন করা হয়।২৯ বছর বয়সি টিনা এখন সেই ভ্রূণ থেকে জন্ম দিয়েছেন শিশুকন্যার। হিমশীতল তাপমাত্রায় থাকা সেই ভ্রূণের বয়স কমপক্ষে ২৭ বছর।তবে একজন নয়, এভাবেই পরপর দু’টি সন্তানের মা হয়েছেন টিনা। তার প্রথম শিশুকন্যাটি যে ভ্রূণ থেকে জন্ম নিয়েছে সেটি ২৫ বছরের পুরনো।১৯৯২ সালে অক্টোবরে এই দু’টি ভ্রূণ সংরক্ষণ করা হয়েছিল বলে ন্যাশনাল এমব্রায়ো ডোনেশন সেন্টার থেকে জানানো হয়েছে।এই দু’টি ভ্রূণই দত্তক নেন টিনা এবং তার স্বামী।

আরও পড়ুন :  প্রয়াত এস পি বালসুব্রহ্মণ্যম, সঙ্গীতজগতে শোকের ছায়া

২০১৭ সালে ২৫ বছরের পুরনো ভ্রূণ থেকে একটি কন্যাসন্তান জন্ম নেয়। তার বয়স এখন প্রায় ৩ বছর। পরে ২৭ বছরের পুরনো ভ্রূণ থেকে জন্ম নেয় আরেকটি কন্যা সন্তান,তার বয়স ২ মাস।টিনা জানান, একসময় সন্তানের বাবা-মা হওয়ার আশা প্রায় ছেড়েই দিয়েছিলেন তারা দু’জনে। ফ্রোজেন ভ্রূণের মাধ্যমে সন্তান জন্ম নেওয়ায় বেজায় খুশি তারা। আপাতত দুই মেয়েকে নিয়েই হাসিখুশি জীবন ওই দম্পতির। আইভিএফ পদ্ধতিতে সন্তানের বাবা-মা হতে পেরে অত্যন্ত খুশি ওই দম্পতি।হিমশীতল তাপমাত্রায় রেখে দেওয়া ২৭ এবং ২৫ বছরের পুরনো দু’টি ভ্রূণ থেকেই জন্ম নিল ফুটফুটে দুই কন্যাসন্তান।

Related Articles

Back to top button