নিউজ

Indian Railways Sealdah: ভারতীয় রেলের বড় উদ্যোগ!শিয়ালদহ শাখায় ১০০ কিমি বেগে ছুটবে লোকাল, দিঘা পর্যন্ত ট্রেন চলবে

Indian Railways Sealdah: আমরা সবাই কমবেশি ঘুরতে পছন্দ করি। ঘুরতে ভালবাসে না এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া হয়ত দুষ্কর ব্যাপার। ঘুরতে গিয়ে প্রাকৃতিক সৌন্দর্য উপভোগ করার মজাই আলাদা। দূরে কোথাও ঘুরতে গেলে প্রাকৃতিক সৌন্দর্য উপভোগ করার জন্য ট্রেন যাত্রাকেই অধিকাংশ মানুষ বেছে নেন। কারন ট্রেনে ঘুরতে গেলে প্রকৃতির অসাধারণ রূপটিকে অনায়াসেই উপভোগ করা যায়।

তাই ট্রেনের আরামদায়ক যাত্রার সঙ্গে প্রকৃতির অজানা রূপকে দেখার সুযোগটা কেউ কখনওই মিস করতে চায় না।ট্রেনে ঘুরতে যাওয়ার মজাটাই আলাদা। তাই কোথাও ঘুরতে যাওয়ার জন্য বেশিরভাগ মানুষ ট্রেনকেই বেছে নেন। ভারতে যাতায়াতের মাধ্যম হিসেবে ট্রেন হল অন্যতম লাইফ লাইন। গোটা দেশজুড়ে ভারতের রেল পরিষেবা ছড়িয়ে রয়েছে। কাছাকাছি যাওয়ার জন্য লোকাল ট্রেন পরিষেবা রয়েছে। আর দেশের এক প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্তে যাওয়ার জন্য এক্সপ্রেস ট্রেন পরিষেবা রয়েছে।

ভারতীয় রেল বিশ্বের বৃহত্তম ও ব্যস্ততম রেল পরিবহন ব্যবস্থাগুলির অন্যতম। প্রায় ১৫০ কোটি জনসংখ্যার দেশে অধিকাংশ মানুষেরই যাতায়াতের ভরসা এই রেল। অফিস যাওয়া থেকে শুরু করে দূর-দূরান্তে ভিন রাজ্যে যাওয়া, অল্প খরচে গন্তব্যে পৌঁছনোর একমাত্র নির্ভরযোগ্য পরিবহন ব্যবস্থা হল ভারতীয় রেল। আর ভারতীয় রেল সব সময় তাদের যাত্রীদের ভালো পরিষেবা দেওয়ার চেষ্টা করে।

আরও পড়ুন :  ২৯ অক্টোবর থেকে শুরু Flipkart Big Diwali Sale, জেনে নিন অফারগুলি!

ট্রেনে দিনে লক্ষ লক্ষ যাত্রী যাতায়াত করেন। যাত্রীদের তাদের গন্তব্যে পৌঁছে দেয় রেল কর্তৃপক্ষ। যাত্রীদের সুবিধার জন্য মাঝে মধ্যেই ভারতীয় রেল নতুন নতুন নিয়ম চালু করেন। আর এবার ভারতীয় রেলকে (Indian Railways) নয়া রূপে সাজাচ্ছে সরকার। এবার শিয়ালদহ (Sealdah) ডিভিশনের সমস্ত শাখায় ট্রেনের গতি বাড়তে চলেছে।

ইতিমধ্যেই ট্রেনের গতি বাড়ানোর জন্য দ্রুত শেষ করা হয়েছে লাইন থেকে শুরু করে সিগন্যালের উন্নয়ন। এরপর শুধু কমিশনার অফ রেলওয়ে সেফটির সবুজ সংকেত পাওয়া বাকি। শিয়ালদহ ডিভিশনে আগে ৮০ থেকে ৯০ কিমি প্রতি ঘন্টা বেগে যে ট্রেন গুলো চলত,এবার সেগুলির গতিবেগ বাড়িয়ে ১০০ কিমি প্রতি ঘন্টা করে দেওয়া হয়েছে।

রেলের এই পদক্ষেপ নিয়ে শিয়ালদহের ডিআরএম এস পি সিং বলেন ‘গতি বাড়লে সময় সাশ্রয় যেমন হবে, তেমনই ট্রেন চলাচলের মাঝে লাইন ফাঁকা থাকবে। ওই সময় মালগাড়ি চালানো হবে, প্রয়োজনে বাড়ানো হবে যাত্রীবাহী ট্রেনের সংখ্যা’।নিত্য যাত্রীদের জন্য অবশ্যই এটি একটি দারুণ সুখবর।

কোন কোন ট্রেনের গতি বাড়ানো হবে :-

  • বারুইপুর—নামখানা
  • বারুইপুর—লক্ষ্মীকান্তপুর
  • বারুইপুর—মথুরাপুর
  • মথুরাপুর—লক্ষ্মীকান্তপুর
  • লক্ষ্মীকান্তপুর—নামখানা।

এই লাইনগুলোতে যে ট্রেন চলতো সেখানে এলেজ গড় গতিবেগ ছিল ৮০ কিমি প্রতিঘন্টা, এবার সেই বেগ বাড়িয়ে ১০০ কিমি প্রতি ঘন্টা করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রেল। উপরোক্ত ট্রেনগুলো ছাড়াও বনগাঁ শাখার রানাঘাট -বনগাঁ রুটে এবং দমদম বনগাঁ রুটে যেখানে বর্তমানে ট্রেনের গতি ঘণ্টায় ৯০ কিলোমিটার, সেখানে এবার বাড়িয়ে ১০০ কিমি করবে রেল।

তাছাড়াও রেল শিয়ালদহ নৈহাটি শাখায় গতি বাড়াবে।নৈহাটি—রানাঘাট, রানাঘাট – গেদে আর রানাঘাট—কৃষ্ণনগর শাখাতে। প্রতিটি ক্ষেত্রেই ১০০ কিমি বেগে ট্রেন ছোটাবে ভারতীয় রেল। এছাড়াও শিয়ালদহ ডিভিশনের বারাসত — হাসনাবাদ, বারুইপাড়া—ডায়মন্ডহারবার, কৃষ্ণনগর— লালগোলা, বালিগঞ্জ কড়েয়া শাখাতে ইতিমধ্যেই ট্রেনের গতি বাড়ানো হয়েছে। এর আগে এই শাখাতেও মাত্র ৮০ কিমি বেগে ট্রেন ছুটছিল, এখন তা বেড়ে ১০০ কিমি প্রতিঘন্টা হয়েছে।

রেলের নতুন টাইম টেবিল সেপ্টেম্বরে প্রকাশিত হবে। সেখানে দূরপাল্লার তিনটি ট্রেন চালাবে রেল। সপ্তাহের শনি ও রবিবার শিয়ালদহ দিঘা ট্রেন চালাবার কথা রেলের। আর বাকি দুই ট্রেন হল শিয়ালদহ—কামাখ্যা আর শিয়ালদহ— বিশাখাপত্তনম।অত্যন্ত দেরী করার জন্য এক সময় ভারতীয় রেলের বদনাম ছিল। কিন্তু বর্তমানে সেই বদনাম কিছুটা হলেও মুছেছে।কারন ট্রেনের গতি অনেকটা বাড়িয়েছে রেল।

বর্তমানে শিয়ালদহ ডিভিশনে দৈনিক ২০ লক্ষ যাত্রীর আনাগোনা হয়। আর সেই কারণে ট্রেনের মধ্যে প্রচণ্ড ভিড় থাকে। এবার এই পরিস্থিতিতে বদল আনতেই ট্রেনের গতি বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে রেল। গতি বাড়ালে মাঝখানে আরো ট্রেন চালাতে পারবে রেল কর্তৃপক্ষ।

Related Articles

Back to top button