Home নিউজ ফের উত্তর প্রদেশে ৬ বছরের শিশুকে গণধর্ষণ ও খুন

ফের উত্তর প্রদেশে ৬ বছরের শিশুকে গণধর্ষণ ও খুন

নিউজ ডেস্কঃ ছয় বছরের শিশুকন্যাকে প্রথমে ধর্ষণ। তারপর করে খুন। এরপরের ঘটনা আরো লোমহর্ষক।কারন ধর্ষকরা শূধুমাত্র খুন করেই থেমে থাকেনি।এরপর তারা কালাজাদু করবার উদ্দেশ্যে শিশুটির শরীর কেটে তা থেকে ফুসফুস ও হৃদযন্ত্র বের করে নিলো ধর্ষকরা।নৃশংস এই ঘটনাটি ঘটেছে উত্তরপ্রদেশের কানপুরের ভদ্রস গ্রামে।রবিবার একটি জঙ্গলে উদ্ধার হয় ঐ শিশুটির মৃতদেহ।

এই ঘটনার তদন্ত করতে নেমে পুলিশ জানতে পারে এক মহিলার বাচ্চা না হওয়াতে তাকে কালাজাদু করার দরকার ছিলো যাতে বাচ্চা হয়।আর ঐ কাজে দরকার ছিলো ফুসফুস ও হৃদপিণ্ড।যার কারনেই এই নৃশংস ঘটনা।আর এই ঘটনায় মূল অভিযুক্ত মহিলাটির স্বামী।অভিযুক্তদের গ্রেফতার করেছে পুলিশ।জানা গিয়েছে ঐ দুই অভিযুক্তদের নাম অঙ্কুল কুরিল(২০)আরেক জন বিরান(৩১)।পুলিশি জেরার মুখে অভিযুক্ত দুজনই জানিয়েছেন যে পরশুরাম নামের এক ব‍্যাক্তির পরামর্শেই তারা এই নৃশংস ঘটনাটি ঘটিয়েছে। অভিযুক্ত পরশুরামকে গ্রেফতার করা হলে সে প্রথমে অস্বীকার করে ঘটনার কথা।

আরও পড়ুন :  আগামী সপ্তাহে মধ্যেই ভারতে আসছে আরও ৩ রাফাল যুদ্ধবিমান

এরপর ঘটনার কথা স্বীকার করে জানায় ১৯৯৯ সালে বিয়ে হলেও এখনো অবধি কোন সন্তান সন্ততির মুখ দেখতে পায়নি ঐ দম্পতি।আর ঠিক এই কারনেই পরশুরাম তার স্ত্রীকে কালাজাদু করতে চেয়েছিলেন।অন‍্যদিকে স্ত্রী এই কথা জানা সত‍্যেও কাউকে না জানানোর ফলে আটক করা হয়েছে পরশুরামের স্ত্রীকেও।কালাজাদু করতে প্রয়োজন পরেছিল একটি শিশুর ফুসফুস।আর এই জন্যই পরশুরাম কাজে লাগায় নিজের ভাইপো অঙ্কুল ও তার বন্ধু বিরানকে।

আরও পড়ুন :  "তপসিয়ায় ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড পরিদর্শন করে ক্ষতিপূরণ ঘোষণা" মূখ‍্যমন্ত্রী
আরও পড়ুন :  "তপসিয়ায় ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড পরিদর্শন করে ক্ষতিপূরণ ঘোষণা" মূখ‍্যমন্ত্রী

পুলিশ জানিয়েছে শনিবার দিওয়ালীর আগের দিন বাজি কিনতে বেরিয়েছিলো ঐ শিশুকন্যা।তখনই তাকে অপহরন করে জঙ্গলে নিয়ে গিয়ে এই নির্মম ঘটনা ঘটায় অভিযুক্তরা।এরপর পরিবারের লোকজন সেদিনেই খোঁজ করেও শিশুটিকে পায়নি।কিন্তু পরদিন গ্রামবাসীদের চোখে পড়ে ঐ ডেডবডি এরপর পুলিশকে খবর দেওয়া হলে ঘটনাস্থলে পৌঁছায় পুলিশ।অপরাধীদের ভারতীয় দন্ডবিধির একাধিক ধারায় মামলা করেছে পুলিশ বাদ যায়নি পকসো আইনও। কালাজাদুর কারনেই যে খুন তার জন্য ফরেনসিক বিশেষজ্ঞ ও স্নিফার ডগকেও কাজে লাগানো হয়েছে।অভিযুক্তদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চেয়েছেন যোগী সরকার ও ঐ শিশুটির পরিবারকে পাঁচলক্ষ টাকা অনুদানের কথাও বলেছেন তিনি।

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন

এই মুহূর্তে

- Advertisment -
- Advertisment -

ভাইরাল