Home দেশ এ বছর বাঙালিরই জয়জয়কার দেশের সর্বোচ্চ বিজ্ঞান সম্মানে

এ বছর বাঙালিরই জয়জয়কার দেশের সর্বোচ্চ বিজ্ঞান সম্মানে

শনিবার দিল্লির বিজ্ঞান ভবনে কাউন্সিল অব সায়েন্টিফিক অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিয়াল রিসার্চ(সিএসআইআর) এর ৭৯ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী অনুষ্ঠানে দেশের সর্বোচ্চ বিজ্ঞান সম্মান “শান্তিস্বরুপ ভাটনগর পুরুস্কার” এর তালিকা প্রকাশিত হলো।

তবে সেখানে নাম এর তালিকা করার পর পরই দেখা গেল বাঙালী বিজ্ঞানীদের জয়জয়কার। এদিন প্রকাশিত হয় ৭টি বিভাগের ১৪ জন পুরুস্কার জয়ীর নাম। যাতে দেখা যায় ১৪ জনের মধ্যে ৬জনই বাঙালী। কেন্দ্রীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রকের অধীনে থাকা সিএসআইআর এর ডিরেক্টর জেনারেল শেখর মান্ডে নাম ঘোষণা করার পর বলেন,”ভারতে এই পুরস্কারকেই বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ পুরুস্কার হিসেবে দেওয়া হয়।

“পুরুস্কারজয়ী ৬জনের মধ্যে ২ জন পশ্চিমবঙ্গের ও একজন জন্মসূত্রে ওড়িশার হলেও কর্ম ও বিবাহসূত্রে কলকাতার বাসিন্দা। বরাহনগরের “ইন্ডিয়ান স্টাটিসটিক্যাল ইনস্টিটিউট (ISI)”এর অধ্যাপক রজতশূভ্র হাজরা গনিতে পুরুস্কার জয়ী হয়েছেন। “ইন্ডিয়ান অ্যাসোসিয়েশন ফর দ্য কাল্টিভেশন অফ সায়েন্সেস(IACS)”এর অধ্যাপক জ্যোতির্ময়ী দাস রসায়ন এ পুরুস্কৃত হয়েছেন।

আরও পড়ুন :  ফের অনলাইন প্রতারণার শিকার এক বিজ্ঞানী, অ্যাকাউন্ট থেকে উধাও লক্ষাধিক টাকা

আর ভূবিজ্ঞানে পুরুস্কৃত হয়েছেন “খরগপুর ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউট অফ টেকনোলজি(IIT)”এর অধ্যাপক অভিজিৎ মুখোপাধ্যায়। এছাড়াও “হায়াদ্রাবাদ বিশ্ববিদ্যালয়ের” অধ্যাপক বিশ্বজিৎ ধাড়া রয়েছেন পদার্থবিজ্ঞান এ। পাশাপাশি পদার্থবিজ্ঞান এ আরেকজন এর নাম কিংশুক দাশগুপ্ত যিনি মুম্বাইয়ের “ভাবা অ্যাটমিক রিসার্চ”সেন্টারের অধ্যাপক।

জীববিজ্ঞানে পুরুস্কৃত হয়েছেন দুজন।যার মধ্যে অন্যতম একজন হলেন শুভদীপ চট্টোপাধ্যায় তিনি হায়াদ্রাবাদ “সেন্টার ফর ডিএনএ ফিঙ্গারপ্রিন্টিং অ্যান্ড ডায়াগনস্টিকস(CDFD)এর অধ্যাপক। ভূবিজ্ঞানে অভিজিতের সঙ্গে পুরুস্কার ভাগাভাগি করে নেওয়া আর একজন হলেন সূর্যেন্দু দত্ত। সূর্যেন্দু মুম্বাইয়ের “ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউট অফ টেকনোলজি (IIT)এর অধ্যাপক।

আরও পড়ুন :  অবশেষে বিজয়াতেই বিদায় নিতে চলেছে বর্ষা
আরও পড়ুন :  ক্রোয়েশিয়াতে ঘটে গেলো ভয়াবহ ভূমিকম্প, ভূমিকম্পের মাত্রা ছিলো৬.৪, দেখুন ভিডিও

অধ্যাপক সুরোজিৎ ধারা:হায়াদ্রাবাদ এর অধ্যাপক সুরোজিৎ ধাড়ার বাড়ি তারকেশ্বরের দেউলপাড়ার একটি গ্রামে। পড়াশোনা করেছেন বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়।তারপর বেঙ্গালুরুর রমন রিসার্চ ইন্সটিটিউট এ পিএইচডি।তারপর বিদেশে পোস্ট ডক্টরাল। এরপর তিনি তার গবেষনার ক্ষেত্র হয়ে ওঠে ‘লিকুইড ক্রিস্টাল’ বা ‘তরল কেলাস’।

অধ্যাপক জ্যোতির্ময়ী দাস:জ্যোতির্ময়ী দাসের জন্ম ওড়িশার জগৎসিংহপুরে কিন্ত মার্কিন মুলুকে পোস্ট ডক্টরাল ডিগ্রির পর চাকরিতে যোগ দেন পশ্চিমবঙ্গে। মোহনপুর এর “ইন্ডিয়ান ইন্সটিটিউট অফ সায়েন্স এডুকেশন অ্যান্ড রিসার্চ। “এ।বিবাহসূত্রেও তিনি কোলকাতার বাসিন্দা। তিনি তার কাজ প্রসঙ্গে জানিয়েছেন তার কাজ হলো ডিএনএ ও আরএনএ এর অনুসন্ধান করা।

অধ্যাপক অভিজিৎ মুখোপাধ্যায়:অভিজিৎ কালিঘাটের ছেলে। সাউথ পয়েন্ট স্কুলে পড়াশোনা শেষে কোলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় পড়াশোনা করেন। এরপর পিএইচডি ও পোস্ট ডক্টরাল এর জন্য পাড়ি দেন আমেরিকা। সেখানে পড়াশোনা শেষ করে কানাডায় কয়েক বছর চাকরি করে। দেশে ফিরে আইআইটি তে কাজ শুরু করেন ১০বছর আগে।

আরও পড়ুন :  Bird flu-র সময় চিকেন, ডিম খাওয়ার নিরাপত্তা নিয়ে স্পষ্টভাবে জানিয়ে দিল WHO

তিনি বলেন,”আমার কাজ মূলত ভূ গর্ভস্থ জল নিয়ে।আর্সেনিক তার মধ্যে অন্যতম।” অধ্যাপক রজতশুভ্র হাজরা:গনিতে পুরুস্কার জয়ী এই অধ্যাপক প্রথমে সেন্ট জেভিয়ার্স কলেজ। তারপর কোলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় পড়াশুনা করেন। আইএসআইতে পিএইচডি এর পর পোস্ট ডক্টরাল করেন আমেরিকায়। তিনি তার কাজ প্রসঙ্গে বলেছেন,”আমি গানিতিক বিভিন্ন মডেল বানিয়েছি প্রোবাবিলিটি নিয়ে।যা আগামী দিনে স্যোশ্যাল মিডিয়ার মতো বিভিন্ন ধরনের নেটওয়ার্ক আরো ভালো ভাবে বোঝাতে কাজে লাগবে।”

আরও পড়ুন :  বীরভূমের বােলপুরে রাস্তার দোকানে খুন্তি হাতে তারকারি রাঁধলেন মমতা ব্যানার্জি

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

এই মুহূর্তে

- Advertisment -
- Advertisment -

ভাইরাল