Advertisement
নিউজ

North 24 Parganas News : Deganga School অবাক কান্ড!স্কুলের গেটে ঝুলছে ‘কন্ডোম এই নোংরামিতে ক্ষুব্ধ হয়ে বিক্ষোভ অভিভাবকদের

কন্ডোম শব্দটি শুনলেই লজ্জায় লজ্জাবতী হয়ে যায় অনেকে।এমনকি দোকানে কিনতে গিয়ে অনেকে বলেন দাদা, কক কক... (কন্ডোম) দেবেন? আবার অনেকে আঙুল দেখিয়েই বলে দাদা ওটা দিন।

North 24 Parganas News: কন্ডোম শব্দটি শুনলেই লজ্জায় লজ্জাবতী হয়ে যায় অনেকে।এমনকি দোকানে কিনতে গিয়ে অনেকে বলেন দাদা, কক কক… (কন্ডোম) দেবেন? আবার অনেকে আঙুল দেখিয়েই বলে দাদা ওটা দিন।এই শব্দটা শুনলেই ভ্রু যেন কুচকে যায়।অথচ সেই কন্ডোমই ঝুলছে স্কুলের গেটে,তাও আবার সেটি ব্যবহৃত কন্ডোম।অবাক হচ্ছেন তো, অবাক হওয়ার কিছু নেই। সম্প্রতি এমনই এক ঘটনা ঘটেছে। এই ঘটনা প্রকাশ্যে আসতেই এলাকায় চাঞ্চল্য ছড়ায়।

Advertisement

এই ঘটনাটি ঘটেছে উত্তর ২৪ পরগনার দেগঙ্গার কলসুর গ্রাম পঞ্চায়েতের মগরা জুনিয়ার এফপি স্কুলে। প্রায় প্রতিদিনই কেউ না কেউ স্কুলের গেটে (School Gate) নোংরা ঝুলিয়ে দিয়ে চলে যায় বলে অভিযোগ। এমনকী বর্জ্য পদার্থও ছুড়ে ফেলা হয় স্কুলের বারান্দার মধ্যে। অভিযোগ মল থেকে শুরু করে কোনও কিছুই বাদ যায়নি। সব ধরনের বজ্রই (Garbage) মিলেছে স্কুলের মধ্যে থেকে।

Advertisement

তবে বৃহস্পতিবার সব শালীনতার সীমাই ছাড়িয়ে গিয়েছে! স্কুলের গেটে তালার পাশে একটি ব্যবহৃত কন্ডোম ঝোলানো অবস্থায় দেখতে পান অভিভাবকরা এই ঘটনা ঘিরে তুমুল হইচই শুরু হয় দেগঙ্গার কলসুর গ্রাম পঞ্চায়েতের মগরা জুনিয়ার এফপি স্কুলে। এদিন স্কুলের অভিভাবকরা সাদা কাগজে ‘নোংরামি মুক্ত বিদ্যালয় চাই লিখে স্থানীয় রাস্তা অবরোধে নামেন।

আরও পড়ুন :  Financial New Rules: একাধিক নিয়ম বদলে গেল ১ আগস্ট থেকে,এরফলে আপনার পকেটে কতটা প্রভাব পড়বে দেখে নিন
Advertisement

অভিভাবকদের অভিযোগ প্রায় প্রতিদিনই স্কুলের গেটে নোংরা ঝুলিয়ে দেওয়া হচ্ছে। আর বৃহস্পতিবার তাঁরা দেখেন স্কুলের গেটে তালার পাশে ঝুলছে একটি কন্ডোম। এই ঘটনা দেখার পরই ক্ষোভে ফেটে পড়েন তাঁরা। স্কুলের সামেনই তাঁরা বিক্ষোভ দেখাচ্ছিলেন। এদিকে তার মধ্যেই আবার শুরু হয়ে যায় বৃষ্টি। ফলে সেই সময় স্কুলের গেট খুলে পড়ুয়াদের ক্লাসে পাঠানো হয়। যদিও ততক্ষণে এই খবর ছড়িয়ে পড়ে গোটা এলাকায়। আর তারপরেই অভিভাবকরা রাস্তা অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখান।

Advertisement

এ বিষয়ে এক অভিভাবক নমিতা দাস বলেন স্কুলে যা নোংরামি হল তার জন্য আমরা অবরোধ করতে বাধ্যই হয়েছি। গিয়ে দৃশ্যটা দেখে আসুন, ওখানেই তো রয়েছে। এটা স্কুল, পবিত্র জায়গা, এখানে শিক্ষা দেওয়া হয়। নোংরামির পাঠ দিতে আসে না কেউ। আমাদেরই লজ্জা লাগছে। ভাবতে হবে এমন স্কুলে সন্তানদের পাঠাব কিনা। আমরা চাই স্কুলে একটা গেট বসুক। পাঁচিলটা আরও উঁচু করা হোক, যাতে বাইরের লোকজন ঢুকতে না পারে।

এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে এলাকায়। (North 24 Parganas News) খবর দেওয়া হয় কলসুর পুলিশ ফাঁড়িতে। পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে বিক্ষোভরত অভিভাবকদের সঙ্গে কথা বলে। তারপরই পুলিশের আশ্বাসে আন্দোলন তুলে নেন অভিভাবকরা। স্কুল কর্তৃপক্ষের দাবি, রাতের অন্ধকারে এই ধরনের ঘটনা ঘটানো হয়। সেক্ষেত্রে স্থানীয় প্রশাসন, এলাকার লোকজন এগিয়ে না এলে কোনওভাবেই তা আটকানো সম্ভব নয়।

এই ঘটনা প্রসঙ্গে স্কুলের প্রধান শিক্ষক পলাশ ঘোষ বলেন, যেভাবে নোংরা আবর্জনা স্কুলের গেটে টাঙিয়ে রেখেছে এই পরিস্থিতিতে কোনও ভাবেই ক্লাস করা যায় না। অভিভাবকরা ঠিকই বলেছেন।বৃষ্টি আসার ফলে নোংরা সরিয়ে স্কুলের গেট খুলে ছাত্রছাত্রীদেরকে ক্লাস রুমে ঢোকানো হয়েছিল। (North 24 Parganas News) স্কুলের পক্ষ থেকে পুলিশের কাছে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। সেই অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button