টেকনোলজি

OMG ! গুগল প্লে স্টোরে খুঁজে পাওয়া গেছে দশেরও বেশি ভুয়ো অ্যাপ, এক্ষুনি ফোন থেকে ডিলিট না করলে ফাঁস হয়ে যেতে পারে সব গোপন তথ্য

OMG গুগল প্লে স্টোরে খুঁজে পাওয়া গেছে দশেরও বেশি ভুয়ো অ্যাপ

নিউজ ডেস্কঃ বর্তমান যুগে আমরা সকলেই নিজেদের প্রয়োজন মতো একগুচ্ছ অ্যাপও ইনস্টল করি। তবে জানেন কি স্মার্ট ফোনের বিভিন্ন অ্যাপের মধ্যেই লুকিয়ে রয়েছে বিপদ।গুগল প্লে স্টোরে খুঁজে পাওয়া গেল দশেরও বেশি ভুয়ো অ্যাপ। তাই যে কোনো অ্যাপ ডাউনলোড করার ক্ষেত্রে এখন আরও সতর্ক হতে হবে।Play Store- র বেশ কয়েকটি অ্যাপে আরও একবার দেখা মিলল বিপজ্জনক ম্যালওয়্যারের।ইতিমধ্যেই এই অ্যাপগুলিকে প্রায় 3 লক্ষ বার ডাউনলোড করা হয়েছে।এই ভয়াবহ ম্যালওয়্যার ইউজারদের অজান্তেই তাদের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টের সমস্ত ডিটেলস চুরি করে নিতে পারে।এই লক্ষ লক্ষ অ্যান্ড্রয়েড ইউজারদের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট যে কোনও সময় খালি হয়ে যেতে পারে।

এই বিপজ্জনক অ্যাপে রয়েছে অ্যানাস্টা, এলিয়েন, হাইড্রা এরম্যাক নামক ম্যালওয়্যার। যার মধ্যে একটি ইউজারদের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট এবং পাসওয়ার্ডের বিবরণ ক্যাপচার করতে পারে এবং তথ্য সরাসরি হ্যাকারদের কাছে পাঠাতে পারে।Threat Fabric-এর গবেষকরা দেখেছেন যে OR কোড রিডার, ডকুমেন্ট স্ক্যানার, ফিটনেস মনিটর এবং ক্রিপ্টোকারেন্সি ট্রেডিং প্ল্যাটফর্মের মতো সাধারণ অ্যাপ সবসময় সঠিক নয়। হ্যাকাররা এই অ্যাপগুলির হার্মফুল ভার্সন তৈরি করতে পেরেছে যা দেখতে বাস্তব অ্যাপের মতো।

আরও পড়ুন :  সুখবর! সূর্যের আলোতেই চার্জ হবে স্মার্টফোন, এই নতুন ডিভাইসটি কিনে নিন

এই বিপদজনক অ্যাপগুলির মধ্যে কয়েকটি হলঃ-

1. Two Factor Authenticator
2. Protection Guard
3. QR Creator Scanner
4. Master Scanner Live
5. QR Scanner 2021
6. PDF Document Scanner-Scan to PDF
7. PDF Document Scanner
8. QR Scanner
9. Crypto Tracker
10. Gym and Fitness Trainer

দেখে নেওয়া যাক এরা কিভাবে মানুষদের শিকার করেঃ-

ANATSA স্ক্রিনের সমস্ত এক্টিভিটি রেকর্ড করতে পারেঃ-

চারটি ম্যালওয়্যারের মধ্যে সবচেয়ে সাধারণটির নাম অ্যানাটসা (Anatsa)। গবেষকরা বলেছেন যেটি 200,000 এরও বেশি অ্যান্ড্রয়েড ব্যবহারকারী ডাউনলোড করেছেন।এরা ইউজারদের অনলাইন ব্যাঙ্কিংয়ের পাশাপাশি টু-স্টেপ অথেন্টিকেশনের কোডও চুরি করে নেয়। সেইসঙ্গে ব্যবহারকারীর ফোনে কি টাইপ করা হচ্ছে তার স্ক্রিনশটও নিতে পারে এই ম্যালওয়্যারগুলি।হ্যাকাররা ফোনে ব্যবহারকারীর প্রবেশ করা সমস্ত তথ্য যেমন পাসওয়ার্ডগুলি রেকর্ড করতে ট্রোজানে একটি কীলগার ইনস্টল করেছে।

ক্রিপ্টোকারেন্সি অ্যাপেও ম্যালওয়্যারঃ-

Anatsa জানুয়ারী থেকে সক্রিয় রয়েছে, কিউআর কোড স্ক্যানার এবং পিডিএফ ডকুমেন্ট স্ক্যানারের মতো সৌম্য অ্যাপে প্রবেশ করেছে যা লোকেরা বেশিরভাগ ডাউনলোড করে।ক্রিপ্টোকারেন্সির ক্রমগত জনপ্রিয়তা থেকে কিছু উদাহরণও কিছু ক্রিপ্টোকারেন্সি অ্যাপে পাওয়া গিয়েছে। অ্যান্ড্রয়েড ব্যবহারকারীদের ফিশিং ইমেলের মাধ্যমে এই অ্যাপগুলিতে পাঠানো হয়।ভালো রেটিং থাকার ফলেই একাধিক ইউজার নানা কাজে এই অ্যাপগুলিকে ডাউনলোড করে থাকে।

তবে এই প্রথম নয়, এর আগেও প্লে-স্টোরের একাধিক অ্যাপে সন্ধান মিলেছে ট্রোজান ম্যালওয়্যারের।Threat Fabric দাবি করেছে যে তারা Google কে এইসব অ্যাপস সম্পর্কে অবহিত করেছে।এই ধরণের বিপজ্জনক অ্যাপকে বারবার ব্যান করা হলেও, নানারকম রূপ নিয়ে নতুন অ্যাপের আড়ালে এরা ফিরে আসছে এবং ক্ষতি করছে ইউজারদের।তাই যখন তখন যে কোনও অ্যাপ ইনস্টল করবেন না।আর আপনার ফোনেও যদি এই অ্যাপগুলি থাকে তাহলে দেরি না করে এক্ষুনি ডিলিট করুন।

Related Articles

Back to top button