Advertisement
নিউজ

Partha Chatterjee Arpita Mukherjee luxury resort apa: বাড়ির নাম ‘অপা’ ৭ কাঠা জমিতে অর্পিতার বিলাসবহুল ভবনের দলিলে পার্থর সই মিলল!

শ্যামবাটি মৌজায় থাকা এই জমির প্লট নম্বর ৩৫৪। খতিয়ান নম্বর ১৯২৯। মোট জায়গার পরিমাণ ০.১৭ একর (প্রায় ৭. কাঠা)।এই জমিটি অর্পিতা মুখোপাধ্যায়ের নামে রয়েছে।

Partha Chatterjee Arpita Mukherjee luxury resort apa: শিক্ষক নিয়োগ দুর্নীতিকাণ্ডে অর্পিতা মুখোপাধ্যায়ের টালিগঞ্জ ও বেলঘরিয়ার ফ্ল্যাট থেকে উদ্ধার হওয়া টাকার পাহাড় দেখে চক্ষু চড়কগাছ সাধারণ মানুষের।দুই ফ্ল্যাট মিলিয়ে কার্যত কুবেরের ভাণ্ডার মিলেছে।রাতভর টাকা গুনতে গুনতে রীতিমত হিমশিম খেয়ে গেছেন ব্যাঙ্ককর্মীরা।পার্থ ও অর্পিতার বাড়ি থেকে উদ্ধার হয়েছে একাধিক দলিল।

Advertisement

পার্থ ঘনিষ্ঠ অর্পিতা মুখোপাধ্যায়ের ফ্ল্যাট থেকে প্রায় ৫০ কোটি টাকা উদ্ধারের পর এবার বিভিন্ন জায়গায় তাঁদের জমি ও বাড়ি নিয়ে শোরগোল পড়েছে।অর্পিতা মুখোপাধ্যায় আর পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের নামে, বেনামি নানা জমির সন্ধান মিলতে শুরু করেছে ইতিমধ্যেই।বোলপুর শান্তিনিকেতন এলাকায়ও জমি রয়েছে।

Advertisement

বোলপুরে ‘অপা’ নামের একটি বাড়ি রয়েছে (Partha Chatterjee Arpita Mukherjee luxury resort apa)।এই বাড়িটি অর্পিতার নামেই। সেই জমির বিশদ তথ্য হাতে এসেছে। শ্যামবাটি মৌজায় থাকা এই জমির প্লট নম্বর ৩৫৪। খতিয়ান নম্বর ১৯২৯। মোট জায়গার পরিমাণ ০.১৭ একর (প্রায় ৭. কাঠা)।এই জমিটি অর্পিতা মুখোপাধ্যায়ের নামে রয়েছে। তাঁর মায়ের নাম লেখা রয়েছে মিনতি মুখোপাধ্যায়। জমির দলিলে পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের স্বাক্ষর করা রয়েছে, তাঁর ছবিও আছে।

আরও পড়ুন :  ধেয়ে আসছে বছরের প্রথম ঘূর্ণিঝড় অশনি,তবে কতটা প্রভাব পড়বে বাংলায়
Advertisement

২০১২ সালে এই জমিটি হস্তান্তর হয়েছিল। যদিও বাড়ির কেয়ারটেকার পার্থ চট্টোপাধ্যায় বা অর্পিতাকে কোনওদিনই এখানে দেখেননি বলেই জানিয়েছেন।বোলপুরের শান্তিনিকেতনেই পার্থ-অর্পিতার আরেকটি বিলাস বহুল বাড়ি রয়েছে (Partha Chatterjee Arpita Mukherjee luxury resort apa) । সেই বাড়ির নাম ‘তিতলি’। স্থানীয় বাসিন্দাদের অনেকের দাবি, দু’টি বাড়িই মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের বলেই জানতেন তাঁরা।বাসিন্দারা এটাও জানিয়েছে এই বাড়িতে অনেক গাড়ির আসা যাওয়া করত।

Advertisement

একটি বাড়ির পরিচারিকা ঝর্ণা দাস জানিয়েছেন মাস কয়েক আগেই তিনি এখানে কাজে ঢুকেছেন। তবে এই বাড়ির মালিক কে তা তিনি জানেন না। বেতন নগদে দেওয়া হয়। বাড়ির মালিক কলকাতার কেউ একজন এবং তাঁর নাম তিতলি বলেই জানেন তিনি।তাছাড়া আর কিছুই জানেন না ওই পরিচারিকা।

এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ইডি)-এর কর্তাদের দাবি এখনও পর্যন্ত পার্থ চট্টোপাধ্যায় ও অর্পিতা মুখোপাধ্যায়ের বাড়ি থেকে উদ্ধার হওয়া সম্পত্তির দলিল (জমি-বাড়ি-ফ্ল্যাট)-এর বাজার দর একশো কোটি টাকা ছাড়িয়ে গিয়েছে। ইডি সূত্রের দাবি এর বাইরেও অন্যান্য সূত্রে পার্থ এবং অর্পিতার আত্মীয়দের নামে সম্পত্তির হদিস পাওয়া গিয়েছে। (Partha Chatterjee Arpita Mukherjee luxury resort apa) সেই সব সম্পত্তির মূল্যায়ন করা হচ্ছে।

Related Articles

Back to top button