নিউজ

২০২৪ সাল পর্যন্ত কোভিডের হাত থেকে রেহাই পাবে না বিশ্ববাশী ! কোডিড-১৯-কে সঙ্গে নিয়েই জীবন কাটাতে হবে সাধারণ মানুষকে

covid 19 pandemic end

কোভিডের হাত থেকে ২০২৪ সাল পর্যন্ত রেহাই পাবে না বিশ্ববাশী।সাধারণ মানুষকে আগামী দুবছর কোভিড-১৯ (Covid-19)-কে সঙ্গে নিয়েই জীবন কাটাতে হবে।ফাইজার (Pfizer) সংস্থার প্রধান বৈজ্ঞানিক আধিকারিক মাইকেল ডলস্টেইন এমন ভবিষ্যৎবাণী শোনাল।তাঁর এই ভবিষ্যৎবাণীতে চিকিৎসকমহলে আলোড়ন পড়ে গিয়েছে।একাধিক দেশে আগামী দু’বছর পর্যন্ত চলবে এই অতিমারির প্রভাব।তবে কিছু দেশগুলিতে এই কোভিড রোগটি মহামারীতে পরিণত হবে।সংক্রমণ বৃদ্ধি পেলেও তা নিয়ন্ত্রণ করার ক্ষমতা প্রশাসনের হাতে থাকবে।

মাইকেল ডলস্টেইনের মতে প্রতিটি দেশ কীভাবে কত দ্রুত সকলকে টিকা দিতে পারছে, এবং এই টিকার প্রভাবে মানুষের শরীরে কতটা ইমিউনিটি তৈরি হচ্ছে, তার উপর কোভিড-১৯ এর ক্ষমতা নির্ভর করবে।ভ্যাকসিনেশনের হার কম হলে বিশ্বে আরও বেশি সময় ধরে কোভিড থেকে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।পাশাপাশি ডেল্টা, ওমিক্রনের মতো নয়া ভ্যারিয়ান্টের জেরে অতিমারির আরও দীর্ঘমেয়াদি হতে পারে বলেও তাঁর আশঙ্কা।২০২২ সালের প্রথমের দিকেই ভারতে করোনার তৃতীয় ঢেউ আছড়ে পড়ার সম্ভাবনা রয়েছে।তবে বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন দ্বিতীয় ঢেউয়ের থেকে কম ভয়াবহ হবে তৃতীয় ঢেউ।

আরও পড়ুন :  স্বামী-স্ত্রীর সম্পর্কের মাঝে অশান্তির কারণ মোবাইল ফোন, তাই স্ত্রীকে কুপিয়ে খুন করল তাঁর স্বামী

ফাইজার জার্মানির BioNTech SE সংস্থার সঙ্গে যৌথ উদ্যোগে ভ্যাকসিন আবিষ্কার করেছে।তবে ফাইজারের পরিকল্পনা রয়েছে ২০২২ সালের মধ্যে আরও চার বিলিয়ন ডোজ প্রস্তুত করার।এই সংস্থাটি Paxlovid নামে একটি অ্যান্টিভাইরাল ড্রাগ প্রস্তুত করেছে।কোভিড আক্রান্তদের এই ড্রাগ দেওয়ার জেরে হাসপাতালে ভর্তি চিকিৎসাধীনের সংখ্যা যেমন কমেছে, তেমনি ৯০ শতাংশ রোগীর মৃত্যু হারও কমেছে ক্লিনিকাল ট্রায়ালে।এই মুহূর্তে ফাইজার টিকা গ্রহণ করতে পারেন পাঁচ বছরের ঊর্ধ্বে সমস্ত মানুষ।সংস্থাটি এরপর ২ থেকে ৪ বছর পর্যন্ত শিশুদের জন্যও কম ইমিউনিটি যুক্ত অর্থাৎ তিন মাইক্রোগ্রাম করে ভ্যাকসিনের ডোজ নিয়ে তৈরির প্রস্তুতি নিচ্ছে।

অন্যদিকে European Medicines Agency (EMA) Omicron চিকিৎসায় জন্য GSK And Vir Biotechnology-র
Sotrovimab এবং Sobi-র Kineret নামে দুই ওষুধকে ব্যবহার করার কথা বলেছেন।Sotrovimab হল একটি অ্যান্টিবডি ড্রাগ এবং Kineret ব্যবহৃত হয় মূলত আর্থারাইটিসের ওষুধ হিসেবে।যে সমস্ত প্রাপ্তবয়স্ক করোনা আক্রান্তরা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন এবং অক্সিজেন সাপোর্টের প্রয়োজন হচ্ছে না, তাঁদের জন্য Sotrovimab ওষুধটি ব্যবহার করার ছাড়পত্র দিয়েছে ইউরোপীয় মেডিসিন এজেন্সি।এমনকি রোগীদের সংক্রমণ গুরুতর হলেও এটি দেওয়া যেতে পারে ।

Related Articles

Back to top button