নিউজ

SSC Chairman Resigns : SSC নিয়োগ বিতর্কের মধ্যেই আচমকা ইস্তফা SSC চেয়ারম্যানের

SSC Chairman Resigns: এসএসসি নিয়োগ নিয়ে বিতর্ক চরমে। নিয়োগ বিতর্কের মধ্যেই পদত্যাগ করলেন এসএসসি চেয়ারম্যান সিদ্ধার্থ মজুমদার। দায়িত্ব নেওয়ার চার মাসের মধ্যেই হঠাৎ ইস্তফা দিলেন সিদ্ধার্থ মজুমদার।ইতিমধ্যেই সিদ্ধার্থ মজুমদারের ইস্তফাপত্র গ্রহণ করে নিয়েছে শিক্ষা দফতর।রাজ্য সরকার কোনো এক আইএএস অফিসারকে এই চেয়ারম্যান পদে বসাতে চায়।

চলতি বছরের জানুয়ারিতে কমিশনের চেয়ারম্যান পদে বসেছিলেন। সেইসময় নিয়োগ সংক্রান্ত একাধিক মামলায় ধাক্কা খাওয়ার পর ১৩ জানুয়ারি স্বচ্ছ ভাবমূর্তির অধ্যাপক সিদ্ধার্থ মজুমদারকে কমিশনের চেয়ারম্যান হিসেবে নিয়োগ করেছিল রাজ্য সরকার।নানা দুর্নীতির অভিযোগে বিদ্ধ স্কুল সার্ভিস কমিশন।এর মাঝেই আজ চেয়ারম্যানের পদত্যাগ এই দুর্নীতির অভিযোগের কারণেই বলে মনে করা হচ্ছে। তবে কী কারণে চার মাসের মধ্যে ইস্তফা দিলেন অধ্যাপক মজুমদার, তা স্পষ্ট নয়।

CBI হাজিরা নিয়ে কলকাতা হাইকোর্টের সিঙ্গল বেঞ্চের রায়কে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চে আবেদন করেছিলেন প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী। কিন্তু তাঁর আবেদন খারিজ করে দেয় বিচারপতি হরিশ ট্যান্ডনের নেতৃত্বাধীন ডিভিশন বেঞ্চ।অবশেষে SSC মামলায় CBI জিজ্ঞাসাবাদের মুখে পার্থ চট্টোপাধ্যায়। নির্ধারিত সময়ের ২০ মিনিট আগেই নিজাম প্যালেসে পৌঁছে যান পার্থ চট্টোপাধ্যায়।

আরও পড়ুন :  জেনেনিন আগামী বছরের মহালয়া থেকে পুজোর আগমণের দিনক্ষণ

নিজাম প্যালেসে চলছে জোড়া জিজ্ঞাসাবাদ প্রক্রিয়া। একদিকে SSC কমিটির প্রাক্তন উপদেষ্টা এবং বাকি সদস্যদের জিজ্ঞাসাবাদ করছেন CBI আধিকারিকরা। অন্যদিকে নিজাম প্যালেসের ১৩ তলায় পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে কথা বলবেন তদন্তকারী আধিকারিকরা। গোটা নিজাম প্যালেস চত্বরকে এই মুহূর্তে নিরাপত্তার চাদরে মুড়ে ফেলা হয়েছে।

বহালসিঙ্গল বেঞ্চের নির্দেশ:-

এসএসসির নিয়োগ-দুর্নীতি মামলায় সিঙ্গল বেঞ্চের নির্দেশ বহাল রাখে হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চ। নির্দিষ্ট তথ্যপ্রমাণ থাকলে আদালত সিবিআই তদন্তের নির্দেশ দিতেই পারে। ন্যায় বিচারের ক্ষেত্রে সিঙ্গল বেঞ্চ সীমা অতিক্রম করেছে বলে মনে করে না ডিভিশন বেঞ্চ। প্রভাবিত সব পক্ষের বক্তব্য সব সময় শুনতে হবে এমন কোনও বিধিবদ্ধ নিয়ম বা আইন নেই। এখনও পর্যন্ত যে তথ্যপ্রমাণ এসেছে তার কোনওটাই এসএসসি-র পক্ষে যায়নি।আর্থিক দুর্নীতি খুঁজে বার করার ক্ষেত্রে সিঙ্গল বেঞ্চের নির্দেশে কোনও ভুল নেই।

বিতর্কিত ভাবে নিযুক্ত হওয়া প্রার্থীদের বেতন বন্ধ বা ফেরত দিতে বলে ভুল করেনি সিঙ্গল বেঞ্চ। এসএসসি-র নিয়োগ-দুর্নীতি মামলার রায়ে পর্যবেক্ষণ ডিভিশন বেঞ্চের। সিঙ্গল বেঞ্চেই মামলা ফেরত পাঠাল ডিভিশন বেঞ্চ। এসএসসি-র গ্রুপ সি, গ্রুপ ডি কর্মী ও নবম-দশমে সহকারী শিক্ষক নিয়োগের মামলায় বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়ের নির্দেশকে চ্যালেঞ্জ করে ডিভিশন বেঞ্চে মামলা দায়ের হয়।সেই মামলার প্রেক্ষিতেই আজ রায়দান।

একদিকে নিয়োগ ঘিরে বিতর্ক, অন্যদিকে ৬ বছর পর বিপুল নিয়োগের নির্দেশ। দুই বিপরীতধর্মী পরিস্থিতির মুখে দাঁড়িয়ে স্কুল সার্ভিস কমিশন।২০ হাজারেরও বেশি পদে শিক্ষক নিয়োগ করতে চলেছে সরকার। আগে যে নিয়মে নিয়োগ হত তা বদলাবে। এবার প্রথম প্রিলিমিনারি, মেইন এবং ইন্টারভিউয়ের পর মিলবে চাকরি। আগামী মাসে শিক্ষক নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের প্রস্তুতি নিচ্ছে স্কুলশিক্ষা দপ্তরনবম-দশম ও একাদশ-দ্বাদশ এই দুই ধাপের জন্য বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করবে এসএসসি।

কবে থেকে ফর্ম দেওয়া শুরু, তার দাম কত, কবে পরীক্ষা এবং চূড়ান্ত শূন্য পদ কত তা বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হবে।গত ৫ মে শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু জানিয়েছিলেন দ্রুত শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়া শুরু করা হবে। মেধার ভিত্তিতে স্বচ্ছভাবে হবে নিয়োগ।অন্যদিকে ২০১৬ সালের নিয়োগের যে প্যানেল হয়েছিল তার মেয়াদ বেড়েছে। ৬৮৬১ টি নতুন পদ তৈরি হয়েছে। নবম-দশম, একাদশ-দ্বাদশ, শারীরশিক্ষা ও কর্মশিক্ষা মিলিয়ে এই সংখ্যক শিক্ষক আলাদাভাবে নিয়োগ করবে সরকার।

Related Articles

Back to top button