Uncategorized

আজব দেশ যেখানে গ্রাম পাহারা দেয় আস্ত মানুষের শুটকি!

আজব দেশ যেখানে গ্রাম পাহারা দেয় আস্ত মানুষের শুটকি!

আমাদের দেশে হোক বা অন‍্য কোনো দেশে মাছ শুকানোর প্রচলন থাকলেও দ্বীপদেশ পাপুয়া ও নিউগিনির মোরাব গ্রামে প্রচলন রয়েছে অন্য কিছুর।যা দেখলে আপনি অবাক না হয়ে পারবেন না।সারা পৃথিবীতে যেখানে মাছ ও মাংসের শুটকি দেওয়া হয় সেখানে মোরাব গ্রামে দেওয়া হয় আস্ত মানুষের শুটকি!

মোরাব গ্রামে মানুষের শুটকি তৈরী করতে আঙ্গা জনগোষ্ঠীর ভূমিকাই মূখ্য।তবে স্বস্তির ব‍্যাপার হলো এই শুটকি খাওয়া হয়না।আস্ত মানুষের শুটকি গ্রামে ঢোকার পথে সাজিয়ে রাখা হয়।আঙ্গা জনগোষ্ঠীর প্রাচীন প্রচলিত বিশ্বাস এই শুটকি তাদেরকে রক্ষা করবে।গ্রামটিকে পাহারা দেওয়া ছাড়াও সবশেষে শুটকি দিয়ে গ্রামটির শোভা বাড়ানোর একটি চেষ্টা তো আছেই।

আরও পড়ুন :  চালুন জেনে নেই চটপট ভেজিটেবল রোল রেসিপি

মোরাব গ্রামে কেউ মারা গেলে সর্বপ্রথম ঐ মানুষটির দেহ থেকে সমস্ত চর্বি বের করে ফেলা হয়।এরপর শুটকি বানানোর আগে যেসব প্রাথমিক প্রক্রিয়া আছে সমস্তই সম্পন্ন করে একেবারে গ্রামের সামনে বাঁশের তৈরী মঞ্চে ঝুলিয়ে দেওয়া হয়।এরপর মৃতদেহ থেকে বের করে আনা সমস্ত চর্বি ব‍্যবহার করা হয় রান্না-বান্নার কাজে।

যদিও ১৯৭৪ সালে পাপুয়া ও নিউগিনির সরকার মানুষের শুটকি দেওয়া সম্পুর্নভাবে নিষিদ্ধ করে দেন।তবুও সেই নিষেধাজ্ঞাকে বুরো আঙ্গুল দেখিয়ে এখনো এখানে আঙ্গা জনগোষ্ঠীর লোকজন এই প্রথা মেনেই চলছে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button