টেকনোলজি

Telegram Price: Telegram ব্যবহার করতে এবার থেকে খরচ করতে হবে মোটা টাকা ! কত টাকা খসবে জানুন

Telegram Price: টেলিগ্রাম ইনস্ট্যান্ট মেসেজের জন্য বেশ জনপ্রিয় অ্যাপ।বিশ্বের অন্যান্য মেসেজিং অ্যাপকে টেক্কা দিতে একের পর এক ফিচার এনেছে টেলিগ্রাম। ব্যবহারকারীদের কাছেও অল্পদিনেই জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে এই অ্যাপটি। তবে এবার টলিগ্রাম ব্যবহারকারীদের জন্য দুঃসংবাদ।কারন Telegram ব্যবহারকারীদের মোটা টাকা খরচ করতে হবে।

এবার থেকে টেলিগ্রাম ব্যবহার করতে গেলেও দিতে হবে টাকা (Telegram Price)। খরচ হবে মোটা অঙ্ক। ফলে নেটিজেনদের স্বস্তির দিন শেষ। এতদিন ব্যাপারটা কানাঘুষোয় শোনা গেলেও পাভেল দুরভ তাতে সিলমোহর দিলেন।Telegram এর তরফে জানানো হয়েছে এই চ্যাটিং প্ল্যাটফর্মের মাসিক অ্যাক্টিভ ব্যবহারকারীর সংখ্যা 700 মিলিয়নে পৌঁছে গেছে।বলা হয়েছে, “রকেটের গতিতে বৃদ্ধি পাচ্ছে telegram ব্যবহারকারীর সংখ্যা।

Telegram-এ পেইড সাবক্রিপশন চালু করা নিয়ে দীর্ঘদিন ধরেই বিভিন্ন জল্পনা উঠেছিল। যদিও এর সঙ্গে একাধিক স্ক্রিনশট ভাইরাল হয়েছিল Twitter এ। সেখানে বলা হয়েছিল, Telegram সারা জীবনের মতো ফ্রি থাকবে। কিন্তু তারই মাঝে এবার পেইড সাবক্রিপশন চালু করে দেওয়া হলো।এবার সরাসরি সংস্থার প্রতিষ্ঠাতা এবিষয়ে জানিয়ে দিয়েছেন। তিনি একটি ব্লগ পোস্টে জানিয়েছেন, Telegram Premium (Telegram Price) ব্যবহারকারীদের জন্য জন্য এবার পেইড সাবক্রিপশন প্ল্যান চালু করা হবে।

আরও পড়ুন :  Realme সংস্থা ভারতে লঞ্চ করেছে TechLife Watch SZ100 স্মার্টওয়াচ, এর দাম ও স্পেসিফিকেশন কি রয়েছে জানুন

নিজের করা ব্লগ পোস্টে কী লিখেছেন Pavel Durov?

তিনি জানিয়েছেন আমাদের যে ফিচারগুলির চাহিদা সবথেকে বেশি সেই ফিচারগুলি আরও ভালোভাবে ব্যবহার করার জন্য পেইড সাবক্রিপশন প্ল্যান আনা হচ্ছে। পেইড সাবক্রিপশন চালু করার ফলে অতিরিক্ত চ্যাট, হাই মিডিয়া এবং সাধারণ ফাইল আপলোডের সুবিধা পাওয়া যাবে।এছাড়াও অন্যান্য সুবিধা পাওয়া যাবে।

এই পেইড সাবক্রিপশন আনার ভাবনাচিন্তা কেন?

এবিষয়ে ডুরোভ জানিয়েছেন, বিজ্ঞাপনদাতাদের কাছ থেকে নয়, ব্যবহারকারীদের কাছ থেকেই আয় করার ভাবনাচিন্তা নিয়েছে Telegram। আর সে কারণেই এই পেইড সাবক্রিপশন প্ল্যান আনা হচ্ছে।

Telegram পেইড সাবক্রিপশনে খরচ কত হবে?

এই বিষয়টি নিয়ে অনেকেই জানতে আগ্রহী হলেও, Telegram-এর তরফে এখনও এবিষয়ে কিছু জানানো হয়নি। তবে অন্য একটি সংবাদমাধ্যমের তরফে জানানো হয়েছে 5 ডলার থেকে 6 ডলারের মতো খরচ হতে পারে। অর্থাৎ ভারতীয় অঙ্কে যা প্রায় 390 টাকা থেকে 468 টাকার মধ্যে। তবে এটা মাসিক না বছরে খরচ সেবিষয়ে জানানো হয়নি। বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন, এবিষয়ে খুব শীঘ্রই Telegram-এর তরফে খরচের বিষয়টি জানিয়ে দেওয়া হবে। এবং তার সঙ্গে কী কী অতিরিক্ত ফিচার পাওয়া যাবে সেবিষয়েও জানিয়ে দেওয়া হবে ।

এখন প্রশ্ন তাহলে কি পেইড সাবক্রিপশন ছাড়া Telegram ব্যবহার করা যাবে না?

Telegram-এর তরফে এই ধরনের কথা কখনই জানানো বলা হয়নি। পেইড সাবক্রিপশনে শুধুমাত্র কয়েকটি ফিচার অতিরিক্ত দেওয়া হবে। এর বাইরে যাঁরা Telegram ব্যবহারকারী রয়েছেন তাঁরা বর্তমানে যে যে সুবিধা পাচ্ছেন আগামী দিনেও সেই সুবিধা পাবেন।

Related Articles

Back to top button