ভাইরাল

ভয়ানক কাণ্ড, স্ত্রীর শরীরে আছে পুরুষাঙ্গ ! ডিভোর্স চেয়ে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ স্বামী

ভয়ানক কাণ্ড, স্ত্রীর শরীরে আছে পুরুষাঙ্গ ! ডিভোর্স চেয়ে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ স্বামী

নিউজ ডেস্কঃ ফুলশয্যার রাতে স্বামী জানতে পারলেন স্ত্রীর শরীরে রয়েছে ‘পুরুষাঙ্গ’।স্বামী বুঝতে পারলেন তিনি প্রতারিত হয়েছেন।এরপর ওই মহিলার বিরুদ্ধে প্রতারণার মামলা দায়ের করার আবেদন নিয়ে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিলান স্বামী।ওই ব্যক্তির দাবি তাঁর স্ত্রী আসলে নারীই নন। কারণ তাঁর যৌনাঙ্গ পরিপূর্ণ নয়, যোনীর বদলে রয়েছে ছোট্ট শিশুর মতো পুরুষাঙ্গ।

বিয়ের আগে এই কথা লুকানোয় প্রতারণার অভিযোগে তিনি সুপ্রিম কোর্টে বিবাহ বিচ্ছেদের আবেদন জানান।কিন্তু কোনো লাভ হয়নি।এবার শীর্ষ আদালতের তরফে ওই ব্যক্তির অভিযোগের ভিত্তিতে তাঁর স্ত্রীর প্রতিক্রিয়া জানতে চাওয়া হল।বিচারপতি সঞ্জয় কিষাণ কৌল, এম এম সুন্দরেশ জানিয়েছেন, নোটিশ জারি করা হয়েছে আগামী চার সপ্তাহের মধ্যে ওই মহিলাকে জবাব দিতে হবে।

আরও পড়ুন :  দেবর বৌদির অবৈধ সম্পর্কের 'বিয়ে করবো না বৌদিকে', ভাইরাল ভিডিও

২০১৬ সালে বিয়ে হয়েছিল ওই দম্পতির।এরপরেই স্বামী জানতে পারেন স্ত্রীর একটি পুরুষাঙ্গ রয়েছে এবং তিনি পুরুষের সঙ্গে শারীরিক মিলনে অক্ষম।তিনি স্ত্রীকে স্বাস্থ্যপরীক্ষা করাতে নিয়ে যান। চিকিৎসকরা জানান তাঁর স্ত্রী হিজড়া নয়। আবার সন্তান প্রসবের জন্য সক্ষম মহিলাও নয়। এটিকে চিকিৎসা পরিভাষায় ‘ইমপারফোরেট হাইমেন’ বলে।যেখানে যোনিপথ ঢাকা থাকে।চিকিৎসকরা অস্ত্রোপচারের পরামর্শ দিলেও, জানিয়ে দেন পরবর্তী সময়ে তাঁর গর্ভবর্তী হওয়ার সম্ভাবনা নেই।এর পরেই তিনি তাঁর শ্বশুরকেও জানান তাঁর মেয়েকে ফেরত নিয়ে যেতে বলেন।

এর পরই স্ত্রী এবং তাঁর বাবার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করতে জেলা আদালতে যান স্বামী।স্বামীর তরফে একটি ডাক্তারি পরীক্ষার রিপোর্ট জমা করা হয়। যেখানে দাবি করা হয় ওই মহিলার একটি পুরুষাঙ্গ রয়েছে এবং তাঁর যোনিচ্ছদটি অসম্পূর্ণ।এবার চার সপ্তাহের মধ্যে স্ত্রীর জবাব চাইল শীর্ষ আদালত।

Related Articles

Back to top button