অটোকার

দেশের সেরা পাঁচ মাইলেজের বৈদ্যুতিক গাড়ি, একবার চার্জ দিলেই 590 কিমি পর্যন্ত চলবে

বর্তমানে ভারতীয় বাজারে বৈদ্যুতিক গাড়ির (Electric Car) চাহিদা দিন দিন বেড়েই চলেছে।গোটা দেশ ধীরে ধীরে ইলেকট্রিক গাড়ি নিজেদের গ্রহণযোগ্যতা গড়ে তুলছে। পেট্রোল ও ডিজেলের ক্রম বর্ধমান দাম থেকে মুক্তি পেতে চাইলে কিনতে পারেন ইলেকট্রিক গাড়ি। ইলেকট্রিক গাড়িতে ভর্তুকিও দিচ্ছে সরকার। যার কারণে ধীরে ধীরে বৈদ্যুতিক গাড়ির বিক্রি বাড়ছে। অনেক কোম্পানি ভারতে ইলেকট্রিক গাড়ি লঞ্চ করেছে এবং একাধিক কোম্পানি শীঘ্রই লঞ্চ করার প্রস্তুতি নিচ্ছে।

ভারতে বৈদ্যুতিক গাড়ির বাজারে যে প্রসার ঘটছে সে কথা অস্বীকার করার জো নেই।তবে বৈদ্যুতিক যানবাহন কেনার আগে গ্রাহকদের সর্বপ্রথম জিজ্ঞাস্য থাকে এর রেঞ্জ সম্পর্কে।যে গাড়ির যত বেশি রেঞ্জ, সেই গাড়ির চাহিদাও ততোধিক। আর অধিক রেঞ্জের সাথে তুলনা মূলক দাম কম রাখতে পারলে সেই ব্যাটারি চালিত গাড়ির সোনায় সোহাগা।তবে দুঃখের বিষয়, ভারতের সবচেয়ে বেশি রেঞ্জের গাড়িগুলির মধ্যে বিদেশি সংস্থার মডেলই রাজ করছে।

যদিও বৈদ্যুতিক গাড়ির বাজারে বর্তমানে বিক্রিতে শীর্ষস্থানে টাটা নেক্সন ইভি (Tata Nexon EV) রয়েছে। কিন্তু টাটা নেক্সন ইভি রেঞ্জে অনেকটাই পিছিয়ে রয়েছেন।এদেশে উপলব্ধ সেরা পাঁচটি সর্বাধিক রেঞ্জের ব্যাটারি চালিত গাড়ির সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক। উল্লেখ্য এগুলি রিয়েল ওয়ার্ল্ড রেঞ্জ নয় এবং বাস্তবে নানা পরিস্থিতির উপর তার হেরফের হতে পারে।ভারতে পাওয়া ভাল মাইলেজের বৈদ্যুতিক গাড়িগুলি কি দেখুন।

আরও পড়ুন :  একেবারে নতুন কন্ডিশনের Hero HF Delux বাইক কিনুন মাত্র ১৯ হাজার টাকায়, সমস্ত ডিটেইলস দেখে নিন

BMW i4

ভারতে গত মাসে লঞ্চ হয়েছে বিলাস বহুল বৈদ্যুতিক গাড়ি BMW i4 ।এই গাড়িটির রেঞ্জ ৫৯০ কিমি। বর্তমানে এটিই দেশের সর্বাধিক রেঞ্জের ইলেকট্রিক গাড়ি।এক্স-শোরুম এর দাম ৬৯.৯০ লক্ষ টাকা। এতে একটি ৮৩.৯ কিলোওয়াট আওয়ার ব্যাটারি রয়েছে। এর ইলেকট্রিক মোটরটি থেকে ৩৩৫ বিএইচপি শক্তি এবং ৪৩০ এনএম টর্ক উৎপন্ন হয়। ০-১০০ কিমি/ ঘন্টার গতিবেগ মাত্র ৫.৭ সেকেন্ডে তুলতে সক্ষম এই গাড়িটি।

Kia EV6

ভারতে কিয়ার প্রথম ইলেকট্রিক গাড়ি Kia EVG লঞ্চ হয়েছে ২ জুন।এটি দুটি ভেরিয়েন্ট আত্মপ্রকাশ করেছে GT Line RWD ও GT Line AWD। এই মডেল দু’টির দাম যথাক্রমে ৫৯.৯৫ ও ৬৪.৯৫ লক্ষ টাকা।সংস্থা দাবি করেছে সম্পূর্ণ চার্জে গাড়িটির রেঞ্জ ৫২৮ কিমি।৭৭.৪ কিলোওয়াট আওয়ার ব্যাটারি সহ ডুয়াল মোটর ভ্যারিয়েন্টে গাড়িটি কেনা যায়। একটি থেকে ২২৬ বিএইচপি এবং ৩৫০ এনএম টর্ক পাওয়া যায়।অন্যটি থেকে ৩২০ বিএইচপি এবং ৬৫০ এনএম টর্ক উৎপন্ন হয়।

Audi e-tron GT

ভারতে উপলব্ধ Audi-র তৃতীয় e-tron মডেল হল GT। সম্পূর্ণ চার্জে এর রেঞ্জ ৫০০ কিমি।এক্স-শোরুমে গাড়িটির দাম ১.৬৫ কোটি টাকা।এটিও দুটি ইলেকট্রিক মোটরে অফার করা হয়। একটি থেকে ৫২৩ বিএইচপি এবং ৬৩০ এনএম টর্ক ২২৬ পাওয়া যায়। অপরটি থেকে পাওয়া যায় ৬৩৭ বিএইচপি এবং ৮৩০ এনএম টর্ক।

Jaguar I-Pace

Jaguar-এর প্রথম সম্পূর্ণ ইলেকট্রিক মডেল I-Pace উন্মোচিত হয়েছিল ২০১৮-তে।এই গাড়িটি ভারতের বাজারে কেবলমাত্র একটি ব্যাটারির বিকল্পে অফার করা হয়।এর ৯০ কিলোওয়াট আওয়ার ব্যাটারি প্যাক থেকে ৪৭০ কিমি রেঞ্জ পাওয়া যায়। এর ডুয়েল মোটর অল হুইল ড্রাইভ সেটআপ থেকে ৩৯৪ বিএইচপি এবং ৬৯৬ এনএম টর্ক উৎপন্ন হয়।

Audi e-tron SUV/Sportback

এই Audi e-tron SUV/ Sportback-এর রেঞ্জ ৪৮৪ কিমি। এটি ভারতের বাজারে e-tron 50 e-tron 55 এই দুটি মডেলে বেছে নেওয়া যায়। প্রথমটিতে ৭১ কিলোওয়াট আওয়ার ব্যাটারি প্যাক রয়েছে। যা থেকে ৩৭৯ কিমি রেঞ্জ পাওয়া যায়। অপরটিতে উপস্থিত ৯৫ কিলোওয়াট আওয়ার ব্যাটারি, যা থেকে রেঞ্জ পাওয়া যায় ৪৮৪ কিমি।

Related Articles

Back to top button