Advertisement
লাইফস্টাইল

The child is intelligent: আপনার সন্তান বুদ্ধিমান কিনা এই লক্ষণগুলো দেখলেই বুঝতে পারবেন

বুদ্ধিমান সন্তান কারা হতে পারে সে সম্পর্কে বাবা মায়ের স্পষ্ট ধারণা থাকা জরুরি।কারণ আপনার সন্তান যদি জিনিয়াস হয়, তবে ছোটবেলা থেকেই বিভিন্ন ভাবে তার প্রকাশ ঘটবে।

The child is intelligent: নিজের সন্তান যেন বুদ্ধিমান হয় তা সব মা-বাবাই চায়।সকলেই নিজের সন্তানকে বুদ্ধিমান দেখতে চান।বুদ্ধিমান সন্তান কারা হতে পারে সে সম্পর্কে বাবা মায়ের স্পষ্ট ধারণা থাকা জরুরি।কারণ আপনার সন্তান যদি জিনিয়াস হয়, তবে ছোটবেলা থেকেই বিভিন্ন ভাবে তার প্রকাশ ঘটবে।

Advertisement

জানেন কি, শিশুর জন্মের পর থেকেই তার নানা স্বভাব ও অভ্যাসই বলে দিতে পারে সে আদৌ বুদ্ধিমান হবে কিনা।সন্তানের নানা কর্মকান্ডের দিকে একটু খেয়াল করলেই বুঝবেন তার মধ্যে বুদ্ধিমান হয়ে ওঠার কোনও বৈশিষ্ট্য আছে কিনা।তবে সন্তান জিনিয়াস না হলেও মন খারাপ করার কিছু নেই। কারণ সকল শিশুই নিজের মতো করে অসাধারণ (The child is intelligent)।

Advertisement

আপনার সন্তান আর পাঁচজনের থেকে অনেকটাই আলাদা তা কোন কোন লক্ষণ দেখে বুঝবেন জেনে নিন-

১)কথাবার্তা ও আবেগপ্রবণতা

Advertisement

সন্তান যদি গল্প শোনার সময় শব্দ ও বইয়ের প্রতি আকৃষ্ট হয়, ১৪ মাসে বাক্য তৈরি করতে শিখে যায়,তাহলে বুঝতে হবে যে আপনার সন্তানের মধ্যে প্রতিভা রয়েছে।তাহলে বুঝবেন যে আপনার সন্তান বুদ্ধিমান।কিছু কিছু বাচ্চা আবার অভিভাবকদের মৌখিক নির্দেশ সহজে পালন করতে বা বুঝতে পারে। (The child is intelligent) এতে বোঝা যায় তার শেখার ক্ষমতা অন্যদের চেয়ে বেশি সক্রিয়।

Advertisement

বুদ্ধিমান বাচ্চাদের মধ্যে প্রবল আবেগপ্রবণতা থাকে। এরা ইতিবাচক ও নেতিবাচক ধারণা অনুভব করতে পারে (The child is intelligent)। এমন বাচ্চাদের উৎসাহিত করা উচিত এবং বোঝানো উচিত যে তাদের চিন্তাভাবনা সাধারণের থেকে আলাদা। তবে সে যে দারুণ একটা কিছু এই ধারণা ছোটবেলা থেকেই তার মাথায় ঢুকিয়ে না দেওয়াই ভালো৷

২)সতর্কতা ও সার্বিক বিকাশ

নবজাতক শিশুর অধিকাংশ সময় তার আশপাশের লোকেদের দেখতে দেখতে কেটে যায়। তবে জিনিয়াস সন্তানরা অভিভাবকদের সঙ্গে আই কনট্যাক্ট করে। মাথা এদিক ওদিক ঘোরায়, শব্দ করে দ্রুত প্রতিক্রিয়া জানায়। পরিবেশে যে কোনও পরিবর্তন হলেই তারা সংবেদনশীল হয়ে পড়ে। (The child is intelligent) উচ্চস্তরের পারসেপশানের সংকেত এটি।

জিনিয়াস বাচ্চারা অন্যান্য শিশুদের থেকে কিছুটা এগিয়ে থাকে।অন্য সমবয়সি বাচ্চাদের তুলনায় এই বাচ্চারা নিজের সার্বিক বিকাশের স্তরটি আগে পেরিয়ে যায় (The child is intelligent)। সময়ের আগে বসতে, হাঁটতে, বলতে, ধরতে বা কিছু তুলতে শিখে গেলে বুঝতে হবে যে অন্যান্যদের তুলনায় আপনার সন্তান এগিয়ে রয়েছে।

৩)সাহস ও মানসিক বিকাশ

অচেনা কারও সঙ্গে শিশু কি সহজেই মানিয়ে নিতে পারে? যদি তেমন হয়, তাহলে যোগাযোগ ও সম্পর্ক তৈরির ক্ষেত্রে আপনার সন্তান অনেকটা এগিয়ে আছে বুঝতে হবে। (The child is intelligent) বাড়িতে পোষ্য থাকলে তার প্রতিও শিশুর ব্যবহার লক্ষ্য রাখুন। এতে শিশুর সাহস ও মানসিক বিকাশের পরিমাপ বোঝা যায়।

৪)একা থাকতে ভালোবাসা ও জেদ

যে কোন খেলনার সঙ্গে খেলা, রঙ করা, পাজল সল্ভ করতে ভালোবাসলে নিজের চেয়ে বয়সে বড় বাচ্চাদের সঙ্গে থাকতে চাইলে সেই শিশুও প্রতিভাবান। আশপাশের চরম বুদ্ধিমত্তা ও আবেগ অর্জন করতে চায় বলে তারা একা একা এই সমস্ত কিছুই করে যায়। এই শিশুদের বন্ধু সংখ্যা কম হয়। (The child is intelligent) কোনও সমস্যা ছাড়াই নিজের মনোরঞ্জন করতে পারলে এটি তাদের জিনিয়াস প্রবৃত্তিরই লক্ষণ।

বাচ্চারা জেদ করলে সাধারণত তাদের বকাবকি করার ক্ষেত্রে মনে রাখবেন জেদি বাচ্চাদের ডিটারমিনেশান খুব বেশি। তারা যা চায় তা অর্জন করেই থাকে। আবার নিজের কোনও কথায় সকলের সহমত আদায় করে নেওয়াও বুদ্ধিমান বাচ্চার লক্ষণ।

৫)বিভিন্ন ভাষা শোনা ও স্মৃতিশক্তি

আপনাদের যদি বিভিন্ন ভাষার জ্ঞান থাকে, তাহলে সন্তানের সঙ্গে নানান ভাষায় কথা বলুন। একাধিক ভাষার জ্ঞান রয়েছে এমন মা-বাবার সন্তান আইকিউ টেস্টে ভালো ফলাফল লাভ করে। ভালো স্মৃতিশক্তিও বাচ্চাদের প্রতিভার অন্যতম লক্ষণ। এটিও তাদের বুদ্ধিমত্তার মাপকাঠি। (The child is intelligent) আপনার সন্তান কোনও কিছু দেখলে যদি তা দীর্ঘদিন পরও মনে রাখতে পারে, তাহলে বুঝতে হবে যে তারা জিনিয়াস।

৬)কল্পনাপ্রবণতা

আপনার সন্তান যদি নিজে থেকেই নানা কাহিনি গড়তে পারে।কোনও কাল্পনিক বন্ধুর (The child is intelligent) সঙ্গে খেলাধুলো করে।নিজের বয়সের তুলনায় কঠিন কোনও পরিস্থিতি তৈরি করে। এমন কিছু হলে ভাববেন না যে সে মিথ্যে কথা বানিয়ে বলছে।বরং বুঝতে হবে যে আপনার সন্তান কল্পনাপ্রবণ।বাচ্চার মানসিক বিকাশের জন্য কল্পনাপ্রবণতা থাকা অত্যন্ত জরুরি।

৭)পড়াশোনায় ঝোঁক

আপনার সন্তানের পড়াশোনায় কতটা ঝোঁক রয়েছে, তাও বাচ্চার জিনিয়াস হওয়ার দিকে ইঙ্গিত করে। (The child is intelligent) সাধারণত দেখা গিয়েছে যে প্রতিভাবান বাচ্চারা স্কুলের পরীক্ষায় ভালো ফলাফল করে থাকে। সমীক্ষা অনুযায়ী ঠিকমতো স্কুলিং শুরু হওয়ার আগে বাচ্চাদের সঙ্গে খেলাচ্ছলে বিভিন্ন বিষয়ে কথাবার্তা বললে তারা ভালো প্রদর্শন করতে পারে।

৮)কোন বিষয়ে কৌতূহলী

কথায় কথায় প্রশ্ন করে সন্তান উত্যক্ত করে আপনাকে? সব বিষয়েই কী-কেন-কী ভাবে— এ সব প্রশ্ন লেগেই থাকে সন্তানের মুখে? তাহলে বিরক্ত না হয়ে আনন্দিত হওয়া উচিত।কারন কৌতূহলী শিশু মানেই, ধরে নেওয়া হয় তার বুদ্ধি অন্যদের চেয়ে বেশি।

Related Articles

Back to top button