নিউজ

পুর প্রশাসক পদ থেকে রাজনৈতিক ব্যক্তিদের সরিয়ে ভােটের আগে পুরসভাগুলিতে নতুন প্রশাসক নিয়ােগ করল কমিশন

পুর প্রশাসক পদ থেকে রাজনৈতিক ব্যক্তিদের সরিয়ে ভােটের আগে পুরসভাগুলিতে নতুন প্রশাসক নিয়ােগ করল কমিশন

শনিবার পুর প্রশাসক পদ থেকে রাজনৈতিক ব্যক্তিদের সরানাের নির্দেশ দেয় কমিশন। পরিষেবা চালাতে সরকারি আধিকারিকদের দায়িত্ব দেওয়ার কথা বলা হয়। সেই নির্দেশ অনুযায়ী, ভােটের মুখেই কলকাতা পুরসভার প্রশাসক পদে ইস্তফা দিলেন কলকাতার প্রাক্তন মেয়র তথা প্রশাসক ফিরহাদ হাকিম। আপাতত ফিরহাদের দায়িত্ব সামলাবেন পুর ও নগরােন্নয়ন দফতরের সচিব খলিল আহমেদ।নির্বাচিত নতুন বাের্ড গঠন না হওয়া পর্যন্ত দায়িত্ব সামলাবেন খলিলই।পুর প্রশাসকমণ্ডলীর সদস্য অতীন ঘােষ, দেবাশিস কুমাররাও পদত্যাগ করেছেন। এছাড়া শিলিগুড়ির প্রশাসক অশােক ভট্টাচার্য-সহ অন্যরাও ইস্তফা দিয়েছেন।

আরও পড়ুন :  কলকাতা শহরবাসী ও শহরতলীর বাসিন্দাদের কথা ভেবে রাজ‍্য পরিবহন দফতর একটি সুখবর

এবার সেই প্রশাসক পদে নতুন দায়িত্বে বসানাে হলাে IAS ও WBCS অফিসারদের। কলকাতা পুরসভার প্রশাসক হলেন। রাজ্যের পুরসচিব খলিল আহমেদ।হাওড়া পুরসভার প্রশাসক অভিষেক ত্রিপাঠি, বিধাননগরের প্রশাসক হলেন দেবাশিস ঘােষ। আসানসােল পুরনিগমের নীতীন সিংঘানিয়া, শিলিগুড়ি পুরনিগমে প্রশাসক হিসেবে বসানাে হয়েছে সুরেন্দ্র গুপ্তাকে। এখন থেকে তাঁরাই পুরসভার যাবতীয় দায়িত্ব পালন করবেন।

কলকাতা-সহ রাজ্যের বেশিরভাগ পুরসভার মেয়াদ শেষ হয়ে গিয়েছে গত বছরেই। কিন্তু করােনা আতঙ্কে শেষবেলায় স্থগিত হয়ে যায় নির্বাচন।এই পরিস্থিতিতে পরিষেবা চালু রাখতে পুরসভাগুলিতে প্রশাসকের দায়িত্ব পান আগের বাের্ডে যিনি মেয়র বা চেয়ারম্যান ছিলেন। কিন্তু দিন কয়েক আগে নির্বাচন কমিশনে গিয়ে বিজেপি অভিযােগ জানিয়েছিল, নির্বাচনী আচরণবিধি চালু হওয়ার পরও পুরসভার প্রশাসকরা বিভিন্নভাবে ভােটারদের প্রভাবিত করার চেষ্টা করেছেন। পুরসভাগুলিকে ব্যবহার করা হচ্ছে ভােটের কাজে। বিরােধী শিবিরের এই অভিযােগের পরই নড়েচড়ে বসে কমিশন এবং নির্দেশ দেয় রাজ্যের পুরসভাগুলিতে প্রশাসক পদে কোনও রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বকে রাখা যাবে না।ভােটে নিরপেক্ষতা এবং স্বচ্ছতা আনতেই এই পদক্ষেপ বলে জানায় নির্বাচন কমিশন।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button