নিউজ

‘ইন্ডিয়া বুক অব রেকর্ডস’-এ নাম উঠল চার বছরের এই শিশুর, কেন জানেন?

নিউজ ডেস্কঃ একরত্তি অগ্নিভ পান্ডে।বয়স মাত্র চার বছর।আর এই বয়সেই সে বলে দিতে পারে বিভিন্ন ফুল,ফল ও দেহের বিভিন্ন অঙ্গ প্রত‍্যঙ্গের নাম।বয়স যখন এক বছর তখন অগ্নিভ চিনতে পারতো বিভিন্ন রঙের নাম।এত কিছু করতে পারায় বর্তমানে তার নাম উঠেছে “ইন্ডিয়ান বুক অফ রেকোর্ডস”এ।

The four-year-old was named in the India Book of Records, you know why

অগ্নিভ এর বাবা মা ঝাড়গ্রাম ব্লকের গোপিবল্লভপুর গ্রামের বাসিন্দা।অগ্নিভ এখন কেজি ওয়ানে পড়ে।অগ্নিভের বাবা সুমন পান্ডে জানান মাত্র এক বছর বয়সেই সে চিনতে পারতো ১২ টি রঙের নাম।তিন বছর বয়সে তাকে ভর্তি করিয়ে দেওয়া হয় স্কুলে।যেই বয়সে বাচ্চাদের অক্ষরজ্ঞান হয়না সেই বয়সে অগ্নিভ বলে দিতে পারে বিভিন্ন পশু,পাখি,ফলমূল,শাক সবজি,ফুল ও বিভিন্ন শারীরিক অঙ্গ প্রত‍্যঙ্গের নাম।অগ্নিভের বাবা জানান ছেলের প্রতিভা জানিয়ে যখন ইন্ডিয়ান বুক অফ রেকোর্ডসে মেইল করা হয়।

আরও পড়ুন :  স্যানিটাইজ করে লাভ নেই, কারন করোনাভাইরাস বায়ুবাহিত,মত বিশেষজ্ঞদের

তখন তারা একটি ফর্ম দিয়ে পাঠায়।ফর্ম পূরন করার পর তারা ছেলে কি কি জানে তার কুড়িটি ভিডিও চেয়ে পাঠান। সবকিছু পাঠানোর পর তাদের জানানো হয় ছেলের নাম উঠেছে “ইন্ডিয়ান বুক অফ রেকর্ডস”এ। ১৫ টি শাকসবজি, ১০ টি আকৃতি,১৬ টি ফল,৩২ টি পশুপাখি,২১ টি দেহের অঙ্গ প্রত‍্যঙ্গ এবং ১৩ টি বিষয়ে পারদর্শী।

এসব বিষয়ের জন্য তার নাম উঠলো “ইন্ডিয়ান বুক অফ রেকর্ডস”এ।আজ অগ্নিভের জন্মদিন।ইন্ডিয়ান বুক অফ রেকর্ডসের তরফ থেকে আজ অগ্নিভকে সার্টিফিকেট, ব‍্যাগ,কলম,বই দেওয়া হয়েছে। জন্মদিনে অগ্নিভের বাবা সুমন ও মা দেবযানীর একটাই আশা অগ্নিভ নিজের মতো করে বড় হোক।বড় মানুষ হয়ে উজ্জ্বল করুক নিজের গ্রামের নাম।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button