Condom : যুদ্ধ আবহের মধ্যেই কন্ডোম কেনার ধূম পড়ে গেছে রাশিয়ায়, ইউক্রেনে যুদ্ধের প্রভাব রাশিয়ার যৌন জীবনে!

যুদ্ধ আবহের মধ্যেই কন্ডোম কেনার ধূম পড়ে গেছে রাশিয়ায়

নিউজ ডেস্কঃ যুদ্ধের ২৬ দিন পরেও পরিস্থিতি উন্নতির কোনও সম্ভাবনা দেখা যাচ্ছে না। একের পর এক রুশ বোমায় প্রায় মৃত্যুপুরী ইউক্রেনের একাধিক শহর। আর এই যুদ্ধ আবহের মধ্যে রাশিয়ায় লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে কন্ডোমের বিক্রি। পাল্লা দিয়ে বেড়েছে দামও। সরবরাহ বন্ধ হতে পারে যে কোনও সময়, এই আশঙ্কায় রুশ জনতা কন্ডোমের দোকানে লাইন দিচ্ছেন।রাশিয়ার সবচেয়ে বড় অনলাইন সামগ্রী বিক্রির বিপণী ‘ওয়াইল্ডবেরি জানাচ্ছে, মার্চের প্রথম দু’সপ্তাহে গত বছরের এই সময়ের তুলনায় কন্ডোম বিক্রি বেড়েছে ১৭০ শতাংশ।

Advertisement

রাশিয়ার প্রধান ফার্মেসি সংস্থা জানিয়েছে, দেশে ২৬ শতাংশ বেড়ে গিয়েছে কন্ডোমের বিক্রি।চাহিদা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে দামও বেড়েছে। মোটের উপর পাইকারি বাজারে কন্ডোমের দাম বেড়েছে ৩২ শতাংশ। রাশিয়ার সুপার মার্কেটগুলিতে কন্ডোমের বিক্রি বেড়েছে ৩০ শতাংশ। আসলে একের পর এক বিদেশি রাষ্ট্র রাশিয়ায় পণ্য রফতানি বন্ধ করে দিচ্ছে।সেই আতঙ্কেই তৈরি হয়েছে পণ্য মজুত রাখার প্রবণতা,তাই কন্ডোম বিক্রি বেড়েছে।

যুদ্ধের প্রভাবে রাশিয়া মূল্যবৃদ্ধির কোপে পড়েছে। রাশিয়ান মুদ্রা রুবলের দাম পড়ছে, ফলে দাম বাড়ছে সবকিছুর। রাশিয়ার মানুষ বর্ধিত মূল্যে কন্ডোম কেনার পক্ষপাতী নয়। তাই তাঁরা আগে থাকতেই সঞ্চয় করে রাখতে চাইছেন। এখনই অনেকটা দাম বেড়েছে, তবু সেই বর্ধিত মূল্যেই কিনে নিচ্ছেন রুশরা। যে কোনও ব্র্যান্ডের যা দাম তা ইতিমধ্যেই ৫০ শতাংশ বেড়ে গেছে।

ইয়েসেনিয়া শামোনিনা এক সেক্স শপের মালিক বলেন মানুষ সম্ভবত ভবিষ্যতের কথা ভেবে বাড়তি কন্ডোম কিনে রাখছেন।কন্ডোম কেনার হার এতটাই বেড়ে গেছে যে তাঁদের কাছেও এটা অপ্রত্যাশিত। রাশিয়ার তরফে বলা হয় এই বিষয়টা বেশিদিন চলবে না। কারণ ভারত, থাইল্যান্ড, দক্ষিণ কোরিয়া এবং চীন এখনও সাপ্লাই বন্ধ করেনি।ফলে আপাতত ঘাটতির কোনও কারণ নেই।

Advertisement

Sunita Mallick

আমি সুনিতা মল্লিক গত কয়েক বছর ধরে আমি সকালের বার্তা নিউজ পোর্টালের সাথে যুক্ত আছি যেখানে আপনাদের জন্য ভাইরাল নিউজ ও ইন্টারটেনমেন্ট নিউজ আমি লেখালেখি করে থাকি, আশা করি আমার লেখাগুলো আপনাদের ভাল লেগে থাকবে। ভালো লাগলে অবশ্যই শেয়ার করবেন।

Related Articles