টেকনোলজি

জিও-ভোডা এয়ারটেলকে TRAI-এর কড়া নির্দেশ, রিচার্জের মেয়াদ আর ২৮ দিন নয় এবার ৩০ দিন দিতে হবে

TRAI New Rules: টেলিকম সংস্থা Jio আসার পরে হঠাৎ করেই ফ্রি ডেটা প্ল্যান, ফ্রি কলিংয়ের বন্যা শুরু হয়েছিল। Jio-এর দেখাদেখি Airtel এবং Vodafone Ideas গ্রাহকদের বিনামূল্যে পরিষেবা দিয়েছিল। কিন্তু সেই বিনামূল্যের পরিষেবা কিছুদিনের মধ্যেই শেষ হয়ে গেছে। এরপর থেকে টেলিকম সংস্থাগুলি প্রতি বছরই তাদের প্ল্যানগুলির দাম বাড়িয়েই চলছে।

তবে গত ডিসেম্বরেই রিলায়েন্স জিও, এয়ারটেল, ভিআই (Vi)-এর মত সংস্থাগুলি তাদের রিচার্জ প্ল্যানগুলির দাম ২৫% পর্যন্ত বাড়িয়েছে। এরফলে গ্রাহকদের কপালে চিন্তার ভাজ পড়েছে।কারন দাম বাড়ানোর ফলে গ্রাহকদের পকেটে টান পড়েছে।শোনা যাচ্ছে ভালো পরিষেবা দিতে প্ল্যানের দাম আরও বাড়ানো হতে পারে।

বর্তমানে মোবাইল ব্যবহারকারীদের মধ্যে বেশিরভাগ গ্রাহকই প্রিপেইড প্ল্যান ব্যবহার করেন। আর প্রিপেইড রিচার্জে ট্যারিফ প্ল্যানের বৈধতা দিন হিসেবে দেওয়া হয়। যেমন এক মাসের জন্য ২৮ দিন বৈধতা দেওয়া হয়। কিন্তু একমাসের জন্য রিচার্জ প্ল্যানের বৈধতা ৩০ দিন দেওয়া উচিত।কিন্তু সেখানে ৩০ দিনের বদলে ২৮ দিন দেওয়া হয়।

আবার তিন মাসের জন্য যে রিচার্জ প্ল্যান রয়েছে সেখানে ৯০ দিনের বদলে ৮৪ দিন বৈধতা থাকে। এক মাস বা তিন মাসের রিচার্জ করলে ৩০ দিনের বৈধতা কোনও টেলিকম সংস্থাই দেয় না। তারা ২৮ দিনের বৈধতা দেয়। এর পিছনে একটা বিরাট বড় কারণ রয়েছে। এক মাসের প্ল্যানের ক্ষেত্রে ২ দিন, দুই মাসের প্ল্যানের ক্ষেত্রে ৪ দিন আর তিন মাসের প্ল্যানের ক্ষেত্রে ৬ দিন কমিয়ে কয়েক হাজার কোটি টাকা লাভ করে এই টেলিকম সংস্থাগুলি।

তবে এবার টেলিকম সার্ভিস প্রোভাইডারদের গা জোয়ারির দিন শেষ হতে চলেছে। দ্য টেলিকম রেগুলেটরি অথোরিটি অফ ইন্ডিয়া (The Telecom Regulatory Authority of India, Tral) এবার কড়া পদক্ষেপ নিল।কেন্দ্রীয় সংস্থা সাফ জানিয়ে দিল যে রিলায়েন্স জিও, (Reliance Jio), ভোডাফোন আইডিয়া (Vodafone Idea ) ও এয়ারটেল (Airtel)-এর মতো টেলিকম সংস্থাগুলিকে পুরো মাসের প্ল্যানই দিতে হবে।

অর্থাৎ ২৮ দিনের গল্প শেষ,এবার থেকে রিচার্জের মেয়াদ ৩০ দিনই দিতে হবে। টিআরএআই বিবৃতি দিয়ে এমনটাই জানিয়ে দিয়েছে। টিআরএআই এর এই নির্দেশ সমস্ত টেলিকম সংস্থাগুলিকে বাধ্যতামূলক ভাবে মানতে হবে। ন্যূনতম একটি প্ল্যান ভাউচার, বিশেষ ট্যারিফ ভাউচার ও কম্বিনেশন ভাউচারের মেয়াদ এক মাসেরই হবে।

তিন মাস বা এক বছরের জন্য রিচার্জ না করে এক মাস করে রিচার্জ করলে ২৮ দিনের বৈধতা দেয়। অর্থাৎ আপনি এক মাস ভেবে যে রিচার্জ করছেন তা কিন্তু ২৮ দিনের জন্য। ২৮ দিন করে ধরলে ১২ মাসে হয় ২৮x১২=৩৩৬ দিন। বছরে মোট ৩৬৫ দিন অর্থাৎ বাকি থাকে ৩৬৫-৩৩৬=২৯ দিন। অর্থাৎ ৩০ দিন করে বৈধতা দিলে ১২ বার রিচার্জ করলেই এক বছর সম্পূর্ণ হয়ে যেত।

কিন্তু এক্ষেত্রে ২৯ দিন বাকি থাকছে। অর্থাৎ ১২ বার রিচার্জ করার পর আরও একবার রিচার্জ করতে হয়।অর্থাৎ ১৩ বার রিচার্জ করতে হয়। এই শেষ রিচার্জে সংস্থাগুলি কয়েক হাজার কোটি টাকা লাভ করে। তবে এবার কেন্দ্রীয় সংস্থা সকল টেলিকম সংস্থাগুলির নিজেদের প্ল্যান বদলে ফেলার জন্য ৬০ দিনের সময় বেঁধে দিয়েছে।

চলতি বছর জানুয়ারি মাসে টিআরএআই জানিয়েছিল যে টেলিকমিউনিকেশনস ট্যারিফ অর্ডার মেনে বাধ্যতামূলক ভাবে টেলিকম সংস্থাগুলিকে ভাউচার্স ও মাসিক প্রি-পেইড প্ল্যানে ৩০ দিনের ভ্যালিডিটি দিতেই হবে। কেন্দ্রীয় সংস্থা এই নির্দেশ গ্রাহকদের থেকে পাওয়া ফিডব্যাকের ভিত্তিতেই নিয়েছিল।

টেলিকম সার্ভিস প্রভাইডার্সরা ৩০ দিনের বদলে ২৮ দিনের ট্যারিফ প্ল্যান দিচ্ছে। টিআরএআই-এর নির্দেশের আগে অধিকাংশ প্রি-পেইড ট্যারিফ প্যাকের ভ্যালিডিটি ২৮/৫৬/৮৪ দিনের হচ্ছিল। কিন্তু গ্রাহকরা জানান যে মাসিক প্ল্যানের ক্ষেত্রে বছরে ১২টির বদলে ১৩টি রিচার্জ করাতে হচ্ছে। তাই এবার ২৮ দিনের বদলে রিচার্জের মেয়াদ ৩০ দিন দিতে হবে। টিআরএআই এর এই নির্দেশ সকল টেলিকম সংস্থাগুলিকেই মানতে হবে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button