Home দেশ অবশেষে সার্থক হচ্ছে মমতার স্বপ্ন, দুই বছরের মধ্যেই ট্রেনে চড়ে সিকিমে

অবশেষে সার্থক হচ্ছে মমতার স্বপ্ন, দুই বছরের মধ্যেই ট্রেনে চড়ে সিকিমে

নিউজ ডেস্ক: রেলমন্ত্রী থাকাকালীন বর্তমান মূখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ঘোষণা করেছিলেন যে রেলের মানচিত্রে কোলকাতার সাথে জুড়ে দেবেন কাঞ্চনজংঘার কোলে থাকা সিকিমকে। সিকিম এবং সেবকের মধ্যে ব্রডগেজ রেল প্রকল্পের কথা ঘোষণা করেছিলেন রেলের তৎকালীন বাজেটে।

যদিও এক দশক পার হয়ে গেছে সেই প্রকল্প শুরু হতেই।খুশির খবর এটাই যে চলতি বছরে শুরুর দিকে এটির কাজ শুরু হলেও দীর্ঘদিন লকডাউনের কারনে কাজ বন্ধ ছিলো। তবে এখন কাজ চলছে পুরোদমে। এই কাজের সাথে যুক্ত রেল আধিকারিকদের ধারণা ২বছরের মধ্যেই এই কাজ শেষ হবে এবং কোলকাতা থেকে সিকিম সরাসরি আসা যাওয়া করা যাবে।

আরও পড়ুন :  ভারতের এই রাজ‍্য মিলল ডাইনোসর এর ডিম,তবে কি এই রাজ‍্য ডাইনোসর এর স্বর্গরাজ‍্য

এই কাজ শেষ হলে লাভবান হবে সামরিক শক্তি।চিন ও ভারত সীমান্তে দ্রুত সেনা,অস্ত্র, রসদ পৌঁছে দেওয়া যাবে। লাভবান হবে দুই দেশের পর্যটনও।২০০৯ সালের রেল বাজেটে ঘোষণা করা হয়েছিল এই প্রকল্পটি।তখনই রেলমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বুঝেছিলেন নিরাপত্তার কারনে গুরুত্বপূর্ণ রাজ্য সিকিমকে দেশের মূল ভূখণ্ডের সাথে যুক্ত না করতে পারলে নিরাপত্তা ও সার্বভৌমতার সাথেই আপোষ করা হবে।

আরও পড়ুন :  ভারতের এই রাজ‍্য মিলল ডাইনোসর এর ডিম,তবে কি এই রাজ‍্য ডাইনোসর এর স্বর্গরাজ‍্য
আরও পড়ুন :  করোনায় প্রাণ গেল রাজ্যের আরও ৫ চিকিৎসকের

বর্তমানে চিনের বাড়াবাড়ি খুবই বেড়েছে সেই কারনে মনে করা হচ্ছে এটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি প্রকল্প। আর চিনের বাড়াবাড়ি দেখে শেষমেশ কেন্দ্রীয় সরকার অতীতে আগ্রহ না দেখালেও বর্তমানে খুব দ্রুতই কাজ শেষ করে ফেলতে চাইছে এই প্রকল্পের। একারনে মনে করা হচ্ছে ২০২২ সালের মধ্যেই এই প্রকল্প শেষ হয়ে ট্রেন চলাচল শুরু হবে।

উত্তর পূর্ব রেলওয়ে সূত্রে জানা গিয়েছে এই প্রকল্পের দৈর্ঘ রংপো থেকে সেবক অবধি ৪৪.৯৮ কিমি।যারমধ্যে ৮৫%থাকবে সুরঙ্গে। মোট যাত্রাপথের মধ্যে সেবক থেকে বাংলা পর্যন্ত দৈর্ঘ্য ৪১.৫৭কিমি।সিকিম এ থাকছে ৩.৪১ কিমি। ১৪টি টানেল ও ১৯ টি ব্রিজ থাকছে এই যাত্রাপথে।

আরও পড়ুন :  রাজ্য বিজেপির সাধারণ সম্পাদকের হাত ধরে দক্ষিণ দিনাজপুরে বিজেপিতে যোগদান করলো প্রায় ৫০ জন

এছাড়া স্টেশন থাকবে ৫টি তবে মজার ব্যাপার হলো তিস্তাবাজার স্টেশনটি সম্পূর্ন টানেলের ভিতর দিয়ে যেতে হবে যা পর্যটকদের কাছে ভীষণ আকর্ষণীয় হয়ে উঠবে।সম্ভবত এটি দেশের প্রথম স্টেশন যেটি সুরঙ্গের মধ্য দিয়ে যেতে হবে।দুদিকের পাহাড়ি পরিবেশ ও ফরেস্ট ডিভিশন পড়ায় এ রেলপথ যে পর্যটকদের মন কাড়বে তা বলাই যায়।

আরও পড়ুন :  বসিরহাট পুলিশ জেলার Enforcement Branch উদ্ধার করলেন অবৈধ 37 টি gas সিলিন্ডার

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

এই মুহূর্তে

- Advertisment -
- Advertisment -

ভাইরাল