Uncategorized

তৃনমূল ক্ষমতায় ফিরলে রাজ্যের কৃষকদের একর পিছু বছরে ১০ হাজার টাকা, কিষাণনিধির পালটা অভিষেকের

রাজ্যের কৃষকদের একর পিছু বছরে ১০ হাজার টাকা

মুখ্যমন্ত্রী ইস্তাহারে আগেই বলেছিলেন কৃষকদের একর পিছু বছরে ১০ হাজার টাকা দেওয়ার কথা।এবার তৃণমূলের যুবনেতা তথা সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের গলাতেও শােনা গেল একই প্রতিশ্রুতি।তিনি মনে করিয়ে দিলেন বাংলার শাসকদল তৃণমূল কৃষক দরদী। বিজেপির চেয়ে চাষিদের কথা অনেক বেশি ভাবেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।রবিবার মেদিনীপুরের হাইভােল্টেজ জনসভা থেকে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় প্রতিশ্রুতি দিলেন, তৃণমূল সরকার ক্ষমতায় ফিরলে রাজ্যের ৬৮ লক্ষ কৃষককে বছরে একর পিছু ১০ হাজার টাকা দেওয়ার ব্যবস্থা করা হবে।আর এই প্রকল্প ১ জুন থেকেই কার্যকর হবে।

আরও পড়ুন :  প্রস্তাবে রাজি হয়ে 'হ্যা বলেন প্রেমিকা, সেই মুহূর্তে পা পিছলে ৬৫০ ফুট নিচে পড়ে যান

 

বিজেপির তরফ থেকে বারবার অভিযােগ করা হয়েছে, বাংলায় কেন্দ্রের প্রকল্প চালু করছেন না রাজ্য সরকার।মমতার সরকার নাকি কেন্দ্রকে কৃষকদের কোনও তথ্যই দিচ্ছে না।অবশেষে ভােটের আগে সেই তথ্য কেন্দ্রকে পাঠানাে হয়েছে বলে দাবি করেন মমতা। তবুও রাজ্যের চাষিরা কেন্দ্রীয় সহায়তা পায়নি বলে পালটা সরব তৃণমূল নেতৃত্ব।বিজেপি প্রতিশ্রুতি দিয়েছে, বঙ্গে গেরুয়া সরকার তৈরি হলে চাষিরা প্রতি বছর ৬ হাজার টাকা পাবেন।সেইসঙ্গে বকেয়া ১৮ হাজার টাকাও মেটাবে বিজেপি। এমন পরিস্থিতিতে ইস্তাহারে মাস্টারস্ট্রোক দিয়েছেন মমতা।কৃষকদের একর পিছু বছরে ১০ হাজার টাকা দেওয়া হবে।

 

কেন্দ্রের এই প্রতিশ্রুতি নিয়ে তুমুল সমালােচনা করেছেন তৃণমূল নেতা অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।তাঁর কথায়, বিজেপির ১৫ কোটি টাকার পার্টি অফিস,আর ৬ কোটি টাকার গাড়ি চড়েন প্রধানমন্ত্রী।আর চাষিদের জন্য বছরে মাত্র ৬ হাজার টাকা দিচ্ছে কেন্দ্র।বাংলায় তৃণমূল ক্ষমতায় এলে কেন্দ্রের সাহায্যের দিকে তাকিয়ে থাকতে হবে না কৃষকদের । বাংলার সরকারই চাষিদের প্রতি বছর ১০ হাজার তুলে দেবে।ওয়াকিবহাল মহল বলছে, কেন্দ্রীয় প্রকল্পের চেয়ে রাজ্যের প্রকল্পে উপকৃত হবেন অনেক বেশি সংখ্যক চাষি।কারণ বিজেপি দেশজুড়ে যে কৃষক সম্মাননিধি প্রকল্প চালু করেছে তাতে কৃষকদের হেক্টর পিছু বছরে ৬ হাজার টাকা দেওয়া হয়।কিন্তু বাংলায় অধিকাংশ কৃষকই ১ হেক্টরের চেয়ে কম জমির মালিক।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button