নিউজ

বিয়ের দিন বউয়ের পিরিয়ডস! রেগে অগ্নিশর্মা পাত্রপক্ষ, বিবাহবিচ্ছেদের মামলা

গুজরাটের ভদোদরাঃ বিয়ের সময় ঋতুবতী নববধূ। আর সেই অবস্থায় কুলদেবতার মন্দিরে প্রবেশ,আর ঠিক মন্দিরে প্রবেশের আগ মূহুর্তে নববধূ জানালেন তার ঋতুবতী হওয়ার কথা এবং সাথে সাথে এটাও জানালেন যে এই অবস্থায় বিয়ের সমস্ত আচার পালন করেছেন তিনি। আর পাত্রপক্ষের অভিযোগ এই ঘটনায় পারিবারিক সম্মান ও বিশ্বাসে আঘাত হেনেছে।

Wife's periods on the wedding day! Angry Agnisharma Patrapaksh, divorce case

রেগে অগ্নিশর্মা পাত্রপক্ষ।সাধারণত ঋতুস্রাকে অমঙ্গল বলেই মানেন সমাজের লোকজন।আর এরফলে শুভকাজ থেকে বিরত থাকাই পছন্দ করেন অনেকেই ঐ কয়েকদিন। ডিজিটাল যুগ চললেও কিছু মানুষের চিন্তাধারা এখনো সেকেলে হয়ে আছে। পিরিয়ড নিয়ে যতই ভুল ধারণা ভাঙানো হোকনা কেন। একস্তরের মানুষের মনে এখোনো সেসব দাগ কাটতে পারেনি।আর এরকম এক পরিবারেই ঘটলো এমন ঘটনা।

আরও পড়ুন :  বিশাল বড় সুখবর!পোস্ট অফিসে পরীক্ষা ছাড়ায় ৩৮ হাজার কর্মী নিয়োগ, Apply করুন এভাবে

ঘটনাস্থল গুজরাটের ভদোদরা। এমন ঘটনার পর প্রথম থেকেই বৌয়ের সাথে বনিবনা না হওয়ায় শেষ পর্যন্ত ঘটে গেলো বিবাহ বিচ্ছেদের মামলা।ঘটনার পর স্বামী অবশ‍্য অভিযোগ করে বলেন, বৌ তার কাছ থেকে দামী দামী জিনিস চাইতো।আর তা না দিতে পারলেই দিতো আত্মহত্যার হুমকি।স্বামী বেসরকারি সংস্থায় কর্মরত ও স্ত্রী প্রাথমিক শিক্ষিকা।এছাড়াও তার অভিযোগ বিয়ের পর স্ত্রী সংসার চালানোর খরচ দিতে বারন করেন।স্ত্রীকে প্রতি মাসে হাতে ৫ হাজার টাকা করে দিতে বলেন।ঘরে বসাতে বলেন এসি। এছাড়াও এসি না বসানোয় বাপের বাড়ি চলে যান স্ত্রী। এরপর মান ভাঙিয়ে ফিরিয়ে আনা হলেও,মাঝে মধ্যেই বাপের বাড়ি চলে যেতেন স্ত্রী।আর ফিরে আসতে চাইতেন না,এমনটাই অভিযোগ স্বামীর।

অপরদিকে স্ত্রী অভিযোগ করেছেন শ্বশুরবাড়ির সবাই মিলে তাকে অত‍্যাচার করতেন। আর স্বামী ও শ্বশুরবাড়ির বিরুদ্ধে এই কথা বলে বাপোড থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন তিনি।যদিও সমস্ত অভিযোগ ভুয়ো বলে দাবি করেছেন ঐ মহিলার স্বামী।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button