নিউজ

‘নিজেই কুঁয়ােয় ঝাঁপ দেন মহিলা’,যৌনাঙ্গে রড ঢুকিয়ে গণধর্ষণের পর দাবি পুরােহিতের

উত্তর প্রদেশ, বঁদায়ুঃ বঁদায়ু গণধর্ষণকাণ্ডে(Gang Rape) গ্রেফতার মূল অভিযুক্ত মন্দিরের প্রধান পুরােহিত সত্যনারায়ণ, বৃহস্পতিবার রাতে অভিযুক্তকে গ্রেফতার করে পুলিস।বাইকে চড়ে পালাবার সময়ই সত্যনারায়ণকে গ্রেফতার করে পুলিস।তার আগেই বুধবার সত্যনারায়ণের ২ শিষ্যকে গ্রেফতার করেছিল পুলিস।

'Woman jumps into well herself', claims priest after gang rape by inserting rod in genitals

নির্যাতিতা প্রৌঢ়ার ময়নাতদন্তের রিপাের্টে যৌনাঙ্গে ক্ষত চিহ্ন মিলেছে, তাঁর পা ভাঙা অবস্থায় ছিল। গণধর্ষণের (Gang Rape) জেরে অত্যধিক রক্তক্ষরণ হয় ওই প্রৌঢার। যার জেরেই ওই প্রৌঢ়া প্রাণ হারান।

অভিযুক্ত স্থানীয় মন্দিরের প্রধান পুরােহিত। ঘটনার পর থেকেই এক অনুগামীর বাড়িতে আত্মগােপন করেছিল সে।অবশেষে খবর পেয়ে সেই বাড়িতে হানা দেয় গ্রেফতার করে উঘৈতি থানার পুলিশ।অভিযুক্ত সত্যনারায়ণকে জেরা করলে সে নিজেকে বারবার নির্দোষ বলে দাবি করছে বলে জানা গিয়েছে পুলিশ সূত্রে।এমনকি ধর্ষিতা,মৃতা ওই মহিলার সঙ্গে তার সম্পর্ক ছিল বলেও দাবি করেছে সত্যনারায়ণ।সত্যনারায়ণের দাবি, নির্যাতিতা ওই মহিলা ছাড়াও আরও দুজনের সঙ্গে তার ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক ছিল বহুদিন ধরেই। সেই নিয়েই তাদের মধ্যে ঝগড়া হয়েছিল।সে দিন রাগে ওই মহিলা কুয়ােয় ঝাঁপ দেন।

বারবার জিজ্ঞাসাবাদের পরেও সত্যনারায়ণ নিজের বক্তব্যে অটল।সে জানিয়েছে, এই ঘটনার পর দিশেহারা হয়ে আত্মগােপন করেছিল সে। এমনকি অন্য যে দু’জন মহিলার সঙ্গে তার সম্পর্ক রয়েছে, তাঁদেরও নাম-ঠিকানা পুলিশকে জানিয়েছে সত্যনারায়ণ।ঘটনার তদন্তে মন্দিরের সিসিটিভি ফুটেজও খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button