Advertisement

Apon Bangla Card – এবার বাংলার নতুন কার্ড ‘আপন বাংলা’, দেখুন কি কি সুবিধা আছে ও কি ভাবে আবেদন করবেন।

Apon Bangla Card: পেটের তাগিদে পরিবার ও দেশ ছেড়ে কর্মের জন্য প্রবাস জীবন বেছে নেয় অনেকেই। দেশে কর্মক্ষেত্র সংকুচিত হয়ে পড়ায় প্রায় প্রতিদিনই অনেকে বিদেশে পাড়ি দিচ্ছেন। বিপুল সংখ্যক মানুষ বিদেশে গিয়ে কোনো না কোনোভাবে দিনমজুরের কাজ করে জীবিকা নির্বাহ করেন।পরিবারের কথা ভেবে বছরের পর বছর বিদেশেই কাটিয়ে দেয় প্রবাসীরা।

Advertisement

তাই ইচ্ছে থাকলেও কোন উৎসব বা পারিবারিক কোন অনুষ্ঠানে তারা আসতে পারেন না। তবে এবার থেকে প্রবাসী বাঙালি ও বিদেশে স্থায়ীভাবে বসবাসকারী বাঙালিরা বিদেশের মাটিতে বসেই পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন অনুষ্ঠানে যোগ দেওয়ার এবং দেখার সুযোগ পাবেন। রাজ্য সরকার প্রবাসীদের জন্য নতুন প্রকল্প চালু করল। কর্মসূত্রে বিদেশে থাকা প্রবাসী বাঙালিদের জন্য রাজ্য সরকার এক অভিনব উদ্যোগ গ্রহন করলেন।

রাজ্য সরকারের এই নতুন প্রকল্পের নাম দেওয়া হয়েছে “Apon Bangla” ও ‘আপন বাংলা’। গত ২১ ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের দিন নতুন এক পোর্টালের উদ্বোধন করা হয়েছে। এই পোর্টালের উদ্বোধন করেছেন খোদ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। পোর্টালের নাম “আপন বাংলা’। এই পোর্টালে নথিভুক্ত করলেই আপন বাংলা কার্ড মিলবে।

আরও পড়ুন- Voter Card Apply – ২০২৩ সালের ভোটার লিস্টে নাম তুলতে নতুন নিয়ম চালু! কি নিয়ম চালু হল জেনে নিন।

আপন বাংলা কার্ড “Apon Bangla Card” চালু করার উদ্দেশ্য?

প্রবাসী ভারতীয় তথা বাঙালিদের সঙ্গে যোগাযোগ স্থাপন এবং তাঁদের শিকড়ের আরও কাছে আনার জন্য নিজস্বতার অনুভূতি দেওয়ার জন্য এই প্রকল্প চালু করা হয়েছে। এই পোর্টালের মাধ্যমে প্রবাসী বাঙালি ও বিদেশে স্থায়ীভাবে বসবাসকারী বাঙালিরা বিদেশের মাটিতে বসেই পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন অনুষ্ঠানে যোগ দিতে পারবেন।

কারা ‘আপন বাংলা কার্ড’ বা “Apon Bangla Card” পাবেন?

প্রবাসী ভারতীয় তথা বাঙালিরা এই আপন বাংলা কার্ড পাবেন। www.aponbangla.wb.gov.in পোর্টালে প্রবাসী বাঙালিরা নিজের নাম নথিভুক্ত করলেই এই কার্ডের অধিকারী হতে পারবেন।

‘আপন বাংলা কার্ডে বা “Apon Bangla Card” কী কী সুবিধা পাওয়া যাবে?

আপন বাংলা কার্ডের মাধ্যমে প্রবাসী বাঙালি ও বিদেশে স্থায়ীভাবে বসবাসকারী বাঙালিরা বিদেশের মাটিতে বসে পশ্চিমবঙ্গকে দেখার ও বোঝার সুযোগ পাবেন। আপন বাংলা পোর্টালের মাধ্যমে প্রবাসীরা নানান গুরুত্বপূর্ণ অনুষ্ঠান যেমন- চলচ্চিত্র উৎসব বইমেলা পুজো কার্নিভাল এবং বাংলা বাণিজ্য সম্মেলন, কলকাতা আন্তর্জাতিক বইমেলা, আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব সহ বিভিন্ন শিল্প সম্মেলনের অনুষ্ঠানে এই কার্ডের অংশগ্রহণ করার সুযোগ পাবেন। রাজ্য সরকারের তরফে তাদের এই অনুষ্ঠানে যোগদানের ক্ষেত্রে অগ্রাধিকার দেওয়া হবে।

আরও পড়ুন- Awas Yojana – প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার নতুন তালিকা প্রকাশিত হয়েছে! তালিকায় আপনার নাম আছে কিনা দেখে নিন।

আপন বাংলা কার্ড তৈরিতে কী কী নথি লাগবে?

১) নাম, জন্মের তারিখ, পাসপোর্টের বিবরণ, বর্তমান বসবাসকারী দেশ, মোবাইল নম্বর, ইমেল আইডি,আপনি এনআরআই/পিআইও/ওসিআইএস কি না।
২) বর্তমান ঠিকানা/আবাসিক/কাজের ঠিকানা, দেশ এবং ঠিকানার বিশদ যেখানে আপনি বর্তমানে বাস করছেন।
৩) পশ্চিমবঙ্গে আবেদনকারীর ঠিকানা, জেলা, থানা, পিন কোড, পশ্চিমবঙ্গে বসবাসরত মোট পরিবারের সদস্য, যোগাযোগের ব্যক্তি ও তাঁর মোবাইল নম্বর।
৪) প্রয়োজনীয় নথি যেমন ফটো, স্বাক্ষর, পাসপোর্ট, ঠিকানা প্রমাণ।

আপন বাংলা কার্ডের আবেদন প্রক্রিয়া?

১) প্রথমে আপন বাংলা পোর্টাল www.aponbangla.wb.gov.in তে লগইন করতে হবে।
২) রেজিস্ট্রারে উল্লিখিত বিশদ জমা দেওয়ার পরে আপনাকে নিম্নলিখিত নথিগুলির স্ক্যান আপলোড করতে হবে।
৩) ফটো (ফাইল ফর্ম্যাট জেপিজি / জেপিজি এবং সর্বাধিক ফাইলের আকার প্রতিটি ৫০ কেবি)।
৪) স্বাক্ষর (ফাইল ফর্ম্যাট জেপিজি / জেপিইজি এবং সর্বাধিক ফাইলের আকার প্রতিটি ৫০ কেবি)।

৫) পাসপোর্ট (একটি একক চিত্রের সামনে এবং পিছনে ফাইল ফর্ম্যাট জেপিজি / জেপিজি এবং সর্বাধিক ফাইলের আকার প্রতিটি ২ এমবি)।
৬) ঠিকানা প্রমাণ (ফাইল ফর্ম্যাট পিডিএফ/জেপিজি/ জেপিজি এবং সর্বাধিক ফাইলের আকার প্রতিটি ২ এমবি।
৭) সমস্ত নথি আপলোড করার পরে, একটি সিস্টেম জেনারেটেড লিঙ্ক রেজিস্টার্ড ইমেল আইডিতে চলে যাবে। সেখান থেকে আবেদনকারী ‘আপন বাংলা কার্ড’ ডাউনলোড করতে পারবেন।

আপন বাংলা কার্ডে বা “Apon Bangla Card” কী কী উল্লেখ থাকবে?

আপন বাংলা কার্ডে অনাবাসী ভারতীয়দের যাবতীয় তথ্য উল্লেখ করা থাকবে। পাসপোর্ট নম্বরের পাশাপাশি পৃথক রেজিস্ট্রেশন নম্বরও তাদের দেওয়া হবে। এছাড়াও তিনি কোন দেশের বাসিন্দা, সেটাও বিস্তারিতভাবে উল্লেখ থাকবে।

আপন বাংলা পোর্টাল চালুর পাশাপাশি প্রবাসী বাঙালি এবং ভারতীয়দের জন্য বিশেষ সহায়তা কেন্দ্র খোলা হবে। যাতে তাদের কোনো রকম অসুবিধা না হয়। যে সমস্ত প্রবাসী বাঙালি এবং ভারতীয়রা Apon Bangla Card বা আপন বাংলা কার্ডের জন্য নাম নথিভুক্ত করতে চাইবেন, তারা আপন বাংলা পোর্টালে নিজেদের সমস্ত তথ্য দিয়ে নাম নথিভুক্ত করলে পরিচয়পত্র তৈরি হয়ে যাবে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button