Lakshmir Bhandar – একটি পরিবারে কতজন লক্ষ্মীর ভান্ডার পাবেন? মুখ খুললেন মুখ্যমন্ত্রী!

Advertisement

Lakshmir Bhandar Update – রবিবার দুপুরে আলিপুরদুয়ারের এক অনুষ্ঠানে যোগ দেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেখানে তিনি লক্ষ্মীর ভাণ্ডারের বিধি নিয়ে বক্তব্য রাখেন। উল্লেখ্য, লক্ষ্মীর ভাণ্ডারের আওতায় জেনারেল কাস্টের মহিলাদের মাসে ৫০০ টাকা দেওয়া হয়, এসসি এসটিদের ১০০০ টাকা দেওয়া হয়। ইতিমধ্যেই রাজ্যসরকারের এই প্রকল্পের ভূয়সী প্রশংসা হচ্ছে, সাফল্যও পেয়েছে এই প্রকল্প। তবে একই পরিবারের কতজন পেতে পারেন এই টাকা? কত বছর বয়স পর্যন্ত পাওয়া যাবে টাকা? এই নিয়ে মুখ খুললেন মমতা।

WhatsApp Group Join Now
Telegram Group Join Now

একই পরিবারের কতজন পাবে Lakshmir Bhandar -এর টাকা?

এক পরিবারের কতজন মহিলা এই Lakshmir Bhandar প্রকল্পের সুবিধা পাবেন তা নিয়ে একটি নির্দিষ্ট নির্দেশিকা রয়েছে। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এদিন আলিপুরদুয়ারের সরকারি অনুষ্ঠানে সেই বিষয়টিকেই মনে পড়িয়ে দেন। তিনি নিয়ম সম্পর্কে মনে পড়িয়ে জানিয়ে দেন কোন ঊর্ধ্বসীমা নেই। অর্থাৎ এক পরিবারের যতজন মহিলা রয়েছেন ততজন মহিলা যদি এই প্রকল্পের শর্ত পূরণ করতে পারেন তাহলে সবাই প্রকল্পের টাকা পাবেন। একই পরিবারের সাতজন থাকলে সাতজনই টাকা পেতে পারেন যদি প্রত্যেকেই এই প্রকল্পের উপযুক্ত হন। এর পাশাপাশি যদি এই প্রকল্পে টাকা পেতে কোন অসুবিধা হয় তাহলে ৯১৩৭০৯১৩৭০ নম্বরে ফোন করার কথাও জানান।

আরও পড়ুন – Primary Teacher Recruitment – ১২ হাজার শিক্ষক নিয়োগের ভবিষ্যৎ কি? কি বলছে সুপ্রিম কোর্ট ? জানুন বিস্তারিত।

Advertisement

পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকারের লক্ষ্মীর ভান্ডার (Lakshmir Bhandar Prakalpo) প্রকল্প রাজ্যের মহিলাদের নগদ টাকা দিয়ে থাকে। মুখ্যমন্ত্রী এই প্রকল্প চালু করার কারণ হিসাবে মহিলাদের হাত খরচ দেওয়ার যুক্তি দিয়েছিলেন। এই প্রকল্পে যে সকল মহিলারা আবেদন করেন এবং প্রকল্পের জন্য উপযুক্ত যোগ্য হন তাদের সাধারণ শ্রেণীর মহিলারা প্রতি মাসে ৫০০ টাকা এবং তফসিলি জাতি ও উপজাতি শ্রেণীর মহিলারা প্রতিমাসে ১ হাজার টাকা পান। এবার এই প্রকল্প (Lakshmir Bhandar) নিয়ে নয়া ঘোষণা করতে দেখা গেল মুখ্যমন্ত্রীকে।

Advertisement

উল্লেখ্য, লোকসভা ভোটের আগে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের এই উত্তরবঙ্গ সফর অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ বলে মনে করা হচ্ছে। তিনি ইতিমধ্যেই পাহাড়ের জন্য ঝাঁপি উপুড় করে দিয়েছে। দার্জিলিঙে আই টি হাব তৈরির কথাও শোনা যায় মুখ্যমন্ত্রীর কণ্ঠে। শুধু তাই নয়, দার্জিলিঙের চা বাগানে শ্রমিকদের সঙ্গে নিজে গিয়ে কথা বলেন তিনি। পাহাড়ি পোশাকে তোলেন চা পাতাও।

আরও পড়ুন – RBI ফের একটি ব্যাঙ্কের লাইসেন্স বাতিল করল! আপনি কি টাকা ফেরত পাবেন?

Advertisement
JoinJoin