Advertisement
চাকরির আপডেটনিউজ

Primary TET Scam: রাজ্যের উত্তর ২৪ পরগনার বরখাস্ত শিক্ষকদের তালিকা এখনো আড়ালেই রয়েছে! কি হবে উত্তর ২৪ পরগনার বরখাস্ত শিক্ষকদের !

রাজ্যের বরখাস্ত শিক্ষকদের তালিকা এখনো আড়ালেই রয়েছে!তাই ক্ষোভ উত্তরে, হাই কোর্টের বিচারক অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়ের নির্দেশে রাজ্যের ২৬৯ জন প্রাথমিক শিক্ষক-শিক্ষিকার নিয়োগ বাতিল হয়েছে।

Primary TET Scam: শিক্ষক নিয়োগে দুর্নীতির অভিযোগের মামলায় হাই কোর্টের বিচারক অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়ের নির্দেশে রাজ্যের ২৬৯ জন প্রাথমিক শিক্ষক-শিক্ষিকার নিয়োগ বাতিল হয়েছে। ওই নির্দেশের পর বিভিন্ন জেলায় শিক্ষকদের বরখাস্তের তালিকা বেরিয়েছে।তবে উত্তর ২৪ পরগনার বরখাস্ত শিক্ষকদের তালিকা আড়ালেই রয়েছে(Primary TET Scam)।এই নিয়ে ক্ষোভ তৈরি হয়েছে।

Advertisement

আদালতের নির্দেশে বিভিন্ন জেলায় শিক্ষকদের বরখাস্ত (Primary TET Scam) করা হচ্ছে। তালিকায় কাদের নাম আছে, তা নিয়ে জোর চর্চাও শুরু হয়েছে।ওই তালিকায় উত্তর ২৪ পরগনা জেলার কারও নাম আছে কিনা, তা এখনও প্রকাশ্যে আসেনি।এই বিষয়টি সামনে আসতেই কটাক্ষ করতে ছাড়ছেন না বিরোধীরা।বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলি মনে করছেন যে বেআইনিভাবে শিক্ষক নিয়োগের রাঘব বোয়ালেরা এই জেলাতেই রয়েছেন।

Advertisement

মনে করা হচ্ছে শাসকদলের মদতে তালিকা আপাতত চেপে রাখার চেষ্টা করা হচ্ছে। জেলা প্রাথমিক শিক্ষা সংসদের অফিসে আগাগোড়া গোপনীয়তা বজায় রাখা হচ্ছে। ওই কাজে সরকারি আধিকারিকদেরও ব্যবহার করা হচ্ছে বলে অভিযোগ উত্তর ২৪ পরগনার তালিকায় কাদের নাম আছে তা জানতে সোমবার একাধিকবার ফোন করা হয় জেলা প্রাথমিক বিদ্যালয় শিক্ষা সংসদের জেলা স্কুল পরিদর্শক কৌশিক রায়কে।কিন্তু তিনি ফোন ধরেননি।

আরও পড়ুন :  জার্মানির যুদ্ধজাহাজ এবার টহল দেবে ভারত মহাসাগরের বুকে
Advertisement

নিয়ম অনুযায়ী বরখাস্ত হওয়া শিক্ষক শিক্ষিকাদের নামের তালিকা সংশ্লিষ্ট (Primary TET Scam) এসআই অফিসগুলিতে পাঠিয়ে দেওয়ার কথা। বনগাঁ ও বসিরহাটের কয়েক জন এসআইয়ের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে সোমবার তাঁরা জানান, সেই তালিকা তাঁদের কাছে পৌঁছয়নি। সরকারি ভাবে বরখাস্ত হওয়া শিক্ষক শিক্ষিকাদের নাম জানা না গেলেও সোশ্যাল মিডিয়ায় বেশি কিছু নামের তালিকা ঘুরছে। সেগুলি’ ভুয়ো না সঠিক, তা নিয়ে শিক্ষা দফতরের কর্তারা কোনও মন্তব্য করছেন না।

Advertisement

এই বিষয়ে বামপন্থী শিক্ষক সংগঠন এবিটিএ এর বনগাঁ মহকুমার সম্পাদক পীযূষকান্তি সাহা বলেন শিক্ষক নিয়োগে দুর্নীতির (Primary TET Scam) মাথারা সব এই জেলায় রয়েছেন। এতে শাসক দলের লোকজনও জড়িয়ে আছেন। তাই তালিকা প্রকাশ্যে আনা হচ্ছে না। তিনি আরও বলেন, আমরা চাই অবিলম্বে তালিকা প্রকাশ্যে আনা হোক। কিছুদিন পরই স্কুল খুলবে।তাই কারা প্রকৃত শিক্ষক, তা জানা খুব জরুরি বিষয়।

এই বিষয়ে বিজেপি বিধায়ক স্বপন মজুমদারের বলেন যে সব তৃণমূল নেতারা উত্তর ২৪ পরগনা জেলা পরিচালনা করেন, তাঁদের বড় অংশ এই দুর্নীতিতে জড়িত৷ তাই দলের স্বার্থে তালিকা চেপে দেওয়ার চেষ্টা করা হচ্ছে।যত দ্রুত সম্ভব বরখাস্ত শিক্ষকদের তালিকা প্রকাশ্যে (Primary TET Scam) আনা প্রয়োজন।

তৃণমূলের বনগাঁ সাংগঠনিক জেলার সভাপতি গোপাল শেঠ বিরোধীদের অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন তালিকা প্রকাশের সঙ্গে আমাদের দলের কোনও সম্পর্ক নেই। হাই কোর্টের নজরদারিতে এবং নির্দেশে অনুসন্ধান, তদন্ত চলছে। বিরোধীরা আদালতের অনুসন্ধান নিয়েও সন্দেহ করছেন। এক্ষেত্রে আমাদের কিছুই বলার নেই।তালিকায় কার নাম রয়েছে এ নিয়ে সমালোচনা চলছেই।

Related Articles

Back to top button