Ration card – রাজ্যে ২ কোটি রেশন কার্ড বাতিল হলো! এই বাতিলের তালিকায় আপনার কার্ড নেই তো ?

Advertisement

Ration card – রাজ্যের রেশনে কয়েক বছর ধরে বিনামূল্যে খাদ্যশস্য দেওয়া শুরু করেছে সরকার। বিনামুল্যে খাদ্য শস্য দেওয়ার ফলে কয়েক কোটি মানুষ উপকৃত হচ্ছেন। বিনামুল্যে রেশন ব্যবস্থা নিয়ে অনেকদিন ধরেই সরকারের কাছে নানা অভিযোগ আসছিল। মুলত ভুয়ো রেশন কার্ড নিয়েই এই অভিযোগ সামনে এসেছে। অনেক মৃত ব্যক্তির নামে রেশন কার্ড (Ration card) রয়েছে এবং সেই কার্ডের সুবিধা নিচ্ছেন এমন অভিযোগও প্রকাশ্যে এসেছে। আবার একজনের নামেই একাধিক রেশন কার্ড (Ration card) রয়েছে বলেও অভিযোগ উঠেছে।

WhatsApp Group Join Now
Telegram Group Join Now

এই সব ভুয়ো রেশন কার্ড (Ration card) ধারীরা রীতিমত বিনামুল্যে রেশন ব্যবস্থার সুবিধা নিচ্ছিলেন। রেশন থেকে সংগ্রহ করা খাদ্য শস্য খোলা বাজারে বিক্রিও করতেন। রেশন সামগ্রী খোলা বাজারে বিক্রি করা বেআইনি এবং অনৈতিক। এই ভুয়ো রেশন কার্ড গুলির জন্য সরকারের অতিরিক্ত অর্থ খরচ হচ্ছিল। যার ফলে রাজ্য সরকারের কোষাগারে টান পড়ছিল। তাই সরকার ডুয়ো রেশন কার্ড নিয়ে কড়া ব্যবস্থা গ্রহন করেছেন।

Advertisement

বেশ কিছুদিন আগেই সরকার আধার কার্ডের সঙ্গে রেশন কার্ড ((Ration card)) লিঙ্ক করার নির্দেশ দিয়েছেন। আধার কার্ডের সঙ্গে রেশন কার্ড (Aadhar Ration card link) লিঙ্ক করার উদ্দেশ্যই ছিল ভুয়ো রেশন কার্ড চিহ্নিত করা। মুলত ভুয়ো রেশন কার্ড চিহ্নিত করার জন্যই সরকার আধার কার্ডকে হাতিয়ার করেছেন। রেশন কার্ডের সঙ্গে আধার নম্বর লিঙ্কের সময়সীমা শেষ হওয়ার পরই ভুয়ো রেশন কার্ড বাতিলের কাজ শুরু হয়েছে।

Advertisement

আরও পড়ুন – Laxmi bhandar – রাজ্যে মুসলিম মহিলাদের লক্ষ্মীর ভান্ডারে ১০০০ টাকা দেওয়া দাবি তৃণমূল বিধায়কের।

কাদের রেশন কার্ড (Ration card) বাতিল হয়েছে।

বাংলায় প্রায় ২ কোটি রেশন কার্ড বাতিল হয়েছে। ভুয়ো রেশন কার্ড বাতিলের ফলে বর্তমানে রেশন কার্ডের সংখ্যা প্রায় ৮ কোটি ৮০ লক্ষ্যে এসে দাঁড়িয়েছে। অথচ রাজ্যে ডিজিটাল রেশন কার্ড তৈরির সময় কার্ডের সংখ্যা ১০ কোটি ৭০ লক্ষের আশেপাশে ছিল। অর্থাৎ প্রায় ২ কোটি বাতিল হওয়া রেশন কার্ড (Ration card) যে ভুয়ো তা স্পষ্ট বোঝাই যাচ্ছে।

রেশন কার্ড হোল্ডারদের প্রতিমাসে বিনামূল্যে খাদ্য শস্য দিতে সরকারের প্রায় ৩০০ কোটি টাকা খরচ হয়। সেই হিসেবে ২ কোটি ভুয়ো রেশন কার্ড বাতিল হওয়ার ফলে বছরে সরকারের প্রায় ৩,৫০০-৩,৬০০ কোটি টাকা বেঁচে যাচ্ছে। অর্থাৎ ভুয়ো রেশন কার্ড বাতিল করার ফলে সরকারের আর্থিক উন্নতি হবে তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না।

সরকারের তরফে ইতিমধ্যেই এই ২ কোটি ভুয়ো রেশন কার্ড নিষ্ক্রিয় করে দেওয়া হয়েছে। তবে যে সব রেশন কার্ড বাতিল করা হয়েছে, সেই তালিকায় যদি কোনও বৈধ গ্রাহক থাকেন তিনি পরবর্তীতে সঠিক তথ্য প্রমান দিয়ে আবার রেশন গ্রাহকের তালিকায় নিজের নাম তুলতে পারবেন। রাজ্যের রেশন ব্যবস্থাকে দুর্নীতিমুক্ত করতেই সরকার এই কড়া পদক্ষেপ নিয়েছেন।

আরও পড়ুন –  শুধু মহিলা সরকারি কর্মী না, এবার পুরুষ কর্মীরাও পাবে এই সুবিধা। কেন্দ্রীয় সরকারের বড় ঘোষণা!

Advertisement
JoinJoin