Advertisement
নিউজ

NPS Scheme ( National Pension Scheme): মাত্র ৪০০ টাকা জমিয়ে মাসে ১ লাখ পেনশন, সঙ্গে কর ছাড়ের সুবিধা

যে হারে ব্যাঙ্ক সুদের হার কমাচ্ছে তাতে একজন নাগরিককে সঞ্চয়ের পাশাপাশি বিনিয়োগও করতে হয়। কিন্তু কোথায় বিনিয়োগ করবেন?

NPS Scheme ( National Pension Scheme) বর্তমানে একজন নাগরিক স্রেফ সঞ্চয়ের উপর ভিত্তি করে নিজের সম্পূর্ণ জীবন অতিবাহিত করতে পারেন না। যে হারে ব্যাঙ্ক সুদের হার কমাচ্ছে তাতে একজন নাগরিককে সঞ্চয়ের পাশাপাশি বিনিয়োগও করতে হয়। কিন্তু কোথায় বিনিয়োগ করবেন? এই প্রশ্ন ওঠে। বর্তমানে দেশে একাধিক বিনিয়োগ মাধ্যম আছে। তার মধ্যে বেশ কিছু রাষ্ট্রায়ত্ত ও বেশ কিছু আবার প্রাইভেট। এই দুই ক্ষেত্রেই আপনি বিনিয়োগ করতে পারেন।

Advertisement

কিন্তু বেসরকারি ক্ষেত্রে বিনিয়োগের জন্য অনেকেই যথেষ্ট ভরসা করতে পারেন না। তাই গ্রাহক তথা কর্মচারীদের জন্য ঠিকঠাক বিনিয়োগ মাধ্যম হিসাবে ন্যাশনাল পেনশন স্কিম বা NPS এর কথা ভাবতে পারেন।ন্যাশনাল পেনশন সিস্টেম (NPS) হল একটি অবসরের স্বেচ্ছা সঞ্চয় প্রকল্প। এই প্রকল্প গ্রাহকদের অবসরকালে পেনশনের আকারে ভবিষ্যত সুরক্ষিত করার সুবিধা দেয়। এর জন্য মাসে মাসে নির্দিষ্ট পরিমাণ অর্থ সঞ্চয় করতে হয়।

Advertisement

ন্যাশনাল পেনশন স্কিমের ( National Pension Scheme) অর্থ সম্পূর্ণ নিরাপদ। এই স্কিম সরাসরি সরকারের অধীনে। NPS খাতে আপনি ধীরে ধীরে বিনিয়োগ করতে পারেন। NPS একটি দীর্ঘমেয়াদি স্কিম। এই স্কিমে আপনি যত বেশি সময় ধরে টাকা রাখতে পারেন, ততই বেশি লাভ আপনার।এই স্কিমটি কেন্দ্র সরকারের সঙ্গে সম্পর্কিত একটি স্কিম, যা সরকারী, বেসরকারী এবং অসংগঠিত ক্ষেত্রের কর্মচারীদের জন্য একটি স্বেচ্ছাসেবী বিনিয়োগ প্রকল্প হিসাবে কাজ করে।

আরও পড়ুন :  কম সুদে ঋণ নিয়ে ব্যবসার সুযোগ 'কর্মসাথী' প্রকল্পে, আবেদন করা যাবে আজ থেকেই
Advertisement

NPS-এ প্রতি মাসে মাত্র ১২,০০০ টাকা বিনিয়োগ করতে পারেন এবং মাসে ১.৭৮ লক্ষ টাকা করে পেনশন পেতে পারেন।এই প্রকল্পটি পেনশন তহবিল নিয়ন্ত্রক ও উন্নয়ন দ্বারা পরিচালিত হয়।এই পরিকল্পনায়, আপনার ব্যক্তিগত সঞ্চয় একটি সেনশন তহবিলে রূপান্তরিত হয়। PFRDA সরকারী বন্ড, বিল, কর্পোরেট ডিবেঞ্চার এবং শেয়ারে বিনিযোগ করে।

Advertisement

NPS অ্যাকাউন্ট খোলার সময় হোল্ডাররা দুটি বিকল্প পান৷ এই দুটি বিকল্প হল সক্রিয় এবং অটো মোড৷ অ্যাকাউন্ট হোল্ডারদের বার্ষিক আয়ের জন্য মেয়াদ পূর্তিতে বিনিয়োগ করার বিকল্প রয়েছে। বার্ষিক কেনার এই শতাংশ নির্ধারণ করে আপনি কত পেনশন পাবেন৷এনপিএস নিয়ম অনুযায়ী, নেট এনপিএস ম্যাচুরিটির কমপক্ষে ৪০% থেকে একটি বার্ষিক ক্রয় করা প্রয়োজন৷ পক্ষান্তরে, কেউ যদি এই সীমা বাড়াতে চায়, তবে সে বাড়াতে পারে৷ এগুলি ছাড়াও যে কোনও অ্যাকাউন্ট হোল্ডার ১০০% NPS ম্যাচিউরিটি আয় ব্যবহার করে বার্ষিকী কিনতে পারেন।

উচ্চ মাসিক পেনশন পাওয়ার জন্য NPS একটি ভাল বিনিয়োগ৷ ট্যাক্স এবং বিনিয়োগকারী বিশেষজ্ঞদের মতে, এমনকি কম ঝুঁকিপূর্ণ বিনিয়োগকারীরাও প্রতি মাসে তাদের এনপিএস অ্যাকাউন্টে ১২,০০০ টাকা বিনিয়োগ করে প্রতি মাসে ১.৭৮ লক্ষ টাকা উপার্জন করতে পারে।অন্যদিকে NPS গ্রাহকরা যদি অবসর গ্রহণের পর তাদের মাসিক আয় বাড়াতে সিস্টেম্যাটিক উইথড্রয়াল প্ল্যান ব্যবহার করেন, তাহলে এই পেনশন পাওয়া যাবে৷

প্রতি মাসে ১২০০০ টাকা বিনিয়োগ করলে পাবেন?

যদি একজন বিনিয়োগকারী তার NPS অ্যাকাউন্টে প্রতি মাসে ১২০০০ টাকা বিনিয়োগ করে ৩০ বছরের জন্য ইক্যুইটি-ডেট এক্সপোজারকে ৬০:৪০ অনুপাতে রেখে এবং নেট NPS ম্যাচিউরিটি আয় থেকে ৪০% অ্যানুইটি ক্রয় করে, তাহলে এই বিনিয়োগের উপর ১০% রিটার্ন ধরে নিয়ে, তিনি ১,৬৪,১১,১৪২ টাকা একক আয় এবং ৫৪,৭০৪ টাকা মাসিক পেনশন পারেন। তিনি বার্ষিক হিসাবে কমপক্ষে ৬% বার্ষিক রিটার্ন পাবেন।

২৫ বছরের জন্য SWP-এ ১.৬৪ কোটি টাকা বিনিয়োগ করে, SWP প্রতি বছর ৮% রিটার্ন NPS বিনিয়োগকারীকে ২৫ বছরের জন্য প্রতি মাসে সাহায্য হিসাবে ১,২৩,৫৬০ টাকা দেয়। অর্থাৎ, যদি কোনো ধারক ৫০:৫০ অনুপাতে ইক্যুইটি ঋণের ঝুঁকি রেখে ৩০ বছরের জন্য তার NPS অ্যাকাউন্টে প্রতি মাসে ১২০০০ টাকা বিনিয়োগ করেন, তাহলে তিনি প্রতি মাসে প্রায় ১.৭০ লাখ টাকা পাবেন। এতে ৬৮,৩৩০ টাকা বার্ষিক রিটার্ন এবং SWP ১.০২ লক্ষ টাকা পাবেন।

ন্যাশনাল পেনশন স্কিম হল একটি অবসর তহবিল তৈরি করার জন্য সবচেয়ে জনপ্রিয় বিনিয়োগ বিকল্পগুলির মধ্যে একটি।অবসরকালে মাসে মাসে উচ্চ মূল্যের পেনশন পেতে গেলে বিনিয়োগকারীদের যত দ্রুত সম্ভব এই পেনশন স্কিমে বিনিয়োগ করা উচিত।

Related Articles

Back to top button