আজব চাকরি! গাঁজা টেনে মাসিক উপার্জন ৮৮ লক্ষ টাকা!

Advertisement

কেবল গাঁজা টেনেই মাসিক ৮৮ লক্ষ টাকা উপার্জন করতে পারেন। গাঁজা টানার মত এহেন ‘মন্দ কাজ’ করার জন্য কে এতো টাকা দেবে এটাই ভাবছেন তো? চাকরির এই মন্দার বাজারে যেখানে একটা চাকরির জন্য সবাই হাপিত্তাস করছে সেখানে শুধুমাত্র গাঁজা সেবনেই এতো টাকা মিলবে।

WhatsApp Group Join Now
Telegram Group Join Now
Advertisement

শুনতে অবাক লাগলেও এমনই এক চাকরির জন্য যোগ্য প্রার্থীর খোঁজ চলছে। এমন উদ্ভট কাজের জন্যই এক কোম্পানি লোক খুঁজছে। কাজ হল কেবল গাঁজা সেবন করা। সম্প্রতি এমনই এক চাকরির বিজ্ঞাপন ঘিরে চারিদিকে উত্তাল ছড়িয়েছে।

Advertisement

আরও পড়ুন – Income Tax slab – নতুন নিয়মে মধ্যবিত্তের মুখে হাসি! আয়ে দিতে হবে না কোন রকম কর।

জার্মানির ‘ক্যানামেডিক্যালস’ নামের এই কোম্পানি একজন কর্মচারী খুঁজছেন যার কাজ শুধু গাঁজা সেবন করা। শুধু তাই নয় এই কাজের জন্য প্রতিষ্ঠানটি মোটা বেতনও দিচ্ছে। ‘মোস্ট ইনটক্সিকেটিং জব’-এ গাঁজা পরীক্ষকের চাকরিতে প্রতি মাসে ৮৮ লক্ষ টাকা পর্যন্ত বেতন দেওয়া হবে।

এই কোম্পানি কী কাজ করে?

জার্মানির “ক্যানামেডিক্যালস’ নামের এই কোম্পানি মূলত ফার্মাসি কোম্পানিরগুলির জন্য চিকিৎসা ক্ষেত্রের গাঁজা বিক্রি করে। এই কোলোন-ভিত্তিক কোম্পানির নাম Canamedicals. এই কোলোন-ভিত্তিক কোম্পানি নিজেদের গাঁজার গুণমান পরীক্ষা করার জন্য বিশেষজ্ঞের সন্ধান করছেন। জার্মানির এক সংস্থা গাঁজা বিশেষজ্ঞের সন্ধান করছে, যারা তাদের পণ্যের গুণমান পরীক্ষা করতে পারে। ওষুধ তৈরিতে যেহেতু এই গাঁজা ব্যবহৃত হয় সেক্ষেত্রে গাঁজার গুণমান যাতে ভালো থাকে সেই বিষয় জোর দিচ্ছে কোম্পানি। তাই তাঁরা এমন লোক খুঁজছে যাঁরা তাঁদের পণ্যের গুণমান পরীক্ষা করে দেখতে পারে।

কর্মচারীকে কি কাজ করতে হবে?

জার্মানির এই কোম্পানি এমন একজন কর্মচারী খুঁজছেন, যিনি তাদের পণ্যের গন্ধ, অনুভব করতে ও ফুঁ দিতে পারেন। মূলত ‘মেডিক্যাল গাঁজা’ তৈরির জন্য কোম্পানি ভাল পণ্য চাইছে। Canamedicals কোম্পানির গ্রাহক বৃদ্ধির জন্য ভাল পণ্য তৈরি করতে চায়। সেই কাজের জন্য তারা সঠিক ব্যক্তির সন্ধান করছে। সর্বোপরি গাঁজা পরীক্ষায় নিযুক্ত কর্মীকে সামগ্রীর গুণমানও পরীক্ষা করতে হবে।

কী কী শর্তে এই চাকরি মিলবে?

যে কেউ চাইলেই এই চাকরি পেতে পারবেন না। এই চাকরির আবেদনের জন্য কোম্পানি কিছু শর্ত রেখেছে। আবেদনকারীকে একজন গাঁজা বিশেষজ্ঞ হতে হবে। তাঁর কাজ মূলত সামগ্রিক পণ্যের গুণমান পরীক্ষা করা। সবচেয়ে বড় কথা সংশ্লিষ্ট ব্যক্তির কাছে গাঁজা সেবনের লাইসেন্স থাকত হবে ।

এমন এক আজব চাকরির খবর প্রকাশ্যে আসতেই অনেকেই উল্লসিত হয়ে পড়েছেন। এই ব্যতিক্রমী চাকরির জন্য সংস্থার ওয়েবসাইটে রীতিমত আবেদনের বন্যা বয়ে গেছে।আবেদনের বন্যা হওয়ার কথাই,কারন গাঁজার এক টানেই মিলবে লক্ষ লক্ষ টাকা। আর কাজ শুধু গাঁজায় টান দেওয়া।

সাধারণত অনেক দেশেই গাঁজা টানা মুলত নিষিদ্ধ। তবে বর্তমানে অনেক দেশেই এই গাঁজা সেবন বৈধ করার চিন্তা ভাবনা চলছে। তেমনই জার্মানিতেও সম্প্রতি গাঁজা সেবন বৈধ করার বিষয়টি নিয়ে আলোচনা শুরু হয়েছে। ইতিমধ্যেই জার্মানির স্বাস্থ্যমন্ত্রী এই নিয়ে আলোচনাও শুরু করেছেন। তাই জার্মানির এই কোম্পানি এমন একজন কর্মচারী খুঁজছেন, যিনি তাদের পণ্যের গন্ধ, অনুভব করতে ও ফুঁ দিতে পারবেন। এই ধরনের ব্যতিক্রমী চাকরি নতুন নয়,এর আগেও একটি আমেরিকান কোম্পানি এমন একটি চাকরির অফার দিয়েছে। যেখানে কর্মচারীকে মাসে তিন লাখ টাকা বেতনের প্রস্তাব দেওয়া হয়েছিল।

Advertisement

Leave a comment