১০,৩২৩ জন শিক্ষকের চাকরি নিয়ে, স্পষ্ট জানিয়ে দিল উচ্চ আদালতের প্রধান বিচারপতি।

Advertisement

শিক্ষক চাকরি নিয়োগ দুর্নীতি নিয়ে বিভিন্ন সময় বিভিন্ন রকম নতুন নতুন সমস্যা বারবার সৃষ্টি হয়েই চলেছে। এর মধ্যেই কাটল এক নতুন বিভ্রান্তি, ১০,৩২৩ জন শিক্ষক আর চাকরি ফিরে পাবেন না বলে স্পষ্ট জানিয়ে দিল উচ্চ আদালতের প্রধান বিচারপতি। বেশ কিছুদিন ধরেই ত্রিপুরায় শিক্ষক শিক্ষিকারা মিডিয়ার সামনে এসে বিভিন্নভাবে জলঘোলা করছিল বিভিন্ন বিষয়কে আরও বেশি রং চরিয়ে  পেশ করছিল মানুষের সামনে।

WhatsApp Group Join Now
Telegram Group Join Now

তাছাড়া বেশ কিছু নেতা তাদের ভোট ধরে রাখার জন্য বিধানসভায় গিয়ে এ বিষয়ে বিভিন্ন মন্তব্য করছে। বুধবার এ বিষয় নিয়ে পরিষ্কারভাবে জানিয়ে দিল হাইকোর্ট। ২০২১ সালে চাকরিজীতেও শিক্ষকদের মধ্যে তিনজন হাইকোর্টে একটি এফআইআর দায়ের করে। সেই এফ আই আর এর উপর ভিত্তি করে গত তিন জুলাই হাইকোর্ট শুনানি দেয়। কিন্তু সেই শুনানি দেওয়ার পরও বেশ কিছু মানুষ এটিকে নিয়ে জলঘোলা করে। যার ফলে শুরু হয় বিভিন্ন বিভ্রান্তির।

আরও পড়ুন – ISRO Recruitment – ভারতীয় মহাকাশ গবেষণা সংস্থা ISRO -তে শূন্যপদে কর্মী নিয়োগ।

Advertisement

বহু শিক্ষক মনে করছিলেন তারা তাদের চাকরি ফিরে পেতে চলেছে। কত ১৪ জুলাই তাই উচ্চ আদালতে একটি পিটিশন ফাইল করে আদালতের থেকে স্পষ্টিকরণ চাওয়া হয়। সেটিই স্পষ্টভাবে জানান হাইকোর্টের বিচারপতি। তিনি জানান গত ৩ তারিখ যে রায় প্রদান করা হয়েছিল সেই রায় আসলে প্রত্যেকের জন্য নয়।

Advertisement

যে তিনজন এ নিয়ে নতুন করে মামলা করেছিল তাদের জন্য এই রায় দেওয়া হয়েছে। এবং আদালত এখনো অব্দি চাকরি প্রার্থীরা চাকরি ফিরে পাবে কিনা এ নিয়ে কোনরকম রায় প্রদান করেনি। এবং তিনি আরো বলেন  পুলিশ চাইলে প্রপার ইনভেস্টিগেশন করে দেখতে পারে কারা এই বিভ্রান্তিমূলক তথ্য মানুষের মধ্যে ছড়িয়েছিল।

সংবাদ মাধ্যমে এবং মানুষের মধ্যে যে খবর ছড়ানো হচ্ছিল সেই খবরটি পুরোপুরি ভুয়ো পুলিশ চাইলে সেই খবরে ইনভেস্টিগেশন করে দেখতে পারে। তবে বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন কোন এক বিশেষ শ্রেণী সাধারণ মানুষের মধ্যে উত্তেজনা ছড়ানোর জন্য এ ধরনের ভুয়া খবর ছড়িয়ে চলেছে। তবে এই ১০,৩২৩ জন শিক্ষকের ভবিষ্যৎ এখন অপেক্ষায়।

আরও পড়ুন – বেআইনি ভাবে চাকরি, বেতন বন্ধের নির্দেশ দিলেন বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়।

Advertisement
JoinJoin