Advertisement
টেক গাইড

Dear lottery: লটারি কেটে কোটিপতি হতে চান?তাহলে এই পদ্ধতিটি অবলম্বন করুন, নিশ্চিত পুরষ্কার জিতবেন

আবার অনেকেরই কপাল মন্দ, লটারির নম্বর মেলেনি।অনেকে বলেন লটারি জেতার জন্য চাই ভাগ্য৷ কিন্তু এই লটারি জেতার ভাগ্য কি সবার আছে।

Dear lottery: লটারি জিতে রাতারাতি কোটিপতি হওয়ার স্বপ্ন অনেলেই দেখেন। এই আশায় সেই কোন যুগ থেকে লটারি কেটে চলেছেন মানুষজন। অনেকেরই ভাগ্য খুলেছে, জিতেছেন লটারির কোটি কোটি টাকা! আবার অনেকেরই কপাল মন্দ, লটারির নম্বর মেলেনি।অনেকে বলেন লটারি জেতার জন্য চাই ভাগ্য৷ কিন্তু এই লটারি জেতার ভাগ্য কি সবার আছে।

Advertisement

কত মানুষ আছেন যারা এই লটারির জন্য কত টাকা খরচ করেছে। কিন্তু লাভের লাভ কিছুই হয় না।আজকাল অনেকেই নিজের ভাগ্যের চাকা ঘোরানোর উদ্দেশ্যে লটারি Dear lottery কেটে থাকেন, তবে বেশিরভাগ মানুষই সঠিক পরিকল্পনার অভাবে টিকিট কেটেও কোনো বড়ো পুরস্কার জিততে পারেন না। ফলে লাভের আশা করতে গিয়ে উল্টো ক্ষতির পরিমানই বেশি হয়।

Advertisement

আপনিও কী বহুবার লটারি Dear lottery কেটেও ভালো কোনো পুরস্কার জিততে ব্যর্থ হয়েছেন? তাহলে আর চিন্তা করবেন না।কারন এই খবরটি আপনার অনেক কাজে লাগবে।শুধু লটারির দোকানে গিয়ে ইচ্ছেমতো টিকিট কাটলেই পুরস্কার জেতা যায় না। এর জন্য দরকার কিছু স্পেশাল ট্রিকস্, যেগুলো সঠিকভাবে কাজে লাগিয়ে টিকিট কাটলে সহজেই বড়ো কোনো পুরস্কার জিতে নিতে পারেন।

Advertisement

কয়েকটা সহজ কৌশল রয়েছে লটারির নম্বর বাছার,তারপর আপনিও জিতে যেতে পারেন লটারি।তবে এই ট্রিকগুলো কাজে লাগানোর আগে সঠিকভাবে বুঝে নেওয়াটাও জরুরি। আজ এরকমই একটি দারুন স্পেশাল ট্রিক সম্পর্কে আলোচনা করবো, যেটি সঠিকভাবে Apply করে আপনি গ্যারান্টী কোনো না কোনো পুরস্কার জিততে পারবেন।

Advertisement

আজকের এই স্পেশাল ট্রিকটির নাম ডেল্টা লোটো মেথড পদ্ধতি, যার মাধ্যমে কিছু পরিসংখ্যানের দ্বারা লটারির Dear lottery টিকিট নম্বর বেছে নেওয়া হয়। গবেষণার মাধ্যমে এই পদ্ধতি আবিষ্কার করা হয়েছে। তাই এর বিশ্বাসযোগ্যতা সম্পর্কে কোনো রকম সন্দেহ করার দরকার নেই। চলুন এবার এই পদ্ধতি সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক –

ডেল্টা লোটো মেথড পদ্ধতি (Delta Lotto System):-

  • (১) সবার প্রথমে একটি ছোটো সংখ্যা নির্বাচন করতে হবে। সেই সংখ্যাটি ১ থেকে ৫ এর মধ্যে ১ বাছতে হবে। এক্ষেত্রে ১ খুবই ভালো সংখ্যা। দেখা গিয়েছে যে, প্রায় ৬০% বিজয়ী লটারির টিকিটে ১ নম্বরটি থাকে। ৩ বা ৫-ও বেছে নিতে পারেন। এগুলোও ভালো সংখ্যা।
  • (২) এবার ১ এবং ৮ এর মধ্যে যেকোনো দু’টো সংখ্যা বেছে নিন। ‘৩ ও ৫´ এক্ষেত্রে সবথেকে ভালো choice। ‘২ ও ৬’-ও পছন্দ করতে পারেন। আবার জোড় বিজোড় মিলিয়েও সংখ্যাটি নির্বাচন করতে পারেন।
  • (৩) এরপরে ৮ সংখ্যাটির খুব কাছের একটি সংখ্যা পছন্দ করুন। ৮ এর আগের সংখ্যা ৭ কিংবা ৮ এর পরবর্তী সংখ্যা ৯ বাছতে পারেন।
  • (৪) এবারে ৮ এবং ১৫ সংখ্যা দু’টোর মাঝখানে একটি নম্বর বেছে নিন। আপনি আগের ধাপে যেই নম্বরগুলো নির্বাচন করেছেন, সেগুলোর থেকে একটু আলাদা ধরনের ও দূরের দিকের দু’টি নম্বর বাছুন। ১১ এবং ১৩ বাছতে পারেন। অথবা ‘১৪ ও ৯’ কিংবা ‘১০ ও ১৪’-ও বেছে নিতে পারেন।
  • (৫) তারপরে বেছে নেওয়া সব নম্বরগুলো যোগ করুন। লক্ষ্য রাখবেন, নম্বরগুলোর যোগফল যেনো কখনোই লটারির প্রযোজ্য সর্বোচ্চ নম্বরকে ছাড়িয়ে চলে না যায়। যদি ৫৬ সর্বোচ্চ নম্বর হয়। তাহলে আপনি সঠিকভাবে নম্বর নির্বাচন করেছেন কারণ আপনার বেছে নেওয়া নম্বরগুলোর যোগফল ৪২ যা ৫৬ এর থেকে কম থাকে।

এখানে সর্বোচ্চ নম্বর ৫৬ কীভাবে হচ্ছে তা বুঝতে না পারলে নীচের ব্যাখ্যাটি দেখুন Dear lottery–

এক নম্বর পদ্ধতি অনুসারে সর্বোচ্চ সংখ্যাটি হবে ৫,
দুই নম্বর পদ্ধতি অনুসারে সর্বোচ্চ সংখ্যাটি হবে ৭ ও ৭,
তিন নম্বর পদ্ধতি অনুসারে সর্বোচ্চ সংখ্যা হবে ৯,
চার নম্বর পদ্ধতি অনুসারে সর্বোচ্চ সংখ্যা হবে ১৪ ও ১৪,

তাহলে উপরোক্ত নম্বরগুলোকে পাশাপাশি লিখলে সর্বোচ্চ সংখ্যা হবে ৫ ৭ ৭ ৯ ১৪ ১৪
তাহলে নম্বরগুলোর যোগফল (৫+৭+৭+৯+১৪+১৪) = ৫৬ হবে।
আশা করি বুঝতে পেরেছেন সর্বোচ্চ সংখ্যা ৫৬ কীভাবে হলো।

  • (৬) উপরোক্ত ধাপগুলোর মাধ্যমে মোট ৬ টি সংখ্যার নম্বর চয়ন করা হয়েছে। এবার এই নম্বরগুলোকে একসঙ্গে লিখুন। আপনার নির্বাচিত নম্বরটি এরকম হতে পারে ১-৩-৫-৯-১১-১৩।
  • (৭) আগেই বলা হয়েছে যে, টিকিট বাছার সময় সবসময় ভালোভাবে নজর রাখবেন যে নম্বরগুলোর সমষ্টি যেনো সর্বোচ্চ নম্বরকে ছাড়িয়ে না যায়। যদি সর্বোচ্চ নম্বরের থেকে আপনার নম্বরটি ১৫ ঘর কম থাকে তাহলে আপনি ভালো কোনো নম্বর সিলেক্ট করেছেন যেটির পুরস্কার জেতার সম্ভাবনা খুব বেশি। তাই যদি দেখেন আপনার নির্বাচিত নম্বরটি সর্বোচ্চ নম্বরের থেকে ১৫ ঘরের থেকে আরও অনেক কম বা বেশি হয়ে যাচ্ছে তাহলে প্রয়োজনীয় যোগফল পাওয়ার জন্য আপনি সংখ্যাগুলো একটু পরিবর্তনও করে নিতে পারেন।
  • (৮) এবার আপনি যেই নম্বরগুলোকে বাছলেন সেগুলোকে
    ভিন্নভাবে সাজাতে পারেন। যেমন ১-৩-৫-৯-১১-১৩ সংখ্যাটিকে এভাবেও লেখা যায় ৫-৩-১১-৯-১-১৩,

মনে রাখবেন এই নম্বরগুলোই কিন্তু আপনার লটারির Dear lottery টিকিট নম্বর নয়। লটারির টিকিট নম্বরের সিকোয়েন্স তৈরিতে এই পদ্ধতি কাজে লাগবে।

এবারে আপনি যে সিকোয়েন্সটি তৈরী করেছেন তার প্রথম নম্বরকে লটারির ফার্স্ট ডিজিট রাখুন। দ্বিতীয় সংখ্যা হবে (সিকোয়েন্সের প্রথম সংখ্যা+দ্বিতীয় সংখ্যা)। এভাবে পরবর্তী সংখ্যাগুলোও একই পদ্ধতিতে বেছে নিতে পারবেন।

Related Articles

Back to top button