Dearness Allowance – 19: পশ্চিমবঙ্গের রাজ্য সরকারী কর্মীদের বকেয়া ডিএ 19 শে আগষ্টের মধ্যে মেটানোর জন্য নবান্নে চিঠি গেল

Advertisement

Dearness Allowance – 19: কলকাতা হাইকোর্ট রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের বকেয়া ৩১ শতাংশ মহার্ঘ ভাতা তিন মাসের মধ্যে মিটিয়ে দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছিল রাজ্য সরকারকে। ইতিমধ্যেই ২ মাস ১১ দিন কেটে গিয়েছে। কিন্তু রাজ্য সরকারের তরফে এখনও কোন ইতিবাচক প্রতিক্রিয়া মেলেনি। সরকারের তরফে কোনওরকম তৎপরতা দেখা যায়নি।

WhatsApp Group Join Now
Telegram Group Join Now

মহামান্য আদালতের রায়ের ফলে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের বেতনের ডিএ (Dearness Allowance) এখন তাদের অধিকারে পরিণত হয়েছে। কিন্তু এখন কোলকাতা হাইকোর্টের বেঁধে দেওয়া দিনক্ষণের আর মাত্র কয়েকটা দিনই বাকি। এই মুহূর্তে দাঁড়িয়ে রাজ্যের মুখ্য সচিব এবং অর্থ সচিবকে একটি চিঠি পাঠানো হয়েছে রাজ্যের কনফেডারেশন অফ স্টেট্ গভার্নমেন্ট এমপ্লয়িজ এর তরফ থেকে।

Advertisement

এই সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক হলেন শ্রী মলয় মুখোপাধ্যায় এবং সভাপতি হলেন শ্রী শ্যামল কুমার মিত্র মহাশয়। চিঠি এর বিষয় হল উচ্চ আদালতের নির্দেশ মত বকেয়া মহার্ঘভাতা প্রদান। চিঠিতে জানানো হয়েছে, যে এই বছর গত মে মাসের ২০ তারিখ মহামান্য উচ্চ আদালত নির্দেশ দিয়েছিলেন আগামী ১৯শে আগস্ট, ২০২২ এর মধ্যে রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের প্রাপ্য পঞ্চম বেতন কমিশনের বকেয়া ডিএ (Dearness Allowance) মিটিয়ে দেবার জন্য।

Advertisement

সেই মোতাবেক রাজ্যের কনফেডারেশন অফ স্টেট গভার্নমেন্ট এমপ্লয়িজ এর কর্মকর্তারা সরকারের নির্দিষ্ট দপ্তরের কাছে রায় (WPST 102 / 20 ) এর হার্ড কপিও জমা করেছেন গত ২৩শে মে, ২০২২ তারিখে। গত ১৮ই জুন,২০২২ তারিখে ডিএ সংক্রান্ত রায় কার্যকর করার ব্যাপারে সম্পূর্ন ইতিবাচক সহযোগিতা করার জন্য যে অঙ্গীকারবদ্ধ সেই বিষয়েও আধিকারিকদের জানিয়েছিলেন।

কনফেডারেশন অফ স্টেট গভর্নমেন্টস এমপ্লয়িজের তরফে চিঠিতে বলা হয়েছে ‘আমরা আশা করছি, মহামান্য আদালতে নির্দেশ মতো নির্দিষ্টের মধ্যে ২০২২ সালের ১৯ অগস্ট মধ্যে কর্মচারীদের পঞ্চম বেতন কমিশনের বকেয়া ডিএ মিটিয়ে দেওয়ার উদ্যোগ নেওয়া হবে। কারন ১৯শে আগস্ট তারিখ হল উচ্চ আদালতে বেঁধে দেওয়া সময় সীমার শেষ তারিখ। তাই হাতে মাত্র কয়েকটা দিন বাকি।

তাই একথা স্মরণ করিয়ে দেওয়ার জন্যই কনফেডারেশন অফ স্টেট গভর্নমেন্টস এমপ্লয়িজের তরফে নবান্নে চিঠি দেওয়া হল। রাজ্য সরকারি কর্মচারীরা এখন শুধুমাত্র মহামান্য উচ্চ আদালতের রায় কার্যকারী হবার প্রত্যাশায় রয়েছে। আবার রাজ্য সরকারী কর্মীদের একাংশ মনে করছেন রাজ্যের রাজনৈতিক যা পরিস্থিতি, তাতে এই মুহুর্তে ডিএ দেওয়ার ভাবনায় নেই সরকার।

কারন এখন আগে শিক্ষক নিয়োগ করে কিছুটা টেট কেলেঙ্কারীতে ড্যামেজ কন্ট্রোল করতে চাইছে রাজ্য। যদিও মহামান্য কলকাতা হাইকোর্টের নির্দেশ মতো রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের পঞ্চম বেতন কমিশনের বকেয়া ডিএ (Dearness Allowance) মিটিয়ে দেওয়া নিয়ে এখনও পর্যন্ত কোনো রকম নির্দেশ দেয়নি রাজ্য সরকার।

Advertisement
About Author
Prabir Biswas

Prabir Biswas

আমি গত চার বছর ধরে সকালের বার্তা ডিজিটাল নিউজ মিডিয়ায় কাজের সঙ্গে যুক্ত আছি। আমি মুলত যেকোনো ধরণের জেনারেল নিউজ যেমন সরকারি চাকরির আপডেট, স্কলারশিপ, সরকারি প্রকল্প, অর্থনৈতিক, টেকনোলজি ইত্যাদি বিষয়ে লেখায় পারদর্শী।