Swami Vivekananda Scholarship: ছাত্র-ছাত্রীদের ব্যাংক অ্যাকাউন্টে আস্তে চলেছে স্বামী বিবেকানন্দ স্কলারশিপের অনুদান

Advertisement

Swami Vivekananda Scholarship: পশ্চিমবঙ্গ সরকার কর্তৃক প্রদত্ত যে সমস্ত স্কলারশিপগুলি রয়েছে তার মধ্যে অন্যতম হল স্বামী বিবেকানন্দ স্কলারশিপ। স্বামী বিবেকানন্দ স্কলারশিপ এর জন্য আবেদন প্রক্রিয়া কিছুদিন আগে সমাপ্ত হয়েছে। এই স্কলারশিপ এর জন্য যারা আবেদন করেছিল তারা সকলেই উদ্বিগ্ন রয়েছে যে তাদের আবেদনটি গ্রাহ্য হয়েছে কিনা। গ্রাহ্য হলেও এই স্কলারশিপের টাকা তাদের ব্যাংক অ্যাকাউন্টে কবে আসবে।

WhatsApp Group Join Now
Telegram Group Join Now
Advertisement

এবার ওই সকল ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য রয়েছে একটি সুখবর। বিকাশ ভবন সূত্রে জানা গিয়েছে যে আগামী কয়েক দিনের মধ্যেই এই টাকা ছাত্র-ছাত্রীদের ব্যাংক অ্যাকাউন্টে আস্তে চলেছে। নতুন বছরে স্টুডেন্ট সপ্তাহ পালনের সময় স্বামী বিবেকানন্দ সহ আরো কিছু স্কলারশিপ এর টাকা ছাড়া হতে পারে বলে ইতিমধ্যেই খবর পাওয়া গেছে।

Advertisement

আরও পড়ুন – সরকারের বড়ো ঘোষণা OASIS Scholarship নিয়ে, কি করলে টাকা পাবেন জানুন।

স্বামী বিবেকানন্দ স্কলারশিপ (Swami Vivekananda Scholarship) এর মাধ্যমে রাজ্য সরকার মেধাবী ও দরিদ্র পরিবারের ছাত্র-ছাত্রীদের উচ্চ শিক্ষার জন্য আর্থিক সহায়তা প্রদান করে। স্বামী বিবেকানন্দ স্কলারশিপ এর মাধ্যমে উচ্চমাধ্যমিক স্তরের ছাত্রছাত্রীরা প্রতি মাসে ১০০০ টাকা, স্নাতক স্তরের ছাত্রছাত্রীরা ১৫০০ টাকা এবং যে সকল ছাত্র-ছাত্রীরা স্নাতকোত্তর স্তরে পড়াশুনা করছেন তারা ২৫০০ টাকা করে এককালীন আর্থিক সহায়তা পায়।

Swami Vivekananda Scholarship 2023-24

ইতিমধ্যেই অনেক ছাত্রছাত্রীদের মোবাইল নম্বরে বিকাশ ভবন এর তরফ থেকে স্বামী বিবেকানন্দ স্কলারশিপটি অনুমোদন হয়েছে কিনা সেই বিষয়ে এসএমএস আসতে শুরু করেছে। তবে কোনো ছাত্র বা ছাত্রীর নামে বিবেকানন্দ স্কলারশিপ টি অনুমোদন দেওয়ার পরে ব্যাংক একাউন্টে টাকা ঢোকার জন্য কিছু পদ্ধতি সম্পন্ন করতে হয় কর্তৃপক্ষকে।

আরও পড়ুন – মাধ্যমিক পাশ করলে মিলবে ৫০ হাজার টাকা, সমস্ত ছাত্র-ছাত্রী পাবে এই স্কলারশিপ।

১) প্রথমে উচ্চশিক্ষার দক্ষতা দেখে বিকাশ ভবন থেকে ছাত্র বা ছাত্রীর নামে স্কলারশিপ টি অনুমোদন দেওয়া হয়। সেখান থেকে একটি লট নাম্বার দেওয়া হয়।
২) লট নাম্বার দেওয়ার পরে কলকাতার ট্রেজারি থেকে ছাত্রছাত্রীর নামে টাকাটি ছাড়া হয়। এরপর ৪৮ ঘন্টা পর্যন্ত সময় লাগতে পারে ছাত্র-ছাত্রীর ব্যাংক অ্যাকাউন্টে টাকাটি ক্রেডিট হতে। প্রক্রিয়াগুলি সম্পন্ন হওয়ার পরেই ছাত্র-ছাত্রীদের ব্যাংক অ্যাকাউন্টে টাকাটি যোগ হয়ে যায়।

যাদের SVMCM স্কলারশিপ এর আবেদন অনুমোদিত হয়নি তারা কি করবে?

এখনো পর্যন্ত কোনো ছাত্র বা ছাত্রীর আবেদন পত্র যদি অনুমোদন না করা হয়ে থাকে তবে চিন্তার কোন কারণ নেই। কারণ এই প্রক্রিয়াটি ধাপে ধাপে সম্পন্ন করছে বিকাশ ভবন কর্তৃপক্ষ তাই সমস্ত ছাত্র ছাত্রীদের আবেদনপত্র একই সময় অনুমোদন করা হচ্ছে না।

বাকি সমস্ত আপডেট এর জন্য স্বামী বিবেকানন্দ স্কলারশিপের অফিশিয়াল ওয়েবসাইট ভিজিট করতে হবে https://svmcm.wbhed.gov.in/। ওই ওয়েবসাইটে গিয়ে নিজের ইউজার আইডি এবং পাসওয়ার্ড দিয়ে সহজেই চেক করে নিতে পারবে যে নিজের আবেদন পত্রের স্ট্যাটাস কি রয়েছে।

Advertisement
JoinJoin