Advertisement
নিউজ

West Bengal Schools Re-Open: ফের পশ্চিমবঙ্গে স্কুল বন্ধ হতে পারে! কি জানালো শিক্ষা দপ্তর বিস্তারিত জানুন

মাত্র এক সপ্তাহ হলো পশ্চিমবঙ্গে সমস্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলেছে। কিন্তু এরই মধ্যে আবারও বন্ধ হতে চলেছে স্কুল! কিন্তু কেন?

West Bengal Schools Re-Open: গরমের ছুটি শেষ হয়ে অবশেষে ২৭ জুন থেকে স্কুল খুলেছে। স্কুল খোলার বিষয়ে শিক্ষা দফতর এক নির্দেশিকা জারি করেছিল। সেই নির্দেশিকায় বলা হয়েছিল সমস্ত করোনা বিধি মেনেই স্কুল খোলা হবে।সেই অনুযায়ী রাজ্যের স্কুলগুলি ৫৬ দিন লম্বা ছুটির পর সোমবার থেকে খুলে গিয়েছে।মাত্র এক সপ্তাহ হলো পশ্চিমবঙ্গে সমস্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলেছে। কিন্তু এরই মধ্যে আবারও বন্ধ হতে চলেছে স্কুল! কিন্তু কেন?

Advertisement

কারন এমন একটা সময়ে স্কুলগুলি খোলা হয়েছে, যে সময় রাজ্য এবং দেশ জুড়ে করোনা সংক্রমণ ফের ঊর্ধ্বমুখী। অতিমারী আক্রান্তের সংখ্যা দিন দিন বেড়েই চলেছে।এরকম একটা পরিস্থিতিতে স্কুল খুলে রাখাটাই চ্যালেঞ্জ। তবে করোনা বিধিকে হাতিয়ার করেই স্কুল কর্তৃপক্ষ স্কুল খোলা রাখতে চাইছেন।দীর্ঘ ২ বছর পরে ধরে ধরে স্বাভাবিক হতে চলেছিল দেশের তথা পশ্চিমবঙ্গের শিক্ষা ব্যবস্থা (West Bengal Schools Re-Open) ।

Advertisement

২০২০ সালের শুরু থেকেই দেশব্যাপি অতিমারীর প্রভাব শুরু হয়েছিল। শুধুমাত্র ব্যবসায় নয়, ক্ষতির মুখে পড়েছে শিক্ষা ব্যবস্থাও। প্রায় দুই বছর বন্ধ রাখা হয়েছিল রাজ্যের স্কুলগুলি। তাই অনলাইনেই শিক্ষা প্রদানের ব্যবস্থা করা হয়েছিল।সবেমাত্র গরমের ছুটি শেষ করে স্কুল খুলেছে (West Bengal Schools Re-Open)।আর এরই মধ্যে ফের স্কুল বন্ধ হওয়ার আশংকা তৈরী হয়েছে।ইতিমধ্যেই শিক্ষা দপ্তরে উচ্চ পর্যায়ের আলোচনা শুরু হয়েছে, আর তার সাথে রয়েছে পর্যবেক্ষণ।

আরও পড়ুন :  এবার পুরুষ সরকারি কর্মীরাও পাবেন 'চাইল্ড কেয়ার লিভ'
Advertisement

একের পর এক পরিস্থিতি। যার জেরে আদতে ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে পড়ুয়াদেরই ভবিষ্যত। প্রথমে অতিমারীর প্রভাবে পড়ুয়ারা যাতে অসুস্থ না হয়ে পড়ে, তার জন্য বন্ধ রাখা হয়েছিল সমস্ত স্কুল কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়গুলি। দীর্ঘদিন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলি বন্ধ রাখার পর সরকারের তরফে চালু রাখা হয়েছিল অনলাইন শিক্ষা ব্যবস্থা। কিন্তু তাতে কতটাই বা উন্নতি হয়েছে রাজ্যের শিক্ষার্থীদের?

Advertisement

তারপর করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক হওয়ায় স্কুল-কলেজ খোলা হল, এরপর নেওয়া হল অফলাইনে পরীক্ষা।কিন্তু মাধ্যমিকের খাতা দেখতে গিয়ে চোখ কপালে উঠে যাওয়ার মত অবস্থা হয়েছিল পরীক্ষকদের (West Bengal Schools Reopen)। কেউ লিখেছেন সিনেমার ডায়লগ, তো কেউ লিখেছেন প্রিয় বন্ধুকে প্রাণের চিঠি। আবার কেউবা করেছেন পরীক্ষায় পাশ করিয়ে দেওয়ার আবেদন।

এবারের উচ্চমাধ্যমিকের কথাও বাদ দেওয়ার মত নয়।হাজার হাজার পরীক্ষার্থী পরীক্ষায় পাশ করিয়ে দেওয়ার দাবিতে রাজ্যের একাধিক জায়গায় করছেন বিক্ষোভ-আন্দোলন। এমন কলেজ-বিশ্ব বিদ্যালয়গুলিতেও (West Bengal Schools Reopen) অনলাইনে পরীক্ষা নেওয়ার দাবিতে চলেছে একাধিক বিক্ষোভ আন্দোলন। যদিও কলেজ-বিশ্ব বিদ্যালয়ে নেওয়া হয়েছে অফলাইনে পরীক্ষা।

গরমের কারনে দুই মাস স্কুল বন্ধ রাখা হয়।গত ২৭ জুন দীর্ঘ গ্রীষ্মকালীন ছুটি কাটিয়ে খুলেছে স্কুল। দুই মাস পর ক্লাসে গিয়ে প্রতিদিন নতুন নতুন অভিজ্ঞতার শিকার হচ্ছেন শিক্ষক শিক্ষিকারা। বড় ক্লাসের পড়ুয়ারা নিজের নাম পর্যন্ত লেখা ভুলে গেছে। ক্লাস ফাইভে যোগ বিয়োগ শেখাতে হচ্ছে।আর তারই মধ্যে নতুন করে মাথাচারা দিচ্ছে অতিমারী সংক্রমণ। সংক্রমণ বাড়লে এই পরিস্থিতিতে ফের স্কুল বন্ধ (West Bengal Schools Re-Open) করা ছাড়া উপায় থাকবে না বলে জানিয়েছে শিক্ষা দপ্তর।

চলতি বছরে মার্চ মাসের শেষের দিক থেকে করোনা সংক্রমণ ধীরে ধীরে কমতে শুরু করেছিল। এই পরিস্থিতি মে মাস পর্যন্ত চলেছে। কিন্তু বর্তমানে রাজ্য এবং দেশে আক্রান্তের সংখ্যা প্রতিদিনই একটু একটু করে বাড়ছে।পশ্চিমবঙ্গে এখন দৈনিক সংক্রমণ ২০০০ জন ছুইছুই। এই পরিস্থিতিতে সংক্রমণ বাড়লে ফের স্কুল বন্ধ (West Bengal Schools Re-Open) করা ছাড়া উপায় থাকবে না, (West Bengal Schools Reopen) এমনটাই জানানো হয়েছে শিক্ষা দপ্তরের তরফে।

যদিও এখনও পর্যন্ত এই বিষয়ে অফিসিয়ালভাবে কোনো বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়নি। তবে শিক্ষায় প্রথমে অতিমারী, এরপর গরমের ছুটি, তারপর ফের সেই অতিমারীর প্রভাব আদতে কতটা শিক্ষিত হতে পারছেন রাজ্যের পড়ুয়ারা?আর ভবিষ্যতে এই শিক্ষাকে কতটাইবা কাজে লাগাতে পারবেন।এই নিয়ে অনেক অভিভাবক থেকে বিশেষজ্ঞরা চিন্তা প্রকাশ করছেন (West Bengal Schools Re-Open)।

Related Articles

Back to top button