Kotak Kanya Scholarship- উচ্চমাধ্যমিক পাশে ছাত্রীদের জন্য দুর্দান্ত সুযোগ! Kotak Foundation দেবে 1.5 লক্ষ টাকার স্কলারশিপ

Advertisement

Kotak Kanya Scholarship– মেয়েদের উচ্চশিক্ষা সহজলভ্য নয় অথচ নারীরাই জাতির অগ্রদূত একথা কজনেই বা মানে। বেশিরভাগ ভারতীয় নারীর ভবিষ্যত বিয়ে ও সংসারেই শেষ হয়ে যায়। নারীদের উচ্চ শিক্ষার পথে বাঁধা হয়ে দাঁড়ায়, আর্থিক, পারিবারিক অথবা সামাজিক দিকগুলি। বহু দুঃস্থ পরিবারের মেধাবী ছাত্রীরা রয়েছে যারা চাইলেও জীবনে উচ্চশিক্ষা লাভ করতে সমর্থ হয় না। এই সমস্ত দরিদ্র মেধাবী ছাত্রীদের কথা ভেবে বিভিন্ন সময় রাজ্য সরকার তাদের সাহায্য করতে এগিয়ে এসেছে, পাশে থাকার অঙ্গীকার করেছে। এবার এই প্রতিজ্ঞায় বদ্ধপরিকর হয়েছে একটি বেসরকারি সংস্থাও যার নাম কোটাক মাহিন্দ্রা গ্রুপ বা Kotak Mahindra Group।

WhatsApp Group Join Now
Telegram Group Join Now
Kotak Kanya Scholarship
Advertisement

রাজ্য সরকার (State Government) ইতিমধ্যেই বিভিন্ন প্রকল্পের সূচনা করেছে যাতে তাঁরা রাজ্যের প্রতিটি মানুষের পাশে দাঁড়াতে পারেন তেমনই কোটাক মাহিন্দ্রা গ্রুপও নিয়ে এসেছে কোটাক কন্যা স্কলারশিপ (Kotak Kanya Scholarship 2024)। এতে দুঃস্থ মেধাবী ছাত্রীরা পেয়ে যাবে দেড় লক্ষ টাকা পর্যন্ত Scholarship, যাতে করে তাঁরা তাদের স্বপ্ন পূরণ করতে পারবে। কীভাবে আবেদন করতে হবে এবং কী যোগ্যতা প্রয়োজন এ সমস্ত কিছুই আমরা আজকে আলোচনা করব এই প্রতিবেদনের মাধ্যমে। এবার আসুন দেখে নেওয়া যাক এক নজরে সেগুলি।

Advertisement

Kotak Kanya Scholarship-এ আবেদনকারীর যোগ্যতা

  1. আবেদনকারীর পূর্ববর্তী পরীক্ষা কিংবা দ্বাদশ শ্রেণির পরীক্ষায় ৮৫ শতাংশ বা তার বেশি নম্বর থাকতে হবে।
  2. আবেদনকারীর বার্ষিক আয় থাকতে হবে ছয় লক্ষ টাকার নীচে।
  3. ২০২৩ সালে শিক্ষার্থীদের উচ্চ মাধ্যমিক পাশ করে ইন্টিগ্রেটেড এলএলবি, এমবিবিএস ইঞ্জিনিয়ারিং, ডিজাইন আর্কিটেকচার ইত্যাদি কোর্সে ভর্তি হতে হবে।
  4. সব থেকে উল্লেখযোগ্য দিকটি হল কোটাক কন্যা স্কলারশিপে বা Kotak Kanya Scholarship আবেদন কেবলমাত্র দুঃস্থ পরিবারের কন্যা সন্তানরাই করতে পারবেন।

আরও পড়ুন :- Swami Vivekananda Scholarship: ছাত্র-ছাত্রীদের ব্যাংক অ্যাকাউন্টে আস্তে চলেছে স্বামী বিবেকানন্দ স্কলারশিপের অনুদান

Kotak Kanya Scholarship-এ আবেদনের জন্য প্রয়োজনীয় নথি

  • পূর্ববর্তী বার্ষিক পরীক্ষার মার্কশিট।
  • পারিবারিক আয়ের প্রমাণপত্র।
  • সংশ্লিষ্ট শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ভর্তির রশিদ।
  • কলেজ থেকে প্রাপ্ত বোনাফাইট সার্টিফিকেট।
  • আধার কার্ড।
  • আবেদনকারীর পাসপোর্ট সাইজ ফটো।
  • ব্যাংকের পাসবুকের প্রথম পৃষ্ঠার জের।

Kotak Kanya Scholarship-এ আবেদনের পদ্ধতি

  1. প্রথমে আবেদনকারী কে Buddy4 study-তে রেজিস্টার আইডি দিয়ে লগইন করতে হবে। রেজিস্ট্রেশন করানো না থাকলে সে ক্ষেত্রে ইমেইল আইডি ও পাসওয়ার্ড দিয়ে রেজিস্ট্রেশন করতে হবে।
  2. এরপর ‘ কন‍্যা বৃত্তি প্রকল্প’ তে ক্লিক করে Start Application অপশনে যেতে হবে।
  3. অনলাইন স্কলারশিপ আবেদনপত্রে যাবতীয় প্রয়োজনীয় বিবরণ পূরণ করুন এবং প্রয়োজনীয় নথিপত্র আপলোড করুন।
  4. ‘টার্মস এন্ড কন্ডিশনসে’ ক্লিক করে সমস্ত আবেদনটি প্রিভিউ দেখে নিন এবং সব ঠিকঠাক থাকলে ফাইনাল সাবমিট করুন।

আরও পড়ুন :- সরকারের বড়ো ঘোষণা OASIS Scholarship নিয়ে, কি করলে টাকা পাবেন জানুন।

Kotak Kanya Scholarship-এ বৃত্তির পরিমাণ

পেশাদার স্নাতক/ ডিগ্রি কোর্স সম্পূর্ণ না হওয়া অবধি আবেদনকারী প্রত‍্যেক বছরে টিউশন ফি, হোস্টেল ফি, ইন্টারনেট, পরিবহন, ল্যাপটপ, বই এবং স্টেশনারি সহ একাডেমিক খরচের জন‍্য বৃত্তির বাবদ পাবে দেড় লক্ষ টাকা। সমাজে পুরুষের পাশাপাশি নারীর গুরুত্ব অসামান‍্য। তাই নারীশিক্ষা যাতে আর্থিক বা সামাজিক কারনে পিছিয়ে না পড়ে সেটা দেখভালের দায়িত্ব আমাদেরই। আর সেই কারণেই কোটাক মহেন্দ্র গ্রুপের (Kotak Mahindra Group)-এর এই উদ্যোগ।

Kotak Foundation Official Website – Click

Advertisement