Ration ePOS System – বড়ো পরিবর্তন রেশন ব্যবস্থায়! এই মাস থেকেই শুরু হতে চলেছে ePOS সিস্টেম

Advertisement

Ration ePOS System- শীঘ্রই বড়ো পরিবর্তন আসতে চলেছে রেশন ব্যবস্থায়! কী সেই পরিবর্তন? আজকের প্রতিবেদনে জানাবো বিস্তারিত ভাবে। রেশন ব্যবস্থাকে ঢেলে সাজাতে উদ্যোগী কেন্দ্রীয় সরকার, এক্ষেত্রে তাদের উল্লেখযোগ্য পদক্ষেপ প্রশংসা যোগ্য। রেশন ব্যবস্থায় (Ration System) দুর্নীতি নতুন নয়, এমন বহু মামলা বহু বছর ধরে বিচারাধীন অবস্থায় চলছে। একাধিক তৃণমূল নেতা-নেত্রীর নাম দুর্নীতির সঙ্গে যুক্ত রয়েছে তাই কেন্দ্রীয় সরকার এবার কড়া হাতে রেশন ব্যবস্থার পরিকাঠামোকে সাজাতে বদ্ধপরিকর।

WhatsApp Group Join Now
Telegram Group Join Now
Advertisement

কেন্দ্রীয় সরকারের উদ্দেশ্য দুর্নীতিমুক্ত রেশন পরিষেবা প্রদান করা। কেন্দ্রীয় সরকার সবসময় মানুষের পাশে থাকার চেষ্টা করেছে। ২০২০ সালে করোনা মহামারীর প্রকোপ চারিদিকে হাহাকার ঘটিয়েছিল বহু মানুষ তাদের চাকরি হারায়।বাড়তে থাকে বেকারত্ব। সেই পরিস্থিতিতে হাল ধরতে বিনামূল্যে রেশন (Free Ration) প্রদান করার কথা ঘোষনা করে কেন্দ্রীয় সরকার। দুবেলা দুমুঠো খাবারের সংস্থান করেন কেন্দ্রীয় সরকার। সেই থেকে এখনো পর্যন্ত বিনামূল্যে রেশন পরিষেবা বহাল রয়েছে।

Advertisement

আরও পড়ুন – Anna Bhagya Scheme: রাজ্যবাসীর জন্য সুখবর! এবার রেশন কার্ড থাকলেই প্রতিমাসে টাকা পাঠাবে সরকার।

পুরাতন রেশন ব্যবস্থা ছেড়ে কেন্দ্রীয় সরকার এনেছে ডিজিটাল রেশন কার্ড যাতে রেশন ব্যবস্থা (Ration ePOS System) আরো বেশি স্বচ্ছতা আসে রেশন ব্যবস্থা। ডিজিটাল রেশন কার্ড (Digital Ration Card) চালু হওয়ার পর রেশন দুর্নীতি বেশ কিছুটা কমিয়ে আনা সম্ভব হয়েছিল কিন্তু পুরোপুরি দুর্নীতিমুক্ত করা সম্ভব হয়নি। এবার কেন্দ্রীয় সরকার বদ্ধপরিকর দুর্নীতিমুক্ত রেশন পরিষেবা প্রদান করার জন্য। ১লা মার্চ থেকেই তাই নিয়মে নয়া বদল এসেছে, চালু হচ্ছে ইপিওএস পরিষেবা বা ePOS System২০২৩ সালের ডিসেম্বর মাস থেকেই এই পরিষেবা চালু করার পরিকল্পনা থাকলেও তা সম্ভব হয়নি। শুধুমাত্র পশ্চিমবঙ্গ সহ আরো বেশ কিছু রাজ্যে এখনো এই ইপিওএস পরিষেবা (Ration ePOS System) চালু হয়নি।

Ration ePOS System আসলে কি?

ইপিওএস (Ration ePOS System) একটি মেশিন যাতে উপভোক্তাদের ফিঙ্গারপ্রিন্ট আপলোড থাকবে। তাতে সুবিধা কি হবে? উপভোক্তা রেশন দোকান বা Ration Shop থেকে রেশন সামগ্রী তুললে তার আপডেট সাথে সাথে পৌঁছে যাবে উচ্চতর অফিসারদের কাছে। শুধু তাই নয়, রেশন ডিলারদের কাছে কত পরিমান খাদ্য সামগ্রী মজুত রয়েছে, কত পরিমাণ খাদ্য সামগ্রী বিক্রি হলো এবং কত খাদ্য সামগ্রী এখনো প্রয়োজন তার সমস্ত খুঁটিনাটি তথ্য উচ্চতর অফিসারদের কাছে থাকবে, যার ফলে এই রেশন পরিষেবায় আরো বেশি স্বচ্ছতা আসবে। আগে এই সমস্ত খুঁটিনাটি শুধুমাত্র রেশন ডিলারের কাছেই থাকতো এখন থেকে রেশন ডিলারদের পাশাপাশি তা থাকবে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছেও।

আরও পড়ুন – Ration – এবারে রেশনে দোকানে বসছে এই বিশেষ যন্ত্র! খুশি হবে রেশন গ্রাহকরা।

কেন Ration ePOS System চালু হল?

নিঃসন্দেহে এটিকে কেন্দ্রীয় সরকারের তরফ থেকে এক ভালো উদ্যোগ বলা চলে। কেন্দ্রীয় সরকারের তরফ থেকে দাবি করা হয়েছে যে সমস্ত রাজ্যে এ পরিষেবা এখনো শুরু করা হয়নি, তাতে রয়েছে শুধুমাত্র রাজ্য সরকারের গাফিলতি। তবে কেন্দ্রীয় সরকার এই গাফিলতি আর মানবেন না। আগামী দিনে রাজ্যগুলিতে এই পরিষেবা চালু না করলে ভর্তুকি বন্ধ করে দেওয়া হবে বলেই জানানো হয়েছে। আশা করা যাচ্ছে কেন্দ্রীয় সরকার এই রেশন ব্যবস্থায় যে স্বচ্ছতা আনার প্রয়াস তা সফল হবে। দুর্নীতিতে লাগাম টানতে যে সমস্ত নতুন নতুন নিয়ম জারি করছে কেন্দ্রীয় সরকার তা সফল হোক এটাই আমাদের কাম্য।

Advertisement